ব্যাটে-বলে দুর্দান্ত সাকিব
jugantor
ব্যাটে-বলে দুর্দান্ত সাকিব

  ক্রীড়া প্রতিবেদক  

২২ অক্টোবর ২০২১, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

ব্যাটে-বলে দারুণ সব কীর্তিতে ২০১৯ ওয়ানডে বিশ্বকাপ রাঙিয়েছিলেন সাকিব আল হাসান। এবারের টি ২০ বিশ্বকাপের আগে ব্যাটিংয়ে ছিলেন না ছন্দে।

কিন্তু টুর্নামেন্ট শুরু হতেই এই বাঁ-হাতি অলরাউন্ডার ফিরে পেলেন নিজেকে। প্রথম ম্যাচে স্কটল্যান্ডের বিপক্ষে গড়েছিলেন টি ২০’র সফলতম বোলারের কীর্তি।

বৃহস্পতিবার পাপুয়া নিউগিনির বিপক্ষে প্রথম রাউন্ডে নিজেদের শেষ ম্যাচে গড়লেন আরেক রেকর্ড। ২০ ওভারের বিশ্বকাপে পাকিস্তানের শহিদ আফ্রিদির সঙ্গে এখন যৌথভাবে সর্বোচ্চ উইকেট শিকারি বাংলাদেশের রেকর্ডের বরপুত্র সাকিব।

পাপুয়া নিউগিনির বিপক্ষে কাল নয় রানে চার উইকেট নিয়ে এই রেকর্ড গড়েন তিনি। টি ২০ বিশ্বকাপে সাকিব ও আফ্রিদির উইকেট এখন ৩৯টি করে।

এই রেকর্ডে আফ্রিদির লেগেছিল ৩৪ ম্যাচ, সাকিব সেটা ২৮ ম্যাচেই ছুঁয়ে ফেললেন। ওমানের পর পাপুয়া নিউগিনির বিপক্ষে ম্যাচসেরা হয়ে এবারের বিশ্বকাপেও সাকিব বড় কিছুর আভাস দিয়ে রাখলেন।

সাকিবের দুর্দান্ত বোলিংয়ে পাপুয়া নিউগিনি মাত্র ৯৭ রানে গুটিয়ে যায়। এর আগে বাংলাদেশ করে সাত উইকেটে ১৮১ রান। সাকিব করেছিলেন ৪৬। ৮৪ রানের জয়টি টি ২০তে রানের হিসাবে বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় জয়। তিন ম্যাচের দুটিতেই ম্যাচসেরা হলেন সাকিব।

নয় রানে চার উইকেট-টি ২০ বিশ্বকাপে তার সেরা বোলিং। আসরের প্রথম ম্যাচে স্কটিশদের বিপক্ষে দুই উইকেট নিয়ে টি ২০তে আগের সর্বোচ্চ উইকেট শিকারি লাসিথ মালিঙ্গাকে ছাড়িয়ে যান।

পরের ম্যাচে নেন তিন উইকেট। সেই ধারাবাহিকতায় এবার নিলেন চারটি। গড়লেন আরেকটি রেকর্ড। দেশের হয়ে টি ২০তে সাকিবের উইকেট এখন ১১১টি।

ম্যাচসেরা পুরস্কার হাতে কাল সাকিব বলেন, ‘আমরা যে খেলাটি খেলছি, তা আমাদের আরও আত্মবিশ্বাসী করে তুলবে। প্রথম ম্যাচে হার স্পষ্টতই একটি ধাক্কা ছিল। কিন্তু টি ২০ ফরম্যাটে যে দল নির্দিষ্ট দিনে ভালো করবে, তারাই জিতবে।’ তিনি বলেন, ‘এখন আমরা চাপমুক্ত।

এখন ভালোভাবে খেলতে পারব। এই ফরম্যাটে দ্রুত ফর্মে ফিরে আসা সহজ নয়। সৌভাগ্যবশত আমি ব্যাটিং অর্ডারে আগে সুযোগ পাচ্ছি। আমি একটু ক্লান্ত। গত পাঁচ-ছয় মাস বিরতিহীন ক্রিকেট খেলছি, এটা আমার জন্য একটি দীর্ঘ মৌসুম। তবে আশা করছি ভালোভাবে টুর্নামেন্টটা শেষ করতে পারব।’

ব্যাটে-বলে দুর্দান্ত সাকিব

 ক্রীড়া প্রতিবেদক 
২২ অক্টোবর ২০২১, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

ব্যাটে-বলে দারুণ সব কীর্তিতে ২০১৯ ওয়ানডে বিশ্বকাপ রাঙিয়েছিলেন সাকিব আল হাসান। এবারের টি ২০ বিশ্বকাপের আগে ব্যাটিংয়ে ছিলেন না ছন্দে।

কিন্তু টুর্নামেন্ট শুরু হতেই এই বাঁ-হাতি অলরাউন্ডার ফিরে পেলেন নিজেকে। প্রথম ম্যাচে স্কটল্যান্ডের বিপক্ষে গড়েছিলেন টি ২০’র সফলতম বোলারের কীর্তি।

বৃহস্পতিবার পাপুয়া নিউগিনির বিপক্ষে প্রথম রাউন্ডে নিজেদের শেষ ম্যাচে গড়লেন আরেক রেকর্ড। ২০ ওভারের বিশ্বকাপে পাকিস্তানের শহিদ আফ্রিদির সঙ্গে এখন যৌথভাবে সর্বোচ্চ উইকেট শিকারি বাংলাদেশের রেকর্ডের বরপুত্র সাকিব।

পাপুয়া নিউগিনির বিপক্ষে কাল নয় রানে চার উইকেট নিয়ে এই রেকর্ড গড়েন তিনি। টি ২০ বিশ্বকাপে সাকিব ও আফ্রিদির উইকেট এখন ৩৯টি করে।

এই রেকর্ডে আফ্রিদির লেগেছিল ৩৪ ম্যাচ, সাকিব সেটা ২৮ ম্যাচেই ছুঁয়ে ফেললেন। ওমানের পর পাপুয়া নিউগিনির বিপক্ষে ম্যাচসেরা হয়ে এবারের বিশ্বকাপেও সাকিব বড় কিছুর আভাস দিয়ে রাখলেন।

সাকিবের দুর্দান্ত বোলিংয়ে পাপুয়া নিউগিনি মাত্র ৯৭ রানে গুটিয়ে যায়। এর আগে বাংলাদেশ করে সাত উইকেটে ১৮১ রান। সাকিব করেছিলেন ৪৬। ৮৪ রানের জয়টি টি ২০তে রানের হিসাবে বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় জয়। তিন ম্যাচের দুটিতেই ম্যাচসেরা হলেন সাকিব।

নয় রানে চার উইকেট-টি ২০ বিশ্বকাপে তার সেরা বোলিং। আসরের প্রথম ম্যাচে স্কটিশদের বিপক্ষে দুই উইকেট নিয়ে টি ২০তে আগের সর্বোচ্চ উইকেট শিকারি লাসিথ মালিঙ্গাকে ছাড়িয়ে যান।

পরের ম্যাচে নেন তিন উইকেট। সেই ধারাবাহিকতায় এবার নিলেন চারটি। গড়লেন আরেকটি রেকর্ড। দেশের হয়ে টি ২০তে সাকিবের উইকেট এখন ১১১টি।

ম্যাচসেরা পুরস্কার হাতে কাল সাকিব বলেন, ‘আমরা যে খেলাটি খেলছি, তা আমাদের আরও আত্মবিশ্বাসী করে তুলবে। প্রথম ম্যাচে হার স্পষ্টতই একটি ধাক্কা ছিল। কিন্তু টি ২০ ফরম্যাটে যে দল নির্দিষ্ট দিনে ভালো করবে, তারাই জিতবে।’ তিনি বলেন, ‘এখন আমরা চাপমুক্ত।

এখন ভালোভাবে খেলতে পারব। এই ফরম্যাটে দ্রুত ফর্মে ফিরে আসা সহজ নয়। সৌভাগ্যবশত আমি ব্যাটিং অর্ডারে আগে সুযোগ পাচ্ছি। আমি একটু ক্লান্ত। গত পাঁচ-ছয় মাস বিরতিহীন ক্রিকেট খেলছি, এটা আমার জন্য একটি দীর্ঘ মৌসুম। তবে আশা করছি ভালোভাবে টুর্নামেন্টটা শেষ করতে পারব।’

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন