বারহাট্টায় কুপিয়ে সাবেক ইউপি সদস্য হত্যা
jugantor
বারহাট্টায় কুপিয়ে সাবেক ইউপি সদস্য হত্যা

  বারহাট্টা (নেত্রকোনা) প্রতিনিধি  

১৭ এপ্রিল ২০২১, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

নেত্রকোনার বারহাট্টায় জমির বিরোধে সাবেক ইউপি সদস্য ও ইউনিয়ন যুবলীগের সহসভাপতি রুবেল মিয়াকে (৪০) নৃশংসভাবে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে। উপজেলার আসমা ইউনিয়নের ছোটকৈলাটি গ্রামে বৃহস্পতিবার রাত ৮টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। তিনি মো. শামছুদ্দিনের ছেলে।

নিহতের বোন জোছনা (৩৫) জানান, রুবেলের সঙ্গে চাচাতো ভাই কাইয়ুম (৩৫), কাদির (৫০) ও শাহজাহানের (৬০) জমি নিয়ে দীর্ঘদিন বিরোধ চলছিল। তারা রুবেলের বিরুদ্ধে অনেক মামলা করেছেন। মামলার রায় রুবেলের পক্ষে এলেও তারা জমির দাবি ছাড়েননি। এলাকার মাতবর ও থানার পুলিশ বারবার মীমাংসার চেষ্টা করলেও লাভ হয়নি। তারা বিভিন্ন সময় রুবেলকে মারধর করে আবার তার বিরুদ্ধেই মামলা দিয়েছেন। ওই সন্ধ্যায় চাচাতো ভাইয়েরা রুবেলকে হত্যার হুমকি দেন। রাতে গ্রামের দোকানে চা খেয়ে ফেরার পথে তারা রুবেলকে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে জখম করেন। লোকজন স্থানীয় হাসপাতালে নিয়ে গেলে ডাক্তার তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

বারহাট্টা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মিজানুর রহমান জানান, জড়িতদের আটকের চেষ্টা চলছে।

বারহাট্টায় কুপিয়ে সাবেক ইউপি সদস্য হত্যা

 বারহাট্টা (নেত্রকোনা) প্রতিনিধি 
১৭ এপ্রিল ২০২১, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

নেত্রকোনার বারহাট্টায় জমির বিরোধে সাবেক ইউপি সদস্য ও ইউনিয়ন যুবলীগের সহসভাপতি রুবেল মিয়াকে (৪০) নৃশংসভাবে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে। উপজেলার আসমা ইউনিয়নের ছোটকৈলাটি গ্রামে বৃহস্পতিবার রাত ৮টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। তিনি মো. শামছুদ্দিনের ছেলে।

নিহতের বোন জোছনা (৩৫) জানান, রুবেলের সঙ্গে চাচাতো ভাই কাইয়ুম (৩৫), কাদির (৫০) ও শাহজাহানের (৬০) জমি নিয়ে দীর্ঘদিন বিরোধ চলছিল। তারা রুবেলের বিরুদ্ধে অনেক মামলা করেছেন। মামলার রায় রুবেলের পক্ষে এলেও তারা জমির দাবি ছাড়েননি। এলাকার মাতবর ও থানার পুলিশ বারবার মীমাংসার চেষ্টা করলেও লাভ হয়নি। তারা বিভিন্ন সময় রুবেলকে মারধর করে আবার তার বিরুদ্ধেই মামলা দিয়েছেন। ওই সন্ধ্যায় চাচাতো ভাইয়েরা রুবেলকে হত্যার হুমকি দেন। রাতে গ্রামের দোকানে চা খেয়ে ফেরার পথে তারা রুবেলকে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে জখম করেন। লোকজন স্থানীয় হাসপাতালে নিয়ে গেলে ডাক্তার তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

বারহাট্টা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মিজানুর রহমান জানান, জড়িতদের আটকের চেষ্টা চলছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন