করোনা টিকার দ্বিতীয় ডোজ শুরু
jugantor
করোনা টিকার দ্বিতীয় ডোজ শুরু

  যুগান্তর প্রতিবেদন  

০৯ এপ্রিল ২০২১, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

ভয়াবহ ঊর্ধ্বগতির মধ্যেই শুরু হয়েছে করোনা টিকার দ্বিতীয় ডোজ। বৃহস্পতিবার রাজধানীসহ সারাদেশে বিভিন্ন কেন্দ্রে দ্বিতীয় ডোজের টিকাদান শুরু হয়। তবে রাজধানীসহ দেশের অনেক টিকা কেন্দ্রেই মানুষের মধ্যে সামাজিক দূরত্ব মানার প্রবণতা দেখা যায়নি। যারা ৭ ও ৮ ফেব্রুয়ারি বা তার আগে টিকা নিয়েছেন, শুধুই তারাই দ্বিতীয় ডোজ দেওয়ার সুযোগ পান। দুদিন আগেই তাদের মোবাইলে এসএমএস যায়। যারা এসএমএস পাননি তাদের অনেকে প্রথম ডোজের টিকা কার্ড নিয়ে টিকা নেন।

প্রথমদিনে দ্বিতীয় ডোজ টিকা নিয়েছেন ৩১ হাজার ১৬০ জন। এর মধ্যে প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন, নৌ-পরিবহণ প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী, পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তনমন্ত্রী মো. শাহাব উদ্দিন, বিমান পরিবহণ ও পর্যটন প্রতিমন্ত্রী মো. মাহবুব আলী, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক ও ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি রাশেদ খান মেনন।

দ্বিতীয় ডোজের টিকা নিতে রাজধানীতে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় (বিএসএমএমইউ’তে) মানুষের উপচে পড়া ভিড় লক্ষ্য করা যায়। এ হাসপাতালে প্রায় এক হাজার ৫০০ শত মানুষ টিকা নেন। সকাল ৯টা থেকে মোট ৮টি বুথে টিকা দেওয়া হয়। এর মধ্যে কেবল একটি বুথে প্রথম ডোজের টিকা দেওয়া হয়। তবে টিকা নিতে অনেকেই সামাজিক দূরত্ব মানতে দেখা যায়নি।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. এবিএম খুরশীদ আলম সাংবাদিকেদের জানান, যারা ২৭ ও ২৮ জানুয়ারি এবং ৭ ও ৮ ফেব্রুয়ারি প্রথম ডোজ টিকা নিয়েছেন তাদের কারো কাছে কোনো কারণে এসএমএস না গেলেও আগের নির্ধারিত কেন্দ্রে টিকা কার্ড নিয়ে গিয়ে টিকার দ্বিতীয় ডোজ দিতে পারবেন। তিনি জানান, একই সঙ্গে যথারীতি টিকার প্রথম ডোজও চলতে থাকবে। এদিকে অধিদপ্তরের পরিচালক (টিকাদান) ডা. শামসুল হক গণমাধ্যমকে বলেন, এ পর্যন্ত ৫৫ লাখ মানুষকে প্রথম ডোজের টিকা দেওয়া হয়েছে। দেশে মোট টিকা এসেছে এক কোটি দুই লাখ ডোজ। হাতে আছে ৪৭ লাখ ডোজ। আট লাখের ঘাটতি রয়েছে।

প্রধান বিচারপতিসহ ৫৬ জন বিচারপতি টিকার দ্বিতীয় ডোজ নিয়েছেন : প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনসহ আপিল ও হাইকোর্ট বিভাগের ৫৬ জন বিচারপতি করোনা টিকার দ্বিতীয় ডোজ নিয়েছেন। বৃহস্পতিবার সকাল ১১টায় রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালে প্রধান বিচারপতি সস্ত্রীক করোনার টিকা গ্রহণ করেন। বিষয়টি নিশ্চিত করেন সুপ্রিমকোর্টের স্পেশাল অফিসার মুহাম্মদ সাইফুর রহমান। এছাড়া আপিল বিভাগের ৫ জন বিচারপতি ও হাইকোর্ট বিভাগের ৫০ জন বিচারপতি এদিন সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে টিকার দ্বিতীয় ডোজ গ্রহণ করেন।

এছাড়া ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে টিকার দ্বিতীয় ডোজ নেন বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি রাশেদ খান মেনন। এ সময় তিনি বলেন, টিকা নিতে উৎসাহ বাড়াতে আরও বেশি প্রচার চালাতে হবে। জাতীয় পাটি-জেপির সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক শিক্ষামন্ত্রী শেখ শহীদুল ইসলামও টিকার দ্বিতীয় ডোজ নেন।

করোনা টিকার দ্বিতীয় ডোজ শুরু

 যুগান্তর প্রতিবেদন 
০৯ এপ্রিল ২০২১, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

ভয়াবহ ঊর্ধ্বগতির মধ্যেই শুরু হয়েছে করোনা টিকার দ্বিতীয় ডোজ। বৃহস্পতিবার রাজধানীসহ সারাদেশে বিভিন্ন কেন্দ্রে দ্বিতীয় ডোজের টিকাদান শুরু হয়। তবে রাজধানীসহ দেশের অনেক টিকা কেন্দ্রেই মানুষের মধ্যে সামাজিক দূরত্ব মানার প্রবণতা দেখা যায়নি। যারা ৭ ও ৮ ফেব্রুয়ারি বা তার আগে টিকা নিয়েছেন, শুধুই তারাই দ্বিতীয় ডোজ দেওয়ার সুযোগ পান। দুদিন আগেই তাদের মোবাইলে এসএমএস যায়। যারা এসএমএস পাননি তাদের অনেকে প্রথম ডোজের টিকা কার্ড নিয়ে টিকা নেন।

প্রথমদিনে দ্বিতীয় ডোজ টিকা নিয়েছেন ৩১ হাজার ১৬০ জন। এর মধ্যে প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন, নৌ-পরিবহণ প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী, পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তনমন্ত্রী মো. শাহাব উদ্দিন, বিমান পরিবহণ ও পর্যটন প্রতিমন্ত্রী মো. মাহবুব আলী, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক ও ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি রাশেদ খান মেনন।

দ্বিতীয় ডোজের টিকা নিতে রাজধানীতে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় (বিএসএমএমইউ’তে) মানুষের উপচে পড়া ভিড় লক্ষ্য করা যায়। এ হাসপাতালে প্রায় এক হাজার ৫০০ শত মানুষ টিকা নেন। সকাল ৯টা থেকে মোট ৮টি বুথে টিকা দেওয়া হয়। এর মধ্যে কেবল একটি বুথে প্রথম ডোজের টিকা দেওয়া হয়। তবে টিকা নিতে অনেকেই সামাজিক দূরত্ব মানতে দেখা যায়নি।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. এবিএম খুরশীদ আলম সাংবাদিকেদের জানান, যারা ২৭ ও ২৮ জানুয়ারি এবং ৭ ও ৮ ফেব্রুয়ারি প্রথম ডোজ টিকা নিয়েছেন তাদের কারো কাছে কোনো কারণে এসএমএস না গেলেও আগের নির্ধারিত কেন্দ্রে টিকা কার্ড নিয়ে গিয়ে টিকার দ্বিতীয় ডোজ দিতে পারবেন। তিনি জানান, একই সঙ্গে যথারীতি টিকার প্রথম ডোজও চলতে থাকবে। এদিকে অধিদপ্তরের পরিচালক (টিকাদান) ডা. শামসুল হক গণমাধ্যমকে বলেন, এ পর্যন্ত ৫৫ লাখ মানুষকে প্রথম ডোজের টিকা দেওয়া হয়েছে। দেশে মোট টিকা এসেছে এক কোটি দুই লাখ ডোজ। হাতে আছে ৪৭ লাখ ডোজ। আট লাখের ঘাটতি রয়েছে।

প্রধান বিচারপতিসহ ৫৬ জন বিচারপতি টিকার দ্বিতীয় ডোজ নিয়েছেন : প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনসহ আপিল ও হাইকোর্ট বিভাগের ৫৬ জন বিচারপতি করোনা টিকার দ্বিতীয় ডোজ নিয়েছেন। বৃহস্পতিবার সকাল ১১টায় রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালে প্রধান বিচারপতি সস্ত্রীক করোনার টিকা গ্রহণ করেন। বিষয়টি নিশ্চিত করেন সুপ্রিমকোর্টের স্পেশাল অফিসার মুহাম্মদ সাইফুর রহমান। এছাড়া আপিল বিভাগের ৫ জন বিচারপতি ও হাইকোর্ট বিভাগের ৫০ জন বিচারপতি এদিন সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে টিকার দ্বিতীয় ডোজ গ্রহণ করেন।

এছাড়া ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে টিকার দ্বিতীয় ডোজ নেন বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি রাশেদ খান মেনন। এ সময় তিনি বলেন, টিকা নিতে উৎসাহ বাড়াতে আরও বেশি প্রচার চালাতে হবে। জাতীয় পাটি-জেপির সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক শিক্ষামন্ত্রী শেখ শহীদুল ইসলামও টিকার দ্বিতীয় ডোজ নেন।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন