আফগানিস্তানে মসজিদে ফের হামলা, নিহত ৪৭
jugantor
আফগানিস্তানে মসজিদে ফের হামলা, নিহত ৪৭

  যুগান্তর ডেস্ক  

১৬ অক্টোবর ২০২১, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

আফগানিস্তানের শিয়া মসজিদে আবারও বোমা হামলার ঘটনা ঘটেছে। এতে ৪৭ জন নিহত ও আরও ৯০ জন আহত হয়েছেন। হতাহতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। দেশটির কান্দাহারের বিবি ফাতেমা মসজিদে শুক্রবার জুমার নামাজের সময় এই হামলা চালানো হয়। ঘটনার দায় তাৎক্ষণিকভাবে কেউ স্বীকার করেনি। খবর এএফপি, রয়টার্স ও বিবিসি।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, মসজিদটিতে মুসল্লিতে পরিপূর্ণ ছিল। তিনজন আত্মঘাতী হামলাকারী এই হামলা চালিয়েছে। এর মধ্যে একজন মসজিদের মধ্যে প্রবেশের পর বিস্ফোরণ ঘটায় আর অপরজন মসজিদের বাইরে বিস্ফোরণ ঘটায়। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া ফুটেজ ও ছবিতে দেখা যাচ্ছে মসজিদের মেঝেতে অনেক লাশ পড়ে আছে। বিস্ফোরণে মসজিদের জানালার কাচ ভেঙে চুরমার হয়ে গেছে। মেঝেতে শুয়ে কাতরাতে থাকা আহতদের সাহায্যে অনেকেই এগিয়ে আসেন।

হামলার ঘটনায় কর্তৃপক্ষ অনুসন্ধান শুরু করেছেন বলে জানান তালেবান সরকারের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী কারী সাঈদ খোসতি। এ ঘটনায় গভীর শোক প্রকাশ করেছেন তিনি। হামলার পর তালেবানের বিশেষ নিরাপত্তা দলের সদস্যরা ঘটনাস্থল নিয়ন্ত্রণে নিয়েছে। তারা স্থানীয়দের বলেছে, হামলায় আহতদের রক্তদান করতে। সাবেক প্রাদেশিক কাউন্সিলের সদস্য নেমাতুল্লাহ ওয়াফা বলেন, ‘শুক্রবার মসজিদে জুমার নামাজের সময় এই ঘটনা ঘটে। অনেকেই হতাহত হয়েছেন।’

এর আগে আফগানিস্তানে কুন্দুজের একটি শিয়া মসজিদে একই ধরনের একটি বোমা বিস্ফোরণের এক সপ্তাহের মাথায় কান্দাহারে এ ঘটনা ঘটল। ধারণা করা হচ্ছে, শুক্রবারের হামলাটিও আত্মঘাতী হামলা ছিল। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, মসজিদের প্রধান ফটকের কাছে তিনটি বিস্ফোরণ হয়েছে। বিস্ফোরণের সময় মসজিদটি মানুষে পূর্ণ ছিল। এর পরপরই সেখানে ১৫টি অ্যাম্বুলেন্স ছুটে যায়।

গত শুক্রবার উত্তরাঞ্চলীয় শহর কুন্দুজের মসজিদে আত্মঘাতী হামলায় অন্তত ৮০ জন নিহত হয়। পরে আইএস-কে ওই হামলার দায় স্বীকার করে। আইএস-কে গোষ্ঠীর সুন্নি যোদ্ধারা অতীতে বারবারই শিয়া সংখ্যালঘুদের নিশানা করে হামলা চালিয়েছে। আত্মঘাতী হামলা চালিয়েছে মসজিদে, স্পোর্টস ক্লাবে ও স্কুলেও। সাম্প্রতিক সপ্তাহগুলোতে তারা তালেবানের বিরুদ্ধে হামলার মাত্রা বাড়িয়েছে।

এদিকে আফগানিস্তানের সঙ্গে ফ্লাইট চলাচল স্থগিত করেছে পাকিস্তান ইন্টারন্যাশনাল এয়ারলাইনস (পিআইএ)। এ সিদ্ধান্ত কার্যকর করা হয়েছে বৃহস্পতিবার থেকে। পিআইএর দাবি, দেশটিতে ফ্লাইট চালু রাখতে গিয়ে তালেবান সরকারের কঠোর হস্তক্ষেপের মুখে পড়ছে তারা।

রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন জানিয়েছেন, তালেবান ক্ষমতায় আসার পর ইরাক ও সিরিয়া থেকে সন্ত্রাসীরা আফগানিস্তানে প্রবেশ করছে। দেশটির নিরাপত্তা প্রধানদের সঙ্গে এক কনফারেন্সে তিনি এ কথা বলেন। পুতিন বলেন, যুদ্ধবিধ্বস্ত ইরাক ও সিরিয়া থেকে সন্ত্রাসীরা ‘সক্রিয়ভাবে’ আফগানিস্তানে ঢুকছে। আফগানিস্তানের বর্তমান পরিস্থিতি জটিল।

সন্ত্রাসীরা প্রতিবেশী দেশগুলোর পরিস্থিতি অস্থিতিশীল করে তুলতে পারে। উদ্বেগ জানিয়ে পুতিন আরও বলেন, এসব সন্ত্রাসী আফগানিস্তান থেকে প্রতিবেশীদের ওপর সরাসরি হামলাও চালাতে পারে। রাশিয়ার গণমাধ্যম জানিয়েছে, আফগানিস্তান নিয়ে আগামী সপ্তাহে মস্কোতে যুক্তরাষ্ট্র, চীন ও পাকিস্তানের অংশগ্রহণে বৈঠক অনুষ্ঠিত হবে।

আফগানিস্তানে মসজিদে ফের হামলা, নিহত ৪৭

 যুগান্তর ডেস্ক 
১৬ অক্টোবর ২০২১, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

আফগানিস্তানের শিয়া মসজিদে আবারও বোমা হামলার ঘটনা ঘটেছে। এতে ৪৭ জন নিহত ও আরও ৯০ জন আহত হয়েছেন। হতাহতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। দেশটির কান্দাহারের বিবি ফাতেমা মসজিদে শুক্রবার জুমার নামাজের সময় এই হামলা চালানো হয়। ঘটনার দায় তাৎক্ষণিকভাবে কেউ স্বীকার করেনি। খবর এএফপি, রয়টার্স ও বিবিসি।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, মসজিদটিতে মুসল্লিতে পরিপূর্ণ ছিল। তিনজন আত্মঘাতী হামলাকারী এই হামলা চালিয়েছে। এর মধ্যে একজন মসজিদের মধ্যে প্রবেশের পর বিস্ফোরণ ঘটায় আর অপরজন মসজিদের বাইরে বিস্ফোরণ ঘটায়। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া ফুটেজ ও ছবিতে দেখা যাচ্ছে মসজিদের মেঝেতে অনেক লাশ পড়ে আছে। বিস্ফোরণে মসজিদের জানালার কাচ ভেঙে চুরমার হয়ে গেছে। মেঝেতে শুয়ে কাতরাতে থাকা আহতদের সাহায্যে অনেকেই এগিয়ে আসেন।

হামলার ঘটনায় কর্তৃপক্ষ অনুসন্ধান শুরু করেছেন বলে জানান তালেবান সরকারের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী কারী সাঈদ খোসতি। এ ঘটনায় গভীর শোক প্রকাশ করেছেন তিনি। হামলার পর তালেবানের বিশেষ নিরাপত্তা দলের সদস্যরা ঘটনাস্থল নিয়ন্ত্রণে নিয়েছে। তারা স্থানীয়দের বলেছে, হামলায় আহতদের রক্তদান করতে। সাবেক প্রাদেশিক কাউন্সিলের সদস্য নেমাতুল্লাহ ওয়াফা বলেন, ‘শুক্রবার মসজিদে জুমার নামাজের সময় এই ঘটনা ঘটে। অনেকেই হতাহত হয়েছেন।’

এর আগে আফগানিস্তানে কুন্দুজের একটি শিয়া মসজিদে একই ধরনের একটি বোমা বিস্ফোরণের এক সপ্তাহের মাথায় কান্দাহারে এ ঘটনা ঘটল। ধারণা করা হচ্ছে, শুক্রবারের হামলাটিও আত্মঘাতী হামলা ছিল। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, মসজিদের প্রধান ফটকের কাছে তিনটি বিস্ফোরণ হয়েছে। বিস্ফোরণের সময় মসজিদটি মানুষে পূর্ণ ছিল। এর পরপরই সেখানে ১৫টি অ্যাম্বুলেন্স ছুটে যায়। 

গত শুক্রবার উত্তরাঞ্চলীয় শহর কুন্দুজের মসজিদে আত্মঘাতী হামলায় অন্তত ৮০ জন নিহত হয়। পরে আইএস-কে ওই হামলার দায় স্বীকার করে। আইএস-কে গোষ্ঠীর সুন্নি যোদ্ধারা অতীতে বারবারই শিয়া সংখ্যালঘুদের নিশানা করে হামলা চালিয়েছে। আত্মঘাতী হামলা চালিয়েছে মসজিদে, স্পোর্টস ক্লাবে ও স্কুলেও। সাম্প্রতিক সপ্তাহগুলোতে তারা তালেবানের বিরুদ্ধে হামলার মাত্রা বাড়িয়েছে।

এদিকে আফগানিস্তানের সঙ্গে ফ্লাইট চলাচল স্থগিত করেছে পাকিস্তান ইন্টারন্যাশনাল এয়ারলাইনস (পিআইএ)। এ সিদ্ধান্ত কার্যকর করা হয়েছে বৃহস্পতিবার থেকে। পিআইএর দাবি, দেশটিতে ফ্লাইট চালু রাখতে গিয়ে তালেবান সরকারের কঠোর হস্তক্ষেপের মুখে পড়ছে তারা। 

রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন জানিয়েছেন, তালেবান ক্ষমতায় আসার পর ইরাক ও সিরিয়া থেকে সন্ত্রাসীরা আফগানিস্তানে প্রবেশ করছে। দেশটির নিরাপত্তা প্রধানদের সঙ্গে এক কনফারেন্সে তিনি এ কথা বলেন। পুতিন বলেন, যুদ্ধবিধ্বস্ত ইরাক ও সিরিয়া থেকে সন্ত্রাসীরা ‘সক্রিয়ভাবে’ আফগানিস্তানে ঢুকছে। আফগানিস্তানের বর্তমান পরিস্থিতি জটিল।

সন্ত্রাসীরা প্রতিবেশী দেশগুলোর পরিস্থিতি অস্থিতিশীল করে তুলতে পারে। উদ্বেগ জানিয়ে পুতিন আরও বলেন, এসব সন্ত্রাসী আফগানিস্তান থেকে প্রতিবেশীদের ওপর সরাসরি হামলাও চালাতে পারে। রাশিয়ার গণমাধ্যম জানিয়েছে, আফগানিস্তান নিয়ে আগামী সপ্তাহে মস্কোতে যুক্তরাষ্ট্র, চীন ও পাকিস্তানের অংশগ্রহণে বৈঠক অনুষ্ঠিত হবে।
 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন