প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সুস্বাস্থ্য ও দীর্ঘায়ু কামনা
jugantor
৭৪তম জন্মদিন পালিত
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সুস্বাস্থ্য ও দীর্ঘায়ু কামনা

  যুগান্তর রিপোর্ট  

২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

প্রধানমন্ত্রী

নানা কর্মসূচির মধ্য দিয়ে সোমবার আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭৪তম জন্মদিন পালিত হয়েছে। করোনাভাইরাসের কারণে দিনটিতে বড় কোনো আনুষ্ঠানিকতা ছিল না।

তবে বঙ্গবন্ধুকন্যার জন্য মসজিদে দোয়া, মন্দির, গির্জা ও প্যাগোডায় বিশেষ প্রার্থনা হয়েছে। এছাড়া স্বাস্থ্যবিধি মেনে দুস্থ-গরিবদের মাঝে খাবার-ভ্যান-রিকশা বিতরণ, আলোচনা সভাসহ নানা কর্মসূচির আয়োজন করে আওয়ামী লীগসহ বিভিন্ন সংগঠন।

বিভিন্ন সামাজিক ও পেশাজীবী সংগঠনও দিনটি উপলক্ষে নানা অনুষ্ঠানের আয়োজন করে। এসব কর্মসূচিতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সুস্বাস্থ্য ও দীর্ঘায়ু কামনা করা হয়।

বিকালে বঙ্গবন্ধু এভিনিউর দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে দোয়া ও মিলাদ মাহফিলের আয়োজন করে আওয়ামী লীগ। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন দলটির সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

উপস্থিত ছিলেন- প্রেসিডিয়াম সদস্য মতিয়া চৌধুরী, ড. আবদুর রাজ্জাক, আবদুল মতিন খসরু, শাজাহান খান, জাহাঙ্গীর কবির নানক ও আবদুর রহমান, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুবউল আলম হানিফ ও ড. হাছান মাহমুদ, সাংগঠনিক সম্পাদক- আহমেদ হোসেন, বিএম মোজাম্মেল, এসএম কামাল হোসেন ও মির্জা আজম, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক আবদুস সোবহান গোলাপ, আইন সম্পাদক নজিবুল্লাহ হীরু, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি সম্পাদক আবদুস সবুর, দফতর সম্পাদক বিপ্লব বড়ুয়া, উপদতর সম্পাদক সায়েম খান, কেন্দ্রীয় সদস্য ইকবাল হোসেন অপু, সাহাবউদ্দিন ফরাজী প্রমুখ।

বায়তুল মোকাররমে দোয়া : প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিন উপলক্ষে বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদে দুপুরে ইসলামিক ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে কোরআনখানি, দোয়া ও মোনাজাত অনুষ্ঠিত হয়।

মিলাদ ও মোনাজাত পরিচালনা করেন বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদের সিনিয়র পেশ ইমাম মুফতি মাওলানা মিজানুর রহমান। মোনাজাতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সুস্বাস্থ্য ও দীর্ঘায়ু কামনা করা হয়।

মিলাদে ইসলামিক ফাউন্ডেশনের মহাপরিচালক আনিস মাহমুদ, কর্মকর্তা-কর্মচারী এবং মুসল্লিরা অংশ নেন।

এছাড়া বাদ জোহর ইসলামিক ফাউন্ডেশনের সব বিভাগীয়, জেলা ও উপজেলা কার্যালয়ের কেন্দ্রীয় মসজিদগুলোতেও প্রধানমন্ত্রীর সুস্বাস্থ্য ও দীর্ঘায়ু কামনা করে দোয়া মোনাজাত ও কোরআন খতম করা হয়।

এদিন সকাল ৯টায় আন্তর্জাতিক বৌদ্ধ বিহার (মেরুল বাড্ডা), ১০টায় খ্রিস্টান অ্যাসোসিয়েশন বাংলাদেশ (সিএবি) মিরপুর ব্যাপ্টিস চার্চ (২৯ সেনপাড়া, পর্বতা, মিরপুর-১০), সকাল ৬টায় তেজগাঁও জকমালা রানীর গির্জা এবং বেলা ১১টায় ঢাকেশ্বরী মন্দিরে বিশেষ প্রার্থনা অনুষ্ঠিত হয়।

দৃষ্টি ও বাকপ্রতিবন্ধীদের উপহার যুবলীগের : দুপুরে ২৩ বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দীর্ঘায়ু ও সুস্বাস্থ্য কামনায় মিলাদ ও দোয়া মাহফিলের আয়োজন করে যুবলীগ।

এসময় দৃষ্টি ও বাকপ্রতিবন্ধীদের খাবার ও বস্ত্র উপহার দেয়া হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে ভার্চুয়ালি বক্তব্য দেন যুবলীগ চেয়ারম্যান শেখ ফজলে শামস পরশ।

বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন সাধারণ সম্পাদক মো. মাইনুল হোসেন খান নিখিল। অনুষ্ঠানে প্রায় ৩ শতাধিক দৃষ্টি ও বাকপ্রতিবন্ধী অংশ নেয়। পরে রান্না করা খাবার, বস্ত্র (শাড়ি, লুঙ্গি) বিতরণ করেন যুবলীগ সাধারণ সম্পাদক।

স্বেচ্ছাসেবক লীগের দোয়া : সকালে কেন্দ্রীয় কর্যালয়ে প্রধানমন্ত্রীর সুস্বাস্থ্য ও দীর্ঘায়ু কামনা করে মিলাদ ও দোয়ার আয়োজন করে স্বেচ্ছাসেবক লীগ।

এতে সংগঠনের সভাপতি নির্মল রঞ্জন গুহ, সাধারণ আফজালুর রহমান বাবু, কেন্দ্রীয় নেতা গাজী মেজবাউল হোসেন সাচ্চু, ম. আবদুর রাজ্জাক, মজিবুর রহমান স্বপন, দেবাশীষ বিশ্বাস, আবু তাহের, আবদুল আলিম বেপারী, মোবাশ্বের চৌধুরী, একেএম আজিম, খায়রুল হাসান জুয়েল, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ স্বেচ্ছাসেবক লীগ সভাপতি কামরুল হাসান রিপন, উত্তরের সভাপতি ইসহাক মিয়া প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

আলোচনা সভা : জাতীয় প্রেস ক্লাবের মাওলানা আকরাম খাঁ হলে আলোচনা সভার আয়োজন করে বঙ্গবন্ধু দুস্থ কল্যাণ সংস্থা। এতে প্রধান অতিথির বক্তব্য দেন মুক্তিযুদ্ধ বিষয়কমন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক।

সংগঠনের সভাপতি মাহবুব হোসেনের সভাপতিত্বে সভায় আওয়ামী লীগ নেতা পারভীন জাহান কল্পনা, অধ্যাপক ড. এম বদরুজ্জামান ভূঁইয়া, ব্যারিস্টার জাকির আহম্মদ, এমএ করিম, লায়ন গনি মিয়া বাবুল, সাংবাদিক মানিক লাল ঘোষ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে দোয়া ও আলোচনা সভার আয়োজন করে আওয়ামী মৎস্যজীবী লীগ। এতে ভার্চুয়ালি প্রধান অতিথির বক্তব্য দেন, আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ড. আবদুস সোবহান গোলাপ।

মৎস্যজীবী লীগের সভাপতি সায়ীদুর রহমানের সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক লায়ন শেখ আজগর নস্করের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য দেন সাইফুল আলম মানিক, মুহাম্মদ আলম, এসএম আজিজুল হক হীরা, মো. গিয়াস খান, মোহাম্মদ ইউনুছ, রফিকুল ইসলাম খাঁ, ফিরোজ মাহমুদ তালুকদার, কাজী মো. শফিউল আলম শফিক প্রমুখ।

শিল্পকর্ম প্রদর্শনী : জাতীয় জাদুঘরের নলিনীকান্ত ভট্টশালী গ্যালারিতে হাসুমনির পাঠশালা আয়োজিত ‘শেখ হাসিনা ও স্বপ্ন, সংগ্রাম এবং সাধনা’ শীর্ষক শিল্পকর্ম প্রদর্শনী এবং গোলটেবিল আলোচনা হয়।

অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী কেএম খালিদ। প্রধান আলোচক ছিলেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মাহবুবউল আলম হানিফ।

হাসুমণির পাঠশালার সভাপতি মারুফা আক্তার পপির সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য দেন, শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী, আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন, সংস্কৃতি বিষয়ক সম্পাদক অসীম কুমার উকিল, পানি সম্পদ মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব কবির বিন আনোয়ার প্রমুখ।

দুস্থ মহিলাদের মাঝে সেলাই মেশিন বিতরণ : দিনটি উপলক্ষে ধানমণ্ডির প্রিয়াংকা কমিউনিটি সেন্টারে মহিলা আওয়ামী লীগ দুস্থ মহিলাদের মাঝে সেলাই মেশিন বিতরণ করে।

এ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য দেন আওয়ামী লীগ যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি।

সংগঠনটির সভাপতি সাফিয়া খাতুনের সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক মাহমুদা কৃকের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন আওয়ামী লীগের মহিলা বিষয়ক সম্পাদক মেহের আফরোজ চুমকি।

দুস্থদের রিকশা উপহার : প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিনে রাজধানী উত্তরার ১৪টি ওয়ার্ডের প্রতিটিতে একজন করে গরিব-দুস্থের হাতে রিকশা উপহার দেন আওয়ামী লীগের সাবেক যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আলহাজ হাবিব হাসান।

উত্তরা ১৪নং সেক্টরের খেলার মাঠে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রীর সাবেক তথ্য উপদেষ্টা ইকবাল সোবহান চৌধুরীর উপস্থিতিতে কেক কাটা হয়।

রিকশা বিতরণ কার্যক্রমের প্রশংসা করে ইকবাল সোবহান চৌধুরী বলেন, এমন একটি উদ্যোগকে আমি অবশ্যই সাধুবাদ জানাই।

প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিনে অন্তত ১৪ জন মানুষের আয়-রোজগারের ব্যবস্থা করেছেন হাবিব হাসান।

বিভিন্ন মসজিদে দোয়া : বাদ জোহর বায়তুল মোকাররম ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগ দোয়া মাহফিলের আয়োজন করে। এতে প্রধান অতিথির বক্তব্য দেন আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য কৃষিমন্ত্রী আবদুর রাজ্জাক।

ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের (ডিএসসিসি) মেয়র ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন।

মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক মো. হুমায়ুন কবিরের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে ঢাকা-৭ আসনের সংসদ সদস্য হাজী সেলিম, চাঁদপুর-২ আসনের সংসদ সদস্য নুরুল আমিন রুহুল, ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা এবিএম আমিন উল্লাহ নূরী, ইসলামিক ফাউন্ডেশনের মহাপরিচালক আনিস মাহমুদ, ধর্ম মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব আলতাফ হোসেন চৌধুরী, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক কাজী মোরশেদ হোসেন কামাল প্রমুখ অংশ নেন।

দিনটি উপলক্ষে শেখ হাসিনার সুস্বাস্থ্য ও দীর্ঘায়ু কামনা করে রাজধানীর হাইকোর্ট মাজার-কমলাপুর ও আরামবাগ ঝিলপাড়সহ ২৫টি মসজিদে দোয়া-মিলাদ, কোরআনখানি এবং ছিন্নমূল পথবাসী-দরিদ্রদের মাঝে খাবার বিতরণ করা হয়।

মুক্তিযোদ্ধা প্রজন্ম সংসদ কেন্দ্রীয় কমান্ড কাউন্সিলের সভাপতি অধ্যক্ষ সুজাউল করিম চৌধুরী বাবুল এ আয়োজন করেন।

বাদ আসর রাজধানীর ওয়ারী থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি চৌধুরী আশিকুর রহমান লাভলু এবং সাধারণ সম্পাদক আবুল হোসেনের উদ্যোগে জুরিয়াটুলী জামে মসজিদ ও মাদ্রাসার এতিম ছাত্রদের মাঝে খাবার বিতরণ করা হয়।

এ সময় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দীর্ঘায়ু কামনা করে বিশেষ দোয়া অনুষ্ঠিত হয়। বিকাল ৪টায় জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে অসহায় শ্রমজীবী মানুষের মাঝে খাবার বিতরণ করেছেন সাবেক ছাত্রনেতা আকরাম হোসেন বাদল।

মুক্তিযোদ্ধাদের দোয়া : প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিন উপলক্ষে জাতীয় প্রেস ক্লাবে মুক্তিযোদ্ধা সংসদ কেন্দ্রীয় কমান্ড কাউন্সিল নির্বাচন প্রস্তুতি কমিটি কোরআনখানি, মিলাদ মাহফিল ও আলোচনা সভার আয়োজন করে।

এতে প্রধান অতিথি ছিলেন দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির সভাপতি সাবেক প্রতিমন্ত্রী ক্যাপ্টেন (অব.) এবি তাজুল ইসলাম।

আয়োজক সংগঠনের সভাপতি আবদুল হাইয়ের সভাপতিত্বে বক্তব্য দেন- আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা খন্দকার গোলাম মওলা নকশেবন্দী, মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব সফিকুল বাহার মজুমদার টিপু, যুগ্ম মহাসচিব শরীফ উদ্দিন, সাংগঠনিক সম্পাদক আনোয়ার হোসেন পাহাড়ি বীর প্রতীক, কমান্ডার মোশাররফ হোসেন, আবুল বাশার, আমরা মুক্তিযোদ্ধা সন্তান সংগঠনের সভাপতি হুমায়ুন কবির, সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম নয়ন প্রমুখ।

এছাড়া সারা দেশের মুক্তিযোদ্ধা সংসদ ও সাবেক কমান্ডারা নানা কর্মসূচির মধ্য দিয়ে দিনটি পালন করেন।

বাকবিশিসের আলোচনা সভা : প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিন উপলক্ষে বাংলাদেশ কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি সংগঠনের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আলোচনা সভার আয়োজন করে। এতে সভাপতিত্ব করেন কেন্দ্রীয় সভাপতি অধ্যক্ষ আবদুর রশীদ।

বক্তব্য দেন- সংগঠনের নির্বাহী সভাপতি অধ্যাপক সিরাজুল হক আলো, সাধারণ সম্পাদক অধ্যক্ষ গোলাম ফারুক, কেন্দ্রীয় নেতা অধ্যক্ষ কাজী মিজানুল হক, অধ্যক্ষ সায়রা বেগম, অধ্যক্ষ সম্পা রহমান, উপাধ্যক্ষ বেদার উদ্দিন আহমেদ, অধ্যক্ষ আবুল কালাম আজাদ, অধ্যক্ষ রেজাউজ্জামান ভূঁইয়া, অধ্যক্ষ নজরুল ইসলাম, অধ্যাপক মো. সাইদুল হক তালুকদার, অধ্যাপক বাবুল মিয়া প্রমুখ।

তুরাগে খাবার বিতরণ ও বৃক্ষরোপণ : দিনটি উপলক্ষে রাজধানীর তুরাগ থানা ছাত্রলীগের উদ্যোগে ডিয়াবাড়ির উলুদাহা এলাকায় কয়েকশ’ অসহায় দুস্থের মাঝে রান্না করা খাবার, শাড়ি ও লুঙ্গি বিতরণ এবং আলোচনা ও দোয়া মাহফিলের আয়োজন করা হয়।

এছাড়াও প্রধানমন্ত্রীর ৭৪তম জন্মদিনে তুরাগ এলাকায় ৭৪টি গাছ রোপণ করা হয়। এ সময় উপস্থিত ছিলেন- ঢাকা মহানগর উত্তর ছাত্রলীগ সভাপতি ইব্রাহিম হোসেন, সাধারণ সম্পাদক সাইদুর রহমান রিদয়।

তুরাগ থানা ছাত্রলীগের সভাপতি শফিকুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন সাধারণ সম্পাদক আরিফ হাসান।

১৯৪৭ সালের ২৮ সেপ্টেম্বর গোপালগঞ্জের মধুমতি নদী বিধৌত টুঙ্গিপাড়ায় জন্মগ্রহণ করেন শেখ হাসিনা। তিনি স্বাধীন বাংলাদেশের স্থপতি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও বঙ্গমাতা বেগম শেখ ফজিলাতুননেছার জ্যেষ্ঠ কন্যা এবং বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সভাপতি।

প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিনে মেয়র আতিকের অঙ্গীকার : ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের (ডিএনসিসি) মেয়র মো. আতিকুল ইসলাম বলেছেন, অবৈধভাবে দখল করে রাখা পার্কগুলোতে আগামী মাসের তিন তারিখ থেকে উচ্ছেদ অভিযান শুরু হবে।

এসব পার্ক দখলমুক্ত করে জনগণের হাতে তুলে দেয়া হবে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭৪তম জন্মদিনে এটাই আমাদের অঙ্গীকার।

মেয়র সোমবার দুপুরে গুলশানে বিচারপতি সাহাবুদ্দীন আহমেদ পার্কে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭৪তম জন্মদিন উপলক্ষে ডিএনসিসি আয়োজিত দু’দিনের অনুষ্ঠান উদ্বোধনকালে সভাপতির বক্তব্যে এ কথা বলেন।

প্রধান অতিথি ছিলেন স্থানীয় সরকার বিভাগের দায়িত্বপ্রাপ্ত মন্ত্রী মো. তাজুল ইসলাম, বিশেষ অতিথি জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন, সংসদ সদস্য শফিউল ইসলাম মহিউদ্দিন, আসাদুজ্জামান নূর, একেএম রহমতুল্লাহ, সুবর্ণা মোস্তফা, নাহিদ ইজাহার খান, স্থানীয় সরকার বিভাগের সিনিয়র সচিব হেলালুদ্দিন আহমদ, প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ সহকারী বিপ্লব বড়ুয়া, সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব নাসির উদ্দিন ইউসুফ বাচ্চু, তুরস্কের রাষ্ট্রদূত মোস্তফা ওসমান তুরান, ডিএনসিসির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মো. সেলিম রেজা প্রমুখ।

মেয়র আতিকুল ইসলাম বলেন, যারা রাস্তা, ফুটপাত দখল করে আছেন, তারা এ অবৈধ মনোভাব ছেড়ে দিন। ফুটপাতে রড সিমেন্ট রেখে অট্টালিকা করছেন, বাড়ি করছেন।

একবারও খেয়াল করলেন না, রাস্তায়, ফুটপাতে নির্মাণসামগ্রী রেখে দেয়ায় জনগণের অসুবিধা হচ্ছে। তিনি বলেন, বাঙালি জাতির মহামানব বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সুযোগ্য কন্যা শেখ হাসিনা।

বঙ্গবন্ধু উপহার দিয়েছেন স্বাধীন সার্বভৌম একটি দেশ, একটি জাতি। বাংলাদেশকে সোনার বাংলায় রূপান্তরের স্বপ্ন দেখেছিলেন তিনি। বঙ্গবন্ধু জন্ম নিয়েছিলেন বলেই বাংলাদেশ রাষ্ট্রের জন্ম হয়েছে।

একইভাবে বলা যায়, শেখ হাসিনার জন্ম হয়েছে বলেই বাংলাদেশ বিশ্বে উন্নয়নের রোল মডেল হিসেবে পরিচিতি পেয়েছে। ডিএনসিসি মেয়র বলেন, প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিন উপলক্ষে ডিএনসিসি যে কর্মসূচি হাতে নিয়েছে এতে কোনো আড়ম্বর নেই, কেক কাটা নেই, বরং সাদামাটা, অনাড়ম্বর অথচ তাৎপর্যময় এ কর্মসূচি। ডিএনসিসির ৫৪টি ওয়ার্ডেও অনুরূপ কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়েছে।

ডিএনসিসি কর্তৃক চালু করা দুটি ভ্রাম্যমাণ লাইব্রেরি ‘পরম্পরা’ সম্পর্কে আতিকুল ইসলাম বলেন, বাঙালি জাতি ও বাংলাদেশ রাষ্ট্রের জন্ম ও বিকাশের ইতিহাস বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও বঙ্গবন্ধু-তনয়া শেখ হাসিনার ইতিহাস। বঙ্গবন্ধুর হাত ধরে এ জাতি-রাষ্ট্রের জন্ম।

তার স্বপ্ন ছিল সোনার বাংলা গড়ার। শেখ হাসিনার হাতে এর উন্নয়ন ও বিকাশ। সোনার বাংলা অর্জনে আমরা অনেক কিছুতেই সফল। বঙ্গবন্ধু থেকে শেখ হাসিনা, এ পরম্পরাই বাঙালি জাতির পরম্পরা।

মুক্তিযুদ্ধ থেকে উন্নয়নের পরম্পরা। আমাদের নতুন প্রজন্মকে এ পরম্পরা জানতে হবে। উদ্বোধন অনুষ্ঠান শেষে অতিথিরা দুটি ভ্রাম্যমাণ লাইব্রেরি পরম্পরা উদ্বোধন করেন এবং শিশু-কিশোরদের চিত্রাঙ্কন দেখেন।

পরে শান্তির প্রতীক কবুতর অবমুক্ত করা হয়। সবশেষে কবিতা আবৃত্তি ও গান পরিবেশন করা হয়। এতে অংশ নেন আসাদুজ্জামান নূর, আহকাম উল্লাহ, রেজওয়ানা চৌধুরী বন্যা প্রমুখ।

৭৪তম জন্মদিন পালিত

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সুস্বাস্থ্য ও দীর্ঘায়ু কামনা

 যুগান্তর রিপোর্ট 
২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ
প্রধানমন্ত্রী
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জন্মদিন উপলক্ষে সোমবার আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে দোয়া মাহফিলে বক্তৃতা করছেন দলের সাধারণ সম্পাদক সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের -যুগান্তর

নানা কর্মসূচির মধ্য দিয়ে সোমবার আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭৪তম জন্মদিন পালিত হয়েছে। করোনাভাইরাসের কারণে দিনটিতে বড় কোনো আনুষ্ঠানিকতা ছিল না।

তবে বঙ্গবন্ধুকন্যার জন্য মসজিদে দোয়া, মন্দির, গির্জা ও প্যাগোডায় বিশেষ প্রার্থনা হয়েছে। এছাড়া স্বাস্থ্যবিধি মেনে দুস্থ-গরিবদের মাঝে খাবার-ভ্যান-রিকশা বিতরণ, আলোচনা সভাসহ নানা কর্মসূচির আয়োজন করে আওয়ামী লীগসহ বিভিন্ন সংগঠন।

বিভিন্ন সামাজিক ও পেশাজীবী সংগঠনও দিনটি উপলক্ষে নানা অনুষ্ঠানের আয়োজন করে। এসব কর্মসূচিতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সুস্বাস্থ্য ও দীর্ঘায়ু কামনা করা হয়।

বিকালে বঙ্গবন্ধু এভিনিউর দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে দোয়া ও মিলাদ মাহফিলের আয়োজন করে আওয়ামী লীগ। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন দলটির সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

উপস্থিত ছিলেন- প্রেসিডিয়াম সদস্য মতিয়া চৌধুরী, ড. আবদুর রাজ্জাক, আবদুল মতিন খসরু, শাজাহান খান, জাহাঙ্গীর কবির নানক ও আবদুর রহমান, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুবউল আলম হানিফ ও ড. হাছান মাহমুদ, সাংগঠনিক সম্পাদক- আহমেদ হোসেন, বিএম মোজাম্মেল, এসএম কামাল হোসেন ও মির্জা আজম, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক আবদুস সোবহান গোলাপ, আইন সম্পাদক নজিবুল্লাহ হীরু, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি সম্পাদক আবদুস সবুর, দফতর সম্পাদক বিপ্লব বড়ুয়া, উপদতর সম্পাদক সায়েম খান, কেন্দ্রীয় সদস্য ইকবাল হোসেন অপু, সাহাবউদ্দিন ফরাজী প্রমুখ।

বায়তুল মোকাররমে দোয়া : প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিন উপলক্ষে বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদে দুপুরে ইসলামিক ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে কোরআনখানি, দোয়া ও মোনাজাত অনুষ্ঠিত হয়।

মিলাদ ও মোনাজাত পরিচালনা করেন বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদের সিনিয়র পেশ ইমাম মুফতি মাওলানা মিজানুর রহমান। মোনাজাতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সুস্বাস্থ্য ও দীর্ঘায়ু কামনা করা হয়।

মিলাদে ইসলামিক ফাউন্ডেশনের মহাপরিচালক আনিস মাহমুদ, কর্মকর্তা-কর্মচারী এবং মুসল্লিরা অংশ নেন।

এছাড়া বাদ জোহর ইসলামিক ফাউন্ডেশনের সব বিভাগীয়, জেলা ও উপজেলা কার্যালয়ের কেন্দ্রীয় মসজিদগুলোতেও প্রধানমন্ত্রীর সুস্বাস্থ্য ও দীর্ঘায়ু কামনা করে দোয়া মোনাজাত ও কোরআন খতম করা হয়। 

এদিন সকাল ৯টায় আন্তর্জাতিক বৌদ্ধ বিহার (মেরুল বাড্ডা), ১০টায় খ্রিস্টান অ্যাসোসিয়েশন বাংলাদেশ (সিএবি) মিরপুর ব্যাপ্টিস চার্চ (২৯ সেনপাড়া, পর্বতা, মিরপুর-১০), সকাল ৬টায় তেজগাঁও জকমালা রানীর গির্জা এবং বেলা ১১টায় ঢাকেশ্বরী মন্দিরে বিশেষ প্রার্থনা অনুষ্ঠিত হয়।

দৃষ্টি ও বাকপ্রতিবন্ধীদের উপহার যুবলীগের : দুপুরে ২৩ বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দীর্ঘায়ু ও সুস্বাস্থ্য কামনায় মিলাদ ও দোয়া মাহফিলের আয়োজন করে যুবলীগ।

এসময় দৃষ্টি ও বাকপ্রতিবন্ধীদের খাবার ও বস্ত্র উপহার দেয়া হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে ভার্চুয়ালি বক্তব্য দেন যুবলীগ চেয়ারম্যান শেখ ফজলে শামস পরশ।

বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন সাধারণ সম্পাদক মো. মাইনুল হোসেন খান নিখিল। অনুষ্ঠানে প্রায় ৩ শতাধিক দৃষ্টি ও বাকপ্রতিবন্ধী অংশ নেয়। পরে রান্না করা খাবার, বস্ত্র (শাড়ি, লুঙ্গি) বিতরণ করেন যুবলীগ সাধারণ সম্পাদক। 

স্বেচ্ছাসেবক লীগের দোয়া : সকালে কেন্দ্রীয় কর্যালয়ে প্রধানমন্ত্রীর সুস্বাস্থ্য ও দীর্ঘায়ু কামনা করে মিলাদ ও দোয়ার আয়োজন করে স্বেচ্ছাসেবক লীগ।

এতে সংগঠনের সভাপতি নির্মল রঞ্জন গুহ, সাধারণ আফজালুর রহমান বাবু, কেন্দ্রীয় নেতা গাজী মেজবাউল হোসেন সাচ্চু, ম. আবদুর রাজ্জাক, মজিবুর রহমান স্বপন, দেবাশীষ বিশ্বাস, আবু তাহের, আবদুল আলিম বেপারী, মোবাশ্বের চৌধুরী, একেএম আজিম, খায়রুল হাসান জুয়েল, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ স্বেচ্ছাসেবক লীগ সভাপতি কামরুল হাসান রিপন, উত্তরের সভাপতি ইসহাক মিয়া প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

আলোচনা সভা : জাতীয় প্রেস ক্লাবের মাওলানা আকরাম খাঁ হলে আলোচনা সভার আয়োজন করে বঙ্গবন্ধু দুস্থ কল্যাণ সংস্থা। এতে প্রধান অতিথির বক্তব্য দেন মুক্তিযুদ্ধ বিষয়কমন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক।

সংগঠনের সভাপতি মাহবুব হোসেনের সভাপতিত্বে সভায় আওয়ামী লীগ নেতা পারভীন জাহান কল্পনা, অধ্যাপক ড. এম বদরুজ্জামান ভূঁইয়া, ব্যারিস্টার জাকির আহম্মদ, এমএ করিম, লায়ন গনি মিয়া বাবুল, সাংবাদিক মানিক লাল ঘোষ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে দোয়া ও আলোচনা সভার আয়োজন করে আওয়ামী মৎস্যজীবী লীগ। এতে ভার্চুয়ালি প্রধান অতিথির বক্তব্য দেন, আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ড. আবদুস সোবহান গোলাপ।

মৎস্যজীবী লীগের সভাপতি সায়ীদুর রহমানের সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক লায়ন শেখ আজগর নস্করের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য দেন সাইফুল আলম মানিক, মুহাম্মদ আলম, এসএম আজিজুল হক হীরা, মো. গিয়াস খান, মোহাম্মদ ইউনুছ, রফিকুল ইসলাম খাঁ, ফিরোজ মাহমুদ তালুকদার, কাজী মো. শফিউল আলম শফিক প্রমুখ।

শিল্পকর্ম প্রদর্শনী : জাতীয় জাদুঘরের নলিনীকান্ত ভট্টশালী গ্যালারিতে হাসুমনির পাঠশালা আয়োজিত ‘শেখ হাসিনা ও স্বপ্ন, সংগ্রাম এবং সাধনা’ শীর্ষক শিল্পকর্ম প্রদর্শনী এবং গোলটেবিল আলোচনা হয়।

অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী কেএম খালিদ। প্রধান আলোচক ছিলেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মাহবুবউল আলম হানিফ।

হাসুমণির পাঠশালার সভাপতি মারুফা আক্তার পপির সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য দেন, শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী, আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন, সংস্কৃতি বিষয়ক সম্পাদক অসীম কুমার উকিল, পানি সম্পদ মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব কবির বিন আনোয়ার প্রমুখ।

দুস্থ মহিলাদের মাঝে সেলাই মেশিন বিতরণ : দিনটি উপলক্ষে ধানমণ্ডির প্রিয়াংকা কমিউনিটি সেন্টারে মহিলা আওয়ামী লীগ দুস্থ মহিলাদের মাঝে সেলাই মেশিন বিতরণ করে।

এ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য দেন আওয়ামী লীগ যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি।

সংগঠনটির সভাপতি সাফিয়া খাতুনের সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক মাহমুদা কৃকের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন আওয়ামী লীগের মহিলা বিষয়ক সম্পাদক মেহের আফরোজ চুমকি। 

দুস্থদের রিকশা উপহার : প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিনে রাজধানী উত্তরার ১৪টি ওয়ার্ডের প্রতিটিতে একজন করে গরিব-দুস্থের হাতে রিকশা উপহার দেন আওয়ামী লীগের সাবেক যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আলহাজ হাবিব হাসান।

উত্তরা ১৪নং সেক্টরের খেলার মাঠে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রীর সাবেক তথ্য উপদেষ্টা ইকবাল সোবহান চৌধুরীর উপস্থিতিতে কেক কাটা হয়।

রিকশা বিতরণ কার্যক্রমের প্রশংসা করে ইকবাল সোবহান চৌধুরী বলেন, এমন একটি উদ্যোগকে আমি অবশ্যই সাধুবাদ জানাই।

প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিনে অন্তত ১৪ জন মানুষের আয়-রোজগারের ব্যবস্থা করেছেন হাবিব হাসান। 

বিভিন্ন মসজিদে দোয়া : বাদ জোহর বায়তুল মোকাররম ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগ দোয়া মাহফিলের আয়োজন করে। এতে প্রধান অতিথির বক্তব্য দেন আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য কৃষিমন্ত্রী আবদুর রাজ্জাক।

ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের (ডিএসসিসি) মেয়র ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন।

মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক মো. হুমায়ুন কবিরের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে ঢাকা-৭ আসনের সংসদ সদস্য হাজী সেলিম, চাঁদপুর-২ আসনের সংসদ সদস্য নুরুল আমিন রুহুল, ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা এবিএম আমিন উল্লাহ নূরী, ইসলামিক ফাউন্ডেশনের মহাপরিচালক আনিস মাহমুদ, ধর্ম মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব আলতাফ হোসেন চৌধুরী, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক কাজী মোরশেদ হোসেন কামাল প্রমুখ অংশ নেন।

দিনটি উপলক্ষে শেখ হাসিনার সুস্বাস্থ্য ও দীর্ঘায়ু কামনা করে রাজধানীর হাইকোর্ট মাজার-কমলাপুর ও আরামবাগ ঝিলপাড়সহ ২৫টি মসজিদে দোয়া-মিলাদ, কোরআনখানি এবং ছিন্নমূল পথবাসী-দরিদ্রদের মাঝে খাবার বিতরণ করা হয়।

মুক্তিযোদ্ধা প্রজন্ম সংসদ কেন্দ্রীয় কমান্ড কাউন্সিলের সভাপতি অধ্যক্ষ সুজাউল করিম চৌধুরী বাবুল এ আয়োজন করেন।

বাদ আসর রাজধানীর ওয়ারী থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি চৌধুরী আশিকুর রহমান লাভলু এবং সাধারণ সম্পাদক আবুল হোসেনের উদ্যোগে জুরিয়াটুলী জামে মসজিদ ও মাদ্রাসার এতিম ছাত্রদের মাঝে খাবার বিতরণ করা হয়।

এ সময় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দীর্ঘায়ু কামনা করে বিশেষ দোয়া অনুষ্ঠিত হয়। বিকাল ৪টায় জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে অসহায় শ্রমজীবী মানুষের মাঝে খাবার বিতরণ করেছেন সাবেক ছাত্রনেতা আকরাম হোসেন বাদল।

মুক্তিযোদ্ধাদের দোয়া : প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিন উপলক্ষে জাতীয় প্রেস ক্লাবে মুক্তিযোদ্ধা সংসদ কেন্দ্রীয় কমান্ড কাউন্সিল নির্বাচন প্রস্তুতি কমিটি কোরআনখানি, মিলাদ মাহফিল ও আলোচনা সভার আয়োজন করে।

এতে প্রধান অতিথি ছিলেন দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির সভাপতি সাবেক প্রতিমন্ত্রী ক্যাপ্টেন (অব.) এবি তাজুল ইসলাম।

আয়োজক সংগঠনের সভাপতি আবদুল হাইয়ের সভাপতিত্বে বক্তব্য দেন- আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা খন্দকার গোলাম মওলা নকশেবন্দী, মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব সফিকুল বাহার মজুমদার টিপু, যুগ্ম মহাসচিব শরীফ উদ্দিন, সাংগঠনিক সম্পাদক আনোয়ার হোসেন পাহাড়ি বীর প্রতীক, কমান্ডার মোশাররফ হোসেন, আবুল বাশার, আমরা মুক্তিযোদ্ধা সন্তান সংগঠনের সভাপতি হুমায়ুন কবির, সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম নয়ন প্রমুখ।

এছাড়া সারা দেশের মুক্তিযোদ্ধা সংসদ ও সাবেক কমান্ডারা নানা কর্মসূচির মধ্য দিয়ে দিনটি পালন করেন। 

বাকবিশিসের আলোচনা সভা : প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিন উপলক্ষে বাংলাদেশ কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি সংগঠনের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আলোচনা সভার আয়োজন করে। এতে সভাপতিত্ব করেন কেন্দ্রীয় সভাপতি অধ্যক্ষ আবদুর রশীদ।

বক্তব্য দেন- সংগঠনের নির্বাহী সভাপতি অধ্যাপক সিরাজুল হক আলো, সাধারণ সম্পাদক অধ্যক্ষ গোলাম ফারুক, কেন্দ্রীয় নেতা অধ্যক্ষ কাজী মিজানুল হক, অধ্যক্ষ সায়রা বেগম, অধ্যক্ষ সম্পা রহমান, উপাধ্যক্ষ বেদার উদ্দিন আহমেদ, অধ্যক্ষ আবুল কালাম আজাদ, অধ্যক্ষ রেজাউজ্জামান ভূঁইয়া, অধ্যক্ষ নজরুল ইসলাম, অধ্যাপক মো. সাইদুল হক তালুকদার, অধ্যাপক বাবুল মিয়া প্রমুখ।

তুরাগে খাবার বিতরণ ও বৃক্ষরোপণ : দিনটি উপলক্ষে রাজধানীর তুরাগ থানা ছাত্রলীগের উদ্যোগে ডিয়াবাড়ির উলুদাহা এলাকায় কয়েকশ’ অসহায় দুস্থের মাঝে রান্না করা খাবার, শাড়ি ও লুঙ্গি বিতরণ এবং আলোচনা ও দোয়া মাহফিলের আয়োজন করা হয়।

এছাড়াও প্রধানমন্ত্রীর ৭৪তম জন্মদিনে তুরাগ এলাকায় ৭৪টি গাছ রোপণ করা হয়। এ সময় উপস্থিত ছিলেন- ঢাকা মহানগর উত্তর ছাত্রলীগ সভাপতি ইব্রাহিম হোসেন, সাধারণ সম্পাদক সাইদুর রহমান রিদয়।

তুরাগ থানা ছাত্রলীগের সভাপতি শফিকুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন সাধারণ সম্পাদক আরিফ হাসান। 

১৯৪৭ সালের ২৮ সেপ্টেম্বর গোপালগঞ্জের মধুমতি নদী বিধৌত টুঙ্গিপাড়ায় জন্মগ্রহণ করেন শেখ হাসিনা। তিনি স্বাধীন বাংলাদেশের স্থপতি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও বঙ্গমাতা বেগম শেখ ফজিলাতুননেছার জ্যেষ্ঠ কন্যা এবং বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সভাপতি।

প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিনে মেয়র আতিকের অঙ্গীকার : ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের (ডিএনসিসি) মেয়র মো. আতিকুল ইসলাম বলেছেন, অবৈধভাবে দখল করে রাখা পার্কগুলোতে আগামী মাসের তিন তারিখ থেকে উচ্ছেদ অভিযান শুরু হবে।

এসব পার্ক দখলমুক্ত করে জনগণের হাতে তুলে দেয়া হবে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭৪তম জন্মদিনে এটাই আমাদের অঙ্গীকার।

মেয়র সোমবার দুপুরে গুলশানে বিচারপতি সাহাবুদ্দীন আহমেদ পার্কে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭৪তম জন্মদিন উপলক্ষে ডিএনসিসি আয়োজিত দু’দিনের অনুষ্ঠান উদ্বোধনকালে সভাপতির বক্তব্যে এ কথা বলেন।

প্রধান অতিথি ছিলেন স্থানীয় সরকার বিভাগের দায়িত্বপ্রাপ্ত মন্ত্রী মো. তাজুল ইসলাম, বিশেষ অতিথি জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন, সংসদ সদস্য শফিউল ইসলাম মহিউদ্দিন, আসাদুজ্জামান নূর, একেএম রহমতুল্লাহ, সুবর্ণা মোস্তফা, নাহিদ ইজাহার খান, স্থানীয় সরকার বিভাগের সিনিয়র সচিব হেলালুদ্দিন আহমদ, প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ সহকারী বিপ্লব বড়ুয়া, সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব নাসির উদ্দিন ইউসুফ বাচ্চু, তুরস্কের রাষ্ট্রদূত মোস্তফা ওসমান তুরান, ডিএনসিসির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মো. সেলিম রেজা প্রমুখ। 

মেয়র আতিকুল ইসলাম বলেন, যারা রাস্তা, ফুটপাত দখল করে আছেন, তারা এ অবৈধ মনোভাব ছেড়ে দিন। ফুটপাতে রড সিমেন্ট রেখে অট্টালিকা করছেন, বাড়ি করছেন।

একবারও খেয়াল করলেন না, রাস্তায়, ফুটপাতে নির্মাণসামগ্রী রেখে দেয়ায় জনগণের অসুবিধা হচ্ছে। তিনি বলেন, বাঙালি জাতির মহামানব বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সুযোগ্য কন্যা শেখ হাসিনা।

বঙ্গবন্ধু উপহার দিয়েছেন স্বাধীন সার্বভৌম একটি দেশ, একটি জাতি। বাংলাদেশকে সোনার বাংলায় রূপান্তরের স্বপ্ন দেখেছিলেন তিনি। বঙ্গবন্ধু জন্ম নিয়েছিলেন বলেই বাংলাদেশ রাষ্ট্রের জন্ম হয়েছে।

একইভাবে বলা যায়, শেখ হাসিনার জন্ম হয়েছে বলেই বাংলাদেশ বিশ্বে উন্নয়নের রোল মডেল হিসেবে পরিচিতি পেয়েছে। ডিএনসিসি মেয়র বলেন, প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিন উপলক্ষে ডিএনসিসি যে কর্মসূচি হাতে নিয়েছে এতে কোনো আড়ম্বর নেই, কেক কাটা নেই, বরং সাদামাটা, অনাড়ম্বর অথচ তাৎপর্যময় এ কর্মসূচি। ডিএনসিসির ৫৪টি ওয়ার্ডেও অনুরূপ কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়েছে।

ডিএনসিসি কর্তৃক চালু করা দুটি ভ্রাম্যমাণ লাইব্রেরি ‘পরম্পরা’ সম্পর্কে আতিকুল ইসলাম বলেন, বাঙালি জাতি ও বাংলাদেশ রাষ্ট্রের জন্ম ও বিকাশের ইতিহাস বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও বঙ্গবন্ধু-তনয়া শেখ হাসিনার ইতিহাস। বঙ্গবন্ধুর হাত ধরে এ জাতি-রাষ্ট্রের জন্ম।

তার স্বপ্ন ছিল সোনার বাংলা গড়ার। শেখ হাসিনার হাতে এর উন্নয়ন ও বিকাশ। সোনার বাংলা অর্জনে আমরা অনেক কিছুতেই সফল। বঙ্গবন্ধু থেকে শেখ হাসিনা, এ পরম্পরাই বাঙালি জাতির পরম্পরা।

মুক্তিযুদ্ধ থেকে উন্নয়নের পরম্পরা। আমাদের নতুন প্রজন্মকে এ পরম্পরা জানতে হবে। উদ্বোধন অনুষ্ঠান শেষে অতিথিরা দুটি ভ্রাম্যমাণ লাইব্রেরি পরম্পরা উদ্বোধন করেন এবং শিশু-কিশোরদের চিত্রাঙ্কন দেখেন।

পরে শান্তির প্রতীক কবুতর অবমুক্ত করা হয়। সবশেষে কবিতা আবৃত্তি ও গান পরিবেশন করা হয়। এতে অংশ নেন আসাদুজ্জামান নূর, আহকাম উল্লাহ, রেজওয়ানা চৌধুরী বন্যা প্রমুখ।