আর্থিক খাতে বিশাল শূন্যতা সৃষ্টি হলো
jugantor
আর্থিক খাতে বিশাল শূন্যতা সৃষ্টি হলো

  এবি মির্জ্জা আজিজুল ইসলাম  

২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

খোন্দকার ইব্রাহিম খালেদের মৃত্যুতে আর্থিক খাতে বিশাল শূন্যতা সৃষ্টি হলো। তিনি ছিলেন ব্যাংক ও আর্থিক খাতের একজন দক্ষ, যোগ্য ও সাহসী ব্যক্তিত্ব। অর্থনীতির বিভিন্ন সূচক নিয়ে তার বিশ্লেষণ ছিল জ্ঞানগর্ভ ও বাস্তবমুখী। তিনি জ্ঞানী ও গভীর বিশ্লেষক ছিলেন।

খোন্দকার ইব্রাহিম খালেদের সঙ্গে বিভিন্ন সময় দেখা হতো। অর্থনীতিবিষয়ক নানা সভা-সেমিনারেও আমরা একসঙ্গে অতিথি ছিলাম। তবে প্রথম দেখা বাংলাদেশ ব্যাংকের ডেপুটি গভর্নর থাকার সময়। তখন আমি জাতিসংঘে কর্মরত। নব্বইয়ের দশকের ঘটনা।

এরপর ২০০৭ ও ০৮ সালে পুঁজিবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা-সিকিউরিটিস এক্সচেঞ্জ কমিশনের (এসইসি) চেয়ারম্যান ছিলাম, তখনও খোন্দকার ইব্রাহিম খালেদের সঙ্গে বিভিন্ন ইস্যুতে কাজ করার সুযোগ হয়েছে। তবে ২০০৯ সালে সাবেক তত্ত্বাবধায়ক সরকারের উপদেষ্টা থাকার সময় কিছু দিন যোগাযোগ বন্ধ ছিল।

২০১০ সালে পুঁজিবাজার ধসের ঘটনায় যে তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়, সে কমিটিরও প্রধান ছিলেন খোন্দকার ইব্রাহিম খালেদ। যদিও শেষ পর্যন্ত তার সেই সুপারিশ কার্যকর করা হয়নি। সব মিলিয়ে তার হারিয়ে যাওয়ায় অর্থনীতিতে অপূরণীয় ক্ষতি হয়ে গেল। লেখক : সাবেক তত্ত্বাবধায়ক সরকারের উপদেষ্টা।

আর্থিক খাতে বিশাল শূন্যতা সৃষ্টি হলো

 এবি মির্জ্জা আজিজুল ইসলাম 
২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

খোন্দকার ইব্রাহিম খালেদের মৃত্যুতে আর্থিক খাতে বিশাল শূন্যতা সৃষ্টি হলো। তিনি ছিলেন ব্যাংক ও আর্থিক খাতের একজন দক্ষ, যোগ্য ও সাহসী ব্যক্তিত্ব। অর্থনীতির বিভিন্ন সূচক নিয়ে তার বিশ্লেষণ ছিল জ্ঞানগর্ভ ও বাস্তবমুখী। তিনি জ্ঞানী ও গভীর বিশ্লেষক ছিলেন।

খোন্দকার ইব্রাহিম খালেদের সঙ্গে বিভিন্ন সময় দেখা হতো। অর্থনীতিবিষয়ক নানা সভা-সেমিনারেও আমরা একসঙ্গে অতিথি ছিলাম। তবে প্রথম দেখা বাংলাদেশ ব্যাংকের ডেপুটি গভর্নর থাকার সময়। তখন আমি জাতিসংঘে কর্মরত। নব্বইয়ের দশকের ঘটনা।

এরপর ২০০৭ ও ০৮ সালে পুঁজিবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা-সিকিউরিটিস এক্সচেঞ্জ কমিশনের (এসইসি) চেয়ারম্যান ছিলাম, তখনও খোন্দকার ইব্রাহিম খালেদের সঙ্গে বিভিন্ন ইস্যুতে কাজ করার সুযোগ হয়েছে। তবে ২০০৯ সালে সাবেক তত্ত্বাবধায়ক সরকারের উপদেষ্টা থাকার সময় কিছু দিন যোগাযোগ বন্ধ ছিল।

২০১০ সালে পুঁজিবাজার ধসের ঘটনায় যে তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়, সে কমিটিরও প্রধান ছিলেন খোন্দকার ইব্রাহিম খালেদ। যদিও শেষ পর্যন্ত তার সেই সুপারিশ কার্যকর করা হয়নি। সব মিলিয়ে তার হারিয়ে যাওয়ায় অর্থনীতিতে অপূরণীয় ক্ষতি হয়ে গেল। লেখক : সাবেক তত্ত্বাবধায়ক সরকারের উপদেষ্টা।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন