মাদক ব্যবসায়ীর ছুরিকাঘাতে এএসআই নিহত
jugantor
মাদক ব্যবসায়ীর ছুরিকাঘাতে এএসআই নিহত

  রংপুর ব্যুরো ও কাউনিয়া প্রতিনিধি  

২৬ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

রংপুরে মাদকবিরোধী অভিযান চলাকলে মাদক ব্যবসায়ী-সন্ত্রাসীর ছুরিকাঘাতে গুরুতর আহত এএসআই পিয়ারুল ইসলাম হাসপাতালে মারা গেছেন। শনিবার বেলা সোয়া ১১টায় রংপুর মেডিকেল কলেজ (রমেক) হাসপাতালের আইসিইউতে তিনি মারা যান। এ ঘটনায় গ্রেফতার মাদক ব্যবসায়ী-সন্ত্রাসী পারভেজ রহমান পলাশের বিরুদ্ধে মামলার প্রস্তুতি চলছে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের ডিসি আবু মারুফ হোসেন।

পিয়ারুল ইসলামের বাড়ি কুড়িগ্রাম জেলার রাজারহাট উপজেলার বিদ্যানন্দ ইউনিয়নে। বাবা আব্দুর রহমান মিন্টু প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শিক্ষকতা করেন। দুই ভাই, দুই বোনের মধ্যে পিয়ারুল সবার বড়। পিয়ারুল দুই ছেলে সন্তানের বাবা। তার এমন মর্মান্তিক মৃত্যুতে পরিবার, আত্মীয়স্বজন ও গ্রামবাসীসহ পুরো বিদ্যানন্দে শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

পুলিশ সূত্র জানায়, শুক্রবার রাতে রংপুর নগরীর হারাগাছ থানাধীন বাহারকাছনা আহলে হাদিস মসজিদ সংলগ্ন তেলিপাড়া এলাকায় এএসআই পিয়ারুলের নেতৃত্বে মাদকবিরোধী অভিযান পরিচালিত হয়। এ সময় মাদক ব্যবসায়ী পলাশকে (৩০) গ্রেফতার করেন পিয়ারুল। এ সময় পলাশ তার কাছে থাকা ছুরি দিয়ে এএসআই পিয়ারুলের বুকে ও পেটে আঘাত করে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে। এ পরিস্থিতিতে পিয়ারুল অন্য পুলিশ সদস্যদের হাতে পলাশকে তুলে দিয়ে মাটিতে লুটিয়ে পড়েন। এ সময় পুলিশ সদস্যরা পিয়ারুলকে রমেক হাসপাতালে ভর্তি করেন। সেখানে অস্ত্রোপচার শেষে পিয়ারুলকে আইসিইউতে ভর্তি করা হয়। চিকিৎসাধীন অবস্থায় শনিবার তার মৃত্যু হয়।

মাদক ব্যবসায়ীর ছুরিকাঘাতে এএসআই নিহত

 রংপুর ব্যুরো ও কাউনিয়া প্রতিনিধি 
২৬ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

রংপুরে মাদকবিরোধী অভিযান চলাকলে মাদক ব্যবসায়ী-সন্ত্রাসীর ছুরিকাঘাতে গুরুতর আহত এএসআই পিয়ারুল ইসলাম হাসপাতালে মারা গেছেন। শনিবার বেলা সোয়া ১১টায় রংপুর মেডিকেল কলেজ (রমেক) হাসপাতালের আইসিইউতে তিনি মারা যান। এ ঘটনায় গ্রেফতার মাদক ব্যবসায়ী-সন্ত্রাসী পারভেজ রহমান পলাশের বিরুদ্ধে মামলার প্রস্তুতি চলছে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের ডিসি আবু মারুফ হোসেন।

পিয়ারুল ইসলামের বাড়ি কুড়িগ্রাম জেলার রাজারহাট উপজেলার বিদ্যানন্দ ইউনিয়নে। বাবা আব্দুর রহমান মিন্টু প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শিক্ষকতা করেন। দুই ভাই, দুই বোনের মধ্যে পিয়ারুল সবার বড়। পিয়ারুল দুই ছেলে সন্তানের বাবা। তার এমন মর্মান্তিক মৃত্যুতে পরিবার, আত্মীয়স্বজন ও গ্রামবাসীসহ পুরো বিদ্যানন্দে শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

পুলিশ সূত্র জানায়, শুক্রবার রাতে রংপুর নগরীর হারাগাছ থানাধীন বাহারকাছনা আহলে হাদিস মসজিদ সংলগ্ন তেলিপাড়া এলাকায় এএসআই পিয়ারুলের নেতৃত্বে মাদকবিরোধী অভিযান পরিচালিত হয়। এ সময় মাদক ব্যবসায়ী পলাশকে (৩০) গ্রেফতার করেন পিয়ারুল। এ সময় পলাশ তার কাছে থাকা ছুরি দিয়ে এএসআই পিয়ারুলের বুকে ও পেটে আঘাত করে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে। এ পরিস্থিতিতে পিয়ারুল অন্য পুলিশ সদস্যদের হাতে পলাশকে তুলে দিয়ে মাটিতে লুটিয়ে পড়েন। এ সময় পুলিশ সদস্যরা পিয়ারুলকে রমেক হাসপাতালে ভর্তি করেন। সেখানে অস্ত্রোপচার শেষে পিয়ারুলকে আইসিইউতে ভর্তি করা হয়। চিকিৎসাধীন অবস্থায় শনিবার তার মৃত্যু হয়।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন