বিশ্বকাপে মাহমুদউল্লাহর বাজির ঘোড়া বোলাররা
jugantor
বিশ্বকাপে মাহমুদউল্লাহর বাজির ঘোড়া বোলাররা

  জ্যোতির্ময় মন্ডল  

২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

দুয়ারে কড়া নাড়ছে টি ২০ বিশ্বকাপ। টানা তিনটি সিরিজ জেতার পর অনেকেই বাংলাদেশকে নিয়ে স্বপ্ন দেখছেন। বিশ্বকাপে মাহমুদউল্লাহর বাজির ঘোড়া বোলাররা। যুগান্তরকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে যা বললেন বাংলাদেশ অধিনায়ক।

প্রশ্ন : কেউ যদি বলেন, বাংলাদেশ বিশ্বকাপ জিতবে, আপনার উত্তর কী হবে?

মাহমুদউল্লাহ : বিশ্বকাপ জিততে হলে প্রথমে ধারাবাহিকভাবে ভালো ক্রিকেট খেলতে হবে। অতিক্রম করতে হবে কঠিন মুহূর্ত। ভাগ্যের সহায়তা থাকতে হবে। ধারাবাহিকভাবে যদি ভালো ক্রিকেট খেলতে পারি এবং ভাগ্যের সহায়তা পাই, তাহলে ভালো ফল আসবে।

প্রশ্ন : বিশ্বকাপ জয়ের জন্য যে আÍবিশ্বাস প্রয়োজন, সেটা কি বাংলাদেশ দলের আছে?

মাহমুদউল্লাহ : এই ফরম্যাটে ছোট-বড় দল বলে কিছু নেই। প্রতিটি দলের প্রতি সম্মান জানিয়ে ভালো ক্রিকেট খেলতে হবে। কঠিন ক্রিকেট খেলতে হবে। অস্ট্রেলিয়া ও নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজ জেতায় আমাদের আÍবিশ্বাস বেড়েছে, যা বিশ্বকাপে কাজে লাগবে।

প্রশ্ন : ভালো পারফরম্যান্সের সঙ্গে আপনি ভাগ্যে কতটা বিশ্বাসী?

মাহমুদউল্লাহ : অবশ্যই ভালো পারফরম্যান্স লাগবে। একই সঙ্গে আমি ভাগ্যেও বিশ্বাসী। আমি আল্লাহর ওপর বিশ্বাস করি। দুটোরই সহায়তা লাগবে। ভালো ক্রিকেট খেলার চেষ্টা করতে হবে। সেই সঙ্গে ভাগ্যের ওপরও বিশ্বাস রাখতে হবে।

প্রশ্ন : শেষ বিশ্বকাপে ভারতের বিপক্ষে শেষ ওভারে হতাশার হারের পর আপনাকে অনেক কথা শুনতে হয়েছিল। চার বছর পর আপনি অধিনায়ক হিসাবে বিশ্বকাপে যাচ্ছেন। ওই ম্যাচের মতো পরিস্থিতিতে পড়লে সতীর্থদের প্রতি আপনার পরামর্শ কী থাকবে?

মাহমুদউল্লাহ : ওটা দুঃখের স্মৃতি। আমার ক্যারিয়ারের জন্য একটা শিক্ষা। একই ধরনের অবস্থা যদি আবারও আসে, শুধু ভারত নয়, টি ২০ ক্রিকেটে যে কারোর বিপক্ষে ম্যাচে এমন পরিস্থিতি আসতে পারে। এমন পরিস্থিতিতে পড়লে আমি সঠিক ও ভালো সিদ্ধান্ত নেওয়ার চেষ্টা করব।

প্রশ্ন : বড় আসরে প্রত্যেক অধিনায়কের দু-একজন বাজির ঘোড়া থাকে। হয়তো দলে এমন কেউ আছেন যাকে নিয়ে খুব বেশি আলোচনা হচ্ছে না, কিন্তু আপনি তাকে নিয়ে বড় স্বপ্ন দেখছেন?

মাহমুদউল্লাহ : প্রত্যেক খেলোয়াড়েরই বাজির ঘোড়া হওয়া উচিত। সবাই নিজের যোগ্যতায় দলে জায়গা করে নিয়েছে। আমি বলতে পারি, আমার বোলাররা খুবই ভালো করছে। বোলিং ইউনিটের ওপর আমাদের আস্থা আছে। একই সঙ্গে আমাদের অভিজ্ঞ ও জুনিয়র ক্রিকেটার মিলে ভালো কম্বিনেশন গড়ে উঠেছে। এখন মাঠে আমরা কীভাবে নিজেদের প্রয়োগ করি, সেটাই আসল। কীভাবে কঠিন সময় নিয়ন্ত্রণ করব, এটা গুরুত্বপূর্ণ।

প্রশ্ন : একশ টি ২০ খেললেন, দেশের সফল টি ২০ অধিনায়ক আপনি। সামনে আরও বড় কিছুর সম্ভাবনা নিয়ে কী স্বপ্ন দেখছেন?

মাহমুদউল্লাহ : আমরা এখন যে ধরনের ক্রিকেট খেলছি তাতে কিছু জায়গায় উন্নতি করার আছে। ওই জায়গাগুলোয় যদি আমরা আরেকটু ভালো করতে পারি, ভুল শুধরে যদি ধারাবাহিক হতে পারি, তাহলে ভালো কিছু করা সম্ভব।

প্রশ্ন : সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে বলা হচ্ছে, তামিম ইকবালকে কোচ রাসেল ডমিঙ্গো চাননি। আপনিও তাকে দলে আশা করেননি তেমনভাবে, এ সমালোচনায় সত্য কতটুকু?

মাহমুদউল্লাহ : (নিরুত্তর)।

প্রশ্ন : বড় আসরে খেলার আগে সব দলের একটা স্লোগান থাকে। বাংলাদেশ কোন স্লোগান নিয়ে খেলতে চায়?

মাহমুদউল্লাহ : স্লোগান বড় টুর্নামেন্টের আগে দলগুলোর জন্য মোটিভেশন হিসাবে কাজ করে। আমাদের ভয়ডরহীন ক্রিকেট খেলতে হবে। এটাকে প্রাধান্য দিয়েই বিশ্বকাপে লড়াই করতে হবে।

প্রশ্ন : বিশ্বকাপে বাংলাদেশ দলের সবচেয়ে শক্তির জায়গা কোনটা? বিশ্বের এমন কোনো ক্রিকেটারের কথা কি আপনার মনে পড়েছে যাকে আপনি আপনার দলে আশা করবেন?

মাহমুদউল্লাহ : আমাদের বোলিং ইউনিট ঋদ্ধ। সবাই ভালো পারফর্ম করছে। পেসার ও স্পিনাররা ছন্দে আছে। আমি আÍবিশ্বাসী বোলারদের নিয়ে।

প্রশ্ন : সাকিব থেকে শামীম, দলের ক্রিকেটাদের সঙ্গে আপনার সম্পর্কটা কেমন? চাপের মুহূর্তে সাকিবের পরামর্শ আপনাকে কতটা হালকা করে?

মাহমুদউল্লাহ : সবার সঙ্গে আমার সম্পর্ক ভালোবাসার, যত্নের ও বন্ধুত্বপূর্ণ। আর এটা তো আমি ভালো বলতে পারব না। আমার সতীর্থরা ভালো বলতে পারবে (হাসি ...)। আমার সঙ্গ দলের সবাই উপভোগ করে। আমিও তাদের সঙ্গে বড় ভাই বা বন্ধুর মতো মিশি। মাঠে সাকিব সব সময় সক্রিয়। সে ছোটখাটো বিষয়গুলোর তথ্য বা পরামর্শ দিয়ে সাহায্য করে। এটাকে আমি অ্যাপ্রিশিয়েট করি। এটা ভালো ব্যাপার যে দলও খুব ভালো করছে।

প্রশ্ন : আপনার আদর্শ অধিনায়ক কে? টি ২০ বিশ্বকাপে এখন পর্যন্ত এটাই কি বাংলাদেশের সেরা দল?

মাহমুদউল্লাহ : অধিনায়ক হিসাবে আমার পছন্দ (ক্রিকেটার হিসাবেও) মহেন্দ্র সিং ধোনিকে। তার অধিনায়কত্বে ম্যাচে ফেরার ক্ষমতা, তার চিন্তাশক্তি পছন্দের। তিনি যে কোনো সময়ের অন্যতম সেরা অধিনায়ক।

প্রশ্ন : ধারাবাহিক জয়, ক্রিকেটারদের ফিটনেস, অনুশীলন-সব মিলে বিশ্বকাপের আগে বাংলাদেশের আÍবিশ্বাস কোথায় অবস্থান করছে?

মাহমুদউল্লাহ : এই মুহূর্তে টি ২০ ক্রিকেটে এটাই আমাদের সেরা দল। সময়ের বিবেচনায় নিজেদের যোগ্যতা অনুযায়ী জায়গা করে নিয়েছে তারা। সবাই বিশ্বকাপে চ্যালেঞ্জ নিতে প্রস্তুত। সবাই ভালো কিছুর অপেক্ষায়।

বিশ্বকাপে মাহমুদউল্লাহর বাজির ঘোড়া বোলাররা

 জ্যোতির্ময় মন্ডল 
২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

দুয়ারে কড়া নাড়ছে টি ২০ বিশ্বকাপ। টানা তিনটি সিরিজ জেতার পর অনেকেই বাংলাদেশকে নিয়ে স্বপ্ন দেখছেন। বিশ্বকাপে মাহমুদউল্লাহর বাজির ঘোড়া বোলাররা। যুগান্তরকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে যা বললেন বাংলাদেশ অধিনায়ক।

প্রশ্ন : কেউ যদি বলেন, বাংলাদেশ বিশ্বকাপ জিতবে, আপনার উত্তর কী হবে?

মাহমুদউল্লাহ : বিশ্বকাপ জিততে হলে প্রথমে ধারাবাহিকভাবে ভালো ক্রিকেট খেলতে হবে। অতিক্রম করতে হবে কঠিন মুহূর্ত। ভাগ্যের সহায়তা থাকতে হবে। ধারাবাহিকভাবে যদি ভালো ক্রিকেট খেলতে পারি এবং ভাগ্যের সহায়তা পাই, তাহলে ভালো ফল আসবে।

প্রশ্ন : বিশ্বকাপ জয়ের জন্য যে আÍবিশ্বাস প্রয়োজন, সেটা কি বাংলাদেশ দলের আছে?

মাহমুদউল্লাহ : এই ফরম্যাটে ছোট-বড় দল বলে কিছু নেই। প্রতিটি দলের প্রতি সম্মান জানিয়ে ভালো ক্রিকেট খেলতে হবে। কঠিন ক্রিকেট খেলতে হবে। অস্ট্রেলিয়া ও নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজ জেতায় আমাদের আÍবিশ্বাস বেড়েছে, যা বিশ্বকাপে কাজে লাগবে।

প্রশ্ন : ভালো পারফরম্যান্সের সঙ্গে আপনি ভাগ্যে কতটা বিশ্বাসী?

মাহমুদউল্লাহ : অবশ্যই ভালো পারফরম্যান্স লাগবে। একই সঙ্গে আমি ভাগ্যেও বিশ্বাসী। আমি আল্লাহর ওপর বিশ্বাস করি। দুটোরই সহায়তা লাগবে। ভালো ক্রিকেট খেলার চেষ্টা করতে হবে। সেই সঙ্গে ভাগ্যের ওপরও বিশ্বাস রাখতে হবে।

প্রশ্ন : শেষ বিশ্বকাপে ভারতের বিপক্ষে শেষ ওভারে হতাশার হারের পর আপনাকে অনেক কথা শুনতে হয়েছিল। চার বছর পর আপনি অধিনায়ক হিসাবে বিশ্বকাপে যাচ্ছেন। ওই ম্যাচের মতো পরিস্থিতিতে পড়লে সতীর্থদের প্রতি আপনার পরামর্শ কী থাকবে?

মাহমুদউল্লাহ : ওটা দুঃখের স্মৃতি। আমার ক্যারিয়ারের জন্য একটা শিক্ষা। একই ধরনের অবস্থা যদি আবারও আসে, শুধু ভারত নয়, টি ২০ ক্রিকেটে যে কারোর বিপক্ষে ম্যাচে এমন পরিস্থিতি আসতে পারে। এমন পরিস্থিতিতে পড়লে আমি সঠিক ও ভালো সিদ্ধান্ত নেওয়ার চেষ্টা করব।

প্রশ্ন : বড় আসরে প্রত্যেক অধিনায়কের দু-একজন বাজির ঘোড়া থাকে। হয়তো দলে এমন কেউ আছেন যাকে নিয়ে খুব বেশি আলোচনা হচ্ছে না, কিন্তু আপনি তাকে নিয়ে বড় স্বপ্ন দেখছেন?

মাহমুদউল্লাহ : প্রত্যেক খেলোয়াড়েরই বাজির ঘোড়া হওয়া উচিত। সবাই নিজের যোগ্যতায় দলে জায়গা করে নিয়েছে। আমি বলতে পারি, আমার বোলাররা খুবই ভালো করছে। বোলিং ইউনিটের ওপর আমাদের আস্থা আছে। একই সঙ্গে আমাদের অভিজ্ঞ ও জুনিয়র ক্রিকেটার মিলে ভালো কম্বিনেশন গড়ে উঠেছে। এখন মাঠে আমরা কীভাবে নিজেদের প্রয়োগ করি, সেটাই আসল। কীভাবে কঠিন সময় নিয়ন্ত্রণ করব, এটা গুরুত্বপূর্ণ।

প্রশ্ন : একশ টি ২০ খেললেন, দেশের সফল টি ২০ অধিনায়ক আপনি। সামনে আরও বড় কিছুর সম্ভাবনা নিয়ে কী স্বপ্ন দেখছেন?

মাহমুদউল্লাহ : আমরা এখন যে ধরনের ক্রিকেট খেলছি তাতে কিছু জায়গায় উন্নতি করার আছে। ওই জায়গাগুলোয় যদি আমরা আরেকটু ভালো করতে পারি, ভুল শুধরে যদি ধারাবাহিক হতে পারি, তাহলে ভালো কিছু করা সম্ভব।

প্রশ্ন : সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে বলা হচ্ছে, তামিম ইকবালকে কোচ রাসেল ডমিঙ্গো চাননি। আপনিও তাকে দলে আশা করেননি তেমনভাবে, এ সমালোচনায় সত্য কতটুকু?

মাহমুদউল্লাহ : (নিরুত্তর)।

প্রশ্ন : বড় আসরে খেলার আগে সব দলের একটা স্লোগান থাকে। বাংলাদেশ কোন স্লোগান নিয়ে খেলতে চায়?

মাহমুদউল্লাহ : স্লোগান বড় টুর্নামেন্টের আগে দলগুলোর জন্য মোটিভেশন হিসাবে কাজ করে। আমাদের ভয়ডরহীন ক্রিকেট খেলতে হবে। এটাকে প্রাধান্য দিয়েই বিশ্বকাপে লড়াই করতে হবে।

প্রশ্ন : বিশ্বকাপে বাংলাদেশ দলের সবচেয়ে শক্তির জায়গা কোনটা? বিশ্বের এমন কোনো ক্রিকেটারের কথা কি আপনার মনে পড়েছে যাকে আপনি আপনার দলে আশা করবেন?

মাহমুদউল্লাহ : আমাদের বোলিং ইউনিট ঋদ্ধ। সবাই ভালো পারফর্ম করছে। পেসার ও স্পিনাররা ছন্দে আছে। আমি আÍবিশ্বাসী বোলারদের নিয়ে।

প্রশ্ন : সাকিব থেকে শামীম, দলের ক্রিকেটাদের সঙ্গে আপনার সম্পর্কটা কেমন? চাপের মুহূর্তে সাকিবের পরামর্শ আপনাকে কতটা হালকা করে?

মাহমুদউল্লাহ : সবার সঙ্গে আমার সম্পর্ক ভালোবাসার, যত্নের ও বন্ধুত্বপূর্ণ। আর এটা তো আমি ভালো বলতে পারব না। আমার সতীর্থরা ভালো বলতে পারবে (হাসি ...)। আমার সঙ্গ দলের সবাই উপভোগ করে। আমিও তাদের সঙ্গে বড় ভাই বা বন্ধুর মতো মিশি। মাঠে সাকিব সব সময় সক্রিয়। সে ছোটখাটো বিষয়গুলোর তথ্য বা পরামর্শ দিয়ে সাহায্য করে। এটাকে আমি অ্যাপ্রিশিয়েট করি। এটা ভালো ব্যাপার যে দলও খুব ভালো করছে।

প্রশ্ন : আপনার আদর্শ অধিনায়ক কে? টি ২০ বিশ্বকাপে এখন পর্যন্ত এটাই কি বাংলাদেশের সেরা দল?

মাহমুদউল্লাহ : অধিনায়ক হিসাবে আমার পছন্দ (ক্রিকেটার হিসাবেও) মহেন্দ্র সিং ধোনিকে। তার অধিনায়কত্বে ম্যাচে ফেরার ক্ষমতা, তার চিন্তাশক্তি পছন্দের। তিনি যে কোনো সময়ের অন্যতম সেরা অধিনায়ক।

প্রশ্ন : ধারাবাহিক জয়, ক্রিকেটারদের ফিটনেস, অনুশীলন-সব মিলে বিশ্বকাপের আগে বাংলাদেশের আÍবিশ্বাস কোথায় অবস্থান করছে?

মাহমুদউল্লাহ : এই মুহূর্তে টি ২০ ক্রিকেটে এটাই আমাদের সেরা দল। সময়ের বিবেচনায় নিজেদের যোগ্যতা অনুযায়ী জায়গা করে নিয়েছে তারা। সবাই বিশ্বকাপে চ্যালেঞ্জ নিতে প্রস্তুত। সবাই ভালো কিছুর অপেক্ষায়।

 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন