টিম ম্যানেজমেন্টেও পরিবর্তন দরকার: গাজী আশরাফ হোসেন
jugantor
ক্রিকেটে টাইগারদের দুর্দশা
টিম ম্যানেজমেন্টেও পরিবর্তন দরকার: গাজী আশরাফ হোসেন

  ক্রীড়া প্রতিবেদক  

২৪ নভেম্বর ২০২১, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

টি ২০ বিশ্বকাপে ভরাডুবির পর পাকিস্তানের বিপক্ষে তিন ম্যাচের টি ২০ সিরিজেও ধবলধোলাই হয়েছেন মাহমুদউল্লাহরা। বাংলাদেশ দলের হতশ্রী পারফরম্যান্স নিয়ে সমালোচনা হচ্ছে সর্বত্র। অনেকে প্রশ্ন তুলছেন দলের সামর্থ্য নিয়ে। কেউ দোষ দিচ্ছেন টিম ম্যানেজমেন্টকে।

পাকিস্তানের সাবেক অধিনায়ক শহিদ আফ্রিদি মন্থর উইকেটে খেলে বাংলাদেশের বিশ্বকাপের প্রস্তুতি নেওয়া নিয়েও সমালোচনা করেছেন। আরেক সাবেক পাকিস্তানি ইনজামাম-উল-হক জানিয়েছেন, বাংলাদেশে নতুন ক্রিকেটার উঠে আসছে না। মাশরাফি মুর্তজাসহ অনেকেই প্রশ্ন তুলছেন প্রক্রিয়া নিয়ে।

সাবেক অধিনায়ক গাজী আশরাফ হোসেন লিপু মনে করছেন, টিম ম্যানেজমেন্ট ও নির্বাচক প্যানেলে পরিবর্তন দরকার। পাকিস্তানের বিপক্ষে টি ২০ সিরিজে একঝাঁক নতুন মুখ নিয়ে সামনে এগোনোর পরিকল্পনা করেছিল বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। বাজে পারফরম্যান্স ও ইনজুরির কারণে অনেক নিয়মিত ক্রিকেটার পাকিস্তানের বিপক্ষে সুযোগ পাননি। আগামী বছর টি ২০ বিশ্বকাপের কথা মাথায় রেখে এখন থেকেই নতুন ক্রিকেটার খুঁজে পাওয়ার চেষ্টা করছে বিসিবি। পাকিস্তানের বিপক্ষে প্রাপ্তি ও পরবর্তী পরিকল্পনা নিয়ে গাজী আশরাফ হোসেন বলেন, ‘এই সিরিজে কিছু দেখার ছিল। পরীক্ষা-নিরীক্ষা করেছে বিসিবি। কিছু খেলোয়াড়কে দিয়ে চেষ্টা করেছে। নির্বাচক প্যানেলেও পরিবর্তন আসবে হয়তো। এখানে পরিবর্তন দরকার। অনেকদিন ধরেই এই কমিটি রয়েছে। আগামী ১০ বছরের পরিকল্পনা করতে হলে সেভাবেই নতুন করে সব সাজাতে হবে।’ তিনি বলেন, ‘অবশ্যই যারা আসবে তাদের নিচের স্তর থেকে সব ক্রিকেটারকে চেনা লাগবে। যারা এসবের সঙ্গে যুক্ত রয়েছেন তাদের আসতে হবে। ভালো ক্রিকেটার তুলে আনতে হলে আগে দেখতে হবে ঘরোয়া ক্রিকেটে কারা ভালো করছে, হাতে কেমন ক্রিকেটার আছে, সম্ভাব্য কত খেলোয়াড় আছে-এগুলো নিয়ে ভাবতে হবে। সেভাবেই বিশ্লেষণ করতে হবে।’

পাকিস্তানের বিপক্ষে বাংলাদেশ ৩-০তে হোয়াইটওয়াশ হওয়ার পর ইনজামাম বলেন, ‘আমি যদি বাংলাদেশের দিক থেকে চিন্তা করি, তাদের দুই-তিনজন পুরোনো খেলোয়াড় খেলেনি। তবু তারা নিজেদের উইকেট ভালো করেনি। তাদের নতুন খেলোয়াড় আসা বন্ধ হয়ে গেছে।’

পাকিস্তানের সাবেক অধিনায়ক ভুল কিছু বলেননি। গত কয়েক বছরে অনেক নতুন ক্রিকেটারের অভিষেক হয়েছে। কিন্তু দীর্ঘ মেয়াদে বাংলাদেশের হাল ধরতে পারেন এমন ক্রিকেটার খুঁজে পাওয়া যায়নি। বারবার প্রশ্ন উঠছে টিম ম্যানেজমেন্টের কার্যক্রম নিয়েও। সিরিজ শুরুর আগের দিন থেকে শুরু করে শেষ দিন পর্যন্ত মাহমুদউল্লাহ বেশ কয়েকবার নানা প্রশ্নে বলেছেন, ‘টিম ম্যানেজমেন্ট জানে’, ‘টিম ম্যানেজমেন্ট বলতে পারবে।’ অধিনায়ক হিসাবে তারও টিম ম্যানেজমেন্টের অংশ হওয়ার কথা। তবে তার কথায় ধরে নেওয়া যায়, এই সিরিজে তিনি তা ছিলেন না। তাহলে যারা ছিলেন, তাদের ভূমিকা কী? গাজী আশরাফ হোসেন বলেন, ‘টিম ম্যানেজমেন্টে পরিবর্তন আসার দরকার আছে। ম্যানেজমেন্ট, খেলোয়াড়দের মধ্যে সুস্থ পরিবেশের দরকার। এখানে সবার মধ্যে ভালো সম্পর্ক জরুরি, কথা চালাচালি ভালো কিছু হতে পারে না।’ তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশ দল এখন একটা পরিবর্তনের মধ্যে দিয়ে যাচ্ছে। এমন পরিস্থিতি সব দলেই আসে। সাকিব-তামিমরা কয়েক বছরের মধ্যে চলে যাবে। সেখানে একটু গভীরভাবে ভাবা উচিত ছিল। বড় দলগুলো হয়তো পাঁচ বছর আগে ভাবত। আমাদের প্রেক্ষাপটে আরও তিন বছর আগে থেকে চিন্তা করতে হতো। পরিস্থিতি মেনে নিয়ে এগোতে হবে।’

ক্রিকেটে টাইগারদের দুর্দশা

টিম ম্যানেজমেন্টেও পরিবর্তন দরকার: গাজী আশরাফ হোসেন

 ক্রীড়া প্রতিবেদক 
২৪ নভেম্বর ২০২১, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

টি ২০ বিশ্বকাপে ভরাডুবির পর পাকিস্তানের বিপক্ষে তিন ম্যাচের টি ২০ সিরিজেও ধবলধোলাই হয়েছেন মাহমুদউল্লাহরা। বাংলাদেশ দলের হতশ্রী পারফরম্যান্স নিয়ে সমালোচনা হচ্ছে সর্বত্র। অনেকে প্রশ্ন তুলছেন দলের সামর্থ্য নিয়ে। কেউ দোষ দিচ্ছেন টিম ম্যানেজমেন্টকে।

পাকিস্তানের সাবেক অধিনায়ক শহিদ আফ্রিদি মন্থর উইকেটে খেলে বাংলাদেশের বিশ্বকাপের প্রস্তুতি নেওয়া নিয়েও সমালোচনা করেছেন। আরেক সাবেক পাকিস্তানি ইনজামাম-উল-হক জানিয়েছেন, বাংলাদেশে নতুন ক্রিকেটার উঠে আসছে না। মাশরাফি মুর্তজাসহ অনেকেই প্রশ্ন তুলছেন প্রক্রিয়া নিয়ে।

সাবেক অধিনায়ক গাজী আশরাফ হোসেন লিপু মনে করছেন, টিম ম্যানেজমেন্ট ও নির্বাচক প্যানেলে পরিবর্তন দরকার। পাকিস্তানের বিপক্ষে টি ২০ সিরিজে একঝাঁক নতুন মুখ নিয়ে সামনে এগোনোর পরিকল্পনা করেছিল বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। বাজে পারফরম্যান্স ও ইনজুরির কারণে অনেক নিয়মিত ক্রিকেটার পাকিস্তানের বিপক্ষে সুযোগ পাননি। আগামী বছর টি ২০ বিশ্বকাপের কথা মাথায় রেখে এখন থেকেই নতুন ক্রিকেটার খুঁজে পাওয়ার চেষ্টা করছে বিসিবি। পাকিস্তানের বিপক্ষে প্রাপ্তি ও পরবর্তী পরিকল্পনা নিয়ে গাজী আশরাফ হোসেন বলেন, ‘এই সিরিজে কিছু দেখার ছিল। পরীক্ষা-নিরীক্ষা করেছে বিসিবি। কিছু খেলোয়াড়কে দিয়ে চেষ্টা করেছে। নির্বাচক প্যানেলেও পরিবর্তন আসবে হয়তো। এখানে পরিবর্তন দরকার। অনেকদিন ধরেই এই কমিটি রয়েছে। আগামী ১০ বছরের পরিকল্পনা করতে হলে সেভাবেই নতুন করে সব সাজাতে হবে।’ তিনি বলেন, ‘অবশ্যই যারা আসবে তাদের নিচের স্তর থেকে সব ক্রিকেটারকে চেনা লাগবে। যারা এসবের সঙ্গে যুক্ত রয়েছেন তাদের আসতে হবে। ভালো ক্রিকেটার তুলে আনতে হলে আগে দেখতে হবে ঘরোয়া ক্রিকেটে কারা ভালো করছে, হাতে কেমন ক্রিকেটার আছে, সম্ভাব্য কত খেলোয়াড় আছে-এগুলো নিয়ে ভাবতে হবে। সেভাবেই বিশ্লেষণ করতে হবে।’

পাকিস্তানের বিপক্ষে বাংলাদেশ ৩-০তে হোয়াইটওয়াশ হওয়ার পর ইনজামাম বলেন, ‘আমি যদি বাংলাদেশের দিক থেকে চিন্তা করি, তাদের দুই-তিনজন পুরোনো খেলোয়াড় খেলেনি। তবু তারা নিজেদের উইকেট ভালো করেনি। তাদের নতুন খেলোয়াড় আসা বন্ধ হয়ে গেছে।’

পাকিস্তানের সাবেক অধিনায়ক ভুল কিছু বলেননি। গত কয়েক বছরে অনেক নতুন ক্রিকেটারের অভিষেক হয়েছে। কিন্তু দীর্ঘ মেয়াদে বাংলাদেশের হাল ধরতে পারেন এমন ক্রিকেটার খুঁজে পাওয়া যায়নি। বারবার প্রশ্ন উঠছে টিম ম্যানেজমেন্টের কার্যক্রম নিয়েও। সিরিজ শুরুর আগের দিন থেকে শুরু করে শেষ দিন পর্যন্ত মাহমুদউল্লাহ বেশ কয়েকবার নানা প্রশ্নে বলেছেন, ‘টিম ম্যানেজমেন্ট জানে’, ‘টিম ম্যানেজমেন্ট বলতে পারবে।’ অধিনায়ক হিসাবে তারও টিম ম্যানেজমেন্টের অংশ হওয়ার কথা। তবে তার কথায় ধরে নেওয়া যায়, এই সিরিজে তিনি তা ছিলেন না। তাহলে যারা ছিলেন, তাদের ভূমিকা কী? গাজী আশরাফ হোসেন বলেন, ‘টিম ম্যানেজমেন্টে পরিবর্তন আসার দরকার আছে। ম্যানেজমেন্ট, খেলোয়াড়দের মধ্যে সুস্থ পরিবেশের দরকার। এখানে সবার মধ্যে ভালো সম্পর্ক জরুরি, কথা চালাচালি ভালো কিছু হতে পারে না।’ তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশ দল এখন একটা পরিবর্তনের মধ্যে দিয়ে যাচ্ছে। এমন পরিস্থিতি সব দলেই আসে। সাকিব-তামিমরা কয়েক বছরের মধ্যে চলে যাবে। সেখানে একটু গভীরভাবে ভাবা উচিত ছিল। বড় দলগুলো হয়তো পাঁচ বছর আগে ভাবত। আমাদের প্রেক্ষাপটে আরও তিন বছর আগে থেকে চিন্তা করতে হতো। পরিস্থিতি মেনে নিয়ে এগোতে হবে।’

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : বাংলাদেশ-পাকিস্তান সিরিজ ঢাকা ২০২১