আবারও প্রধানমন্ত্রী পদে লড়বেন মাহাথির

  যুগান্তর ডেস্ক ০৮ জানুয়ারি ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

মাহাতির মোহাম্মদ

মালয়েশিয়ার সাধারণ নির্বাচনে আবারও প্রধানমন্ত্রী পদে লড়বেন দেশটির ৯২ বছর বয়সী সাবেক প্রধানমন্ত্রী মাহাথির মোহাম্মদ। রোববার তাকে প্রার্থী হিসেবে ঘোষণা করেছে বিরোধী দলীয় জোট পাকাতান হারাপান। সবকিছু ঠিক থাকলে আগামী নির্বাচনে বর্তমান প্রধানমন্ত্রী নাজিব রাজাকের বিরুদ্ধে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন তিনি। খবর এএফপি ও রয়টার্সের।

খবরে বলা হয়, চলতি বছরের আগস্টে মালয়েশিয়ার ১৪তম সাধারণ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। বিরোধী দলের জনপ্রিয় নেতা আনওয়ার ইব্রাহিম বর্তমানে কারাগারে রয়েছেন। এ ছাড়া ইউএমএনওর নেতা ও বর্তমান প্রধানমন্ত্রী নাজিব রাজাক দুর্নীতির অভিযোগে বিতর্কিত। আর দল থেকে পদত্যাগ করা নিয়ে রাজাক সাবেক প্রধানমন্ত্রী মাহাথিরকে হুমকিও দিয়েছিলেন। এ কারণেই বিরোধীদলীয় জোট আসন্ন নির্বাচনে প্রধানমন্ত্রী পদে মাহাথিরকেই যোগ্য বিবেচনায় মনোনয়ন দিয়েছে। নির্বাচনে বিরোধী দল জিতলে মাহাথির হবেন বিশ্বের সবচেয়ে বেশি বয়সী প্রধানমন্ত্রী।

পাকাতান জোটের দফতর প্রধান দাতুক সাইফুদ্দিন আবদুল্লাহ বলেন, আসন্ন নির্বাচনে পাকাতান হারাপান জোটের প্রধানমন্ত্রী পদপ্রার্থী হিসেবে মাহাথির নির্বাচন করবেন। এছাড়া পিপলস জাস্টিস পার্টির প্রেসিডেন্ট আনওয়ার ইব্রাহিমের স্ত্রী ওয়ান আজিজাহ ওয়ান ইসমাইল উপপ্রধানমন্ত্রীর পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন।

এছাড়া জোট ক্ষমতায় এলে বর্তমান বিরোধী দল দ্য পিপলস জাস্টিস পার্টি বা পার্টি কেয়াদিলান রাকায়াতের (পিকেআর) প্রধান আনোয়ার ইব্রাহিমকে রাজ ক্ষমা দিয়ে জেল থেকে মুক্তি দেয়া হবে বলেও একমত হয়েছেন জোটের নেতারা। দুই মেয়াদের বেশি কেউ প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালন করতে পারবেন না বলেও একমত হয়েছেন জোটের সদস্যরা। নির্বাচনে জোটের পক্ষ থেকে প্রিবুমিকে ৫২ আসন, পিকেআরকে ৫১ আসন, ডিএপিকে ৩৫ আসন এবং আমানাহকে ২৭ আসন বরাদ্দ দেয়া হয়েছে।

মালয়েশিয়ার সাবেক প্রধানমন্ত্রী মাহাথির মোহাম্মদকে আধুনিক মালয়েশিয়ার স্থপতি বলা হয়। তিনি ১৯৮১ সালে মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব গ্রহণ করেন। তার নেতৃত্বে ক্ষমতাসীন দল ইউনাইটেড মালয়স ন্যাশনাল অর্গানাইজেশন (ইউএমএনও) টানা পাঁচবার নির্বাচনে জয়ী হয়ে সরকার গঠন করে।

তিনি এশিয়ার সবচেয়ে দীর্ঘ সময় ধরে গণতান্ত্রিকভাবে নির্বাচিত প্রধানমন্ত্রী ছিলেন। টানা ২২ বছর পর ২০০৩ সালের ৩০ অক্টোবর তিনি স্বেচ্ছায় প্রধানমন্ত্রীর পদ ছেড়ে দেন। পরে তিনি দল থেকেও পদত্যাগ করেন। ২০০৯ সালে ক্ষমতায় আসেন একই দলের প্রধান নাজিব তুন রাজাক। ২০১৫ সাল থেকে মালয়েশিয়ায় নাজিবের ১ এমডিবি কেলেঙ্কারী বড় রূপ ধারণ করে। সরকারি প্রজেক্টের টাকা নিজের অ্যাকাউন্টে নেয়াকে কেন্দ্র করে বিতর্কিত হয়ে ওঠেন নাজিব। তখন থেকেই বিরোধী দলের সঙ্গে নাজিব বিরোধী ঐক্যে সম্মতি দিয়ে আসছিলেন মাহাথির মোহাম্মদ।

 

 

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter
.