সব দেশকে ডব্লিউএইচও’র সতর্কবার্তা
jugantor
ওমিক্রন ঢেউ
সব দেশকে ডব্লিউএইচও’র সতর্কবার্তা
ডেলটার চেয়ে ৩ গুণ সংক্রামক * ৩-৬ মাসে সারা বিশ্বে ছড়ানোর আশঙ্কা

  যুগান্তর ডেস্ক  

০৪ ডিসেম্বর ২০২১, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

বিশ্বজুড়ে ওমিক্রন ধরন থেকে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ দ্রুত বৃদ্ধির প্রেক্ষাপটে সব দেশকে প্রস্তুত থাকতে হবে বলে সতর্ক করেছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)। সংস্থাটি বলেছে, এই মুহূর্তে যে খবর পাওয়া যাচ্ছে, প্রকৃত চিত্র তার চেয়েও ভয়াবহ- ‘ভৌগোলিকভাবে তা ইতোমধ্যেই অনেক বেশি ছড়িয়েছে।’

এদিকে দক্ষিণ আফ্রিকার বিজ্ঞানীরা বলেছেন, ডেলটা ধরনের চেয়ে ওমিক্রনের পুনরায় সংক্রমিত করার ক্ষমতা তিন গুণ বেশি। আর যুক্তরাষ্ট্রের পাঁচ রাজ্যে নতুন ধরন ছড়িয়ে পড়ায় মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন করোনা-সংক্রান্ত কঠোর ভ্রমণবিধি প্রকাশ করেছেন।

এছাড়া চিকিৎসা বিজ্ঞানীরা বলছেন, ওমিক্রন ধরনটি ৩ থেকে ৬ মাসের মধ্যে বিশ্বে আধিপত্য বিস্তার করবে।

ডব্লিউএইচও’র আঞ্চলিক পরিচালক ড. তাকেশি কাসাই শুক্রবার ফিলিপাইনের রাজধানী ম্যানিলা থেকে এক ভার্চুয়াল সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের বলেন, ‘সীমান্ত নিয়ন্ত্রণ ভাইরাসটির আগমন বিলম্বিত করতে পারে এবং সময় পাওয়া যেতে পারে।

তবে প্রত্যেক দেশ এবং প্রতিটি জনগোষ্ঠীকে নতুন করে আক্রান্ত বাড়ার বিষয়ে অবশ্যই প্রস্তুত থাকতে হবে। ধরনটি অনেক বেশি পরিবর্তিত হয়েছে। প্রাথমিক তথ্যে দেখা যাচ্ছে অন্য ধরনের চেয়ে বেশি সংক্রামক হতে পারে।

ওমিক্রন ধরন থেকে করোনা সংক্রমণের নতুন ঢেউ আসার সম্ভাবনার জন্য সব দেশকে তৈরি থাকতে হবে উল্লেখ করে ড. কাসাই বলেন, ডেল্টা ধরন মোকাবিলায় যেসব পদক্ষেপ নেওয়া হয় এবং যে অভিজ্ঞতা অর্জন করা গেছে সেগুলো ওমিক্রনের ক্ষেত্রেও কার্যকর।

তিনি বলেন, প্রতিটি দেশ যেন তাদের নিজস্ব ঝুঁকি বিবেচনায় নিয়ে বর্তমান পদক্ষেপগুলো জোরদার করে, যেমন: মাস্ক পরা, দূরত্ব বজায় রাখা, হাত ধোয়া, জনসমাগম এড়িয়ে চলা, সংক্রমিতদের ট্রেস করা, আক্রান্তদের আইসোলেশনে রাখা এবং টিকাদান অব্যাহত রাখা। ড. কাসাই স্কুল খোলা রাখার ঝুঁকিগুলো মূল্যায়ন করে যথাযথ ব্যবস্থা নেবার ওপরও জোর দিয়েছেন।

ডেলটার চেয়ে ৩ গুণ সংক্রামক : ওমিক্রন ধরন নিয়ে প্রাথমিক একটি গবেষণা প্রকাশ করেছেন দক্ষিণ আফ্রিকার বিজ্ঞানীরা। সেখানে দেখা গেছে, ডেলটা ও বেটা ধরনের তুলনায় ওমিক্রনের পুনরায় সংক্রমিত করার ক্ষমতা তিন গুণ বেশি।

এ ছাড়া পূর্বে করোনায় আক্রান্ত ব্যক্তির শরীরে গড়ে ওঠা প্রতিরোধব্যবস্থা ভেঙে দেওয়ার সক্ষমতা ওমিক্রনের রয়েছে। স্থানীয় সময় বৃহস্পতিবার গবেষণাটি প্রকাশ করা হয়।

নতুন গবেষণাটি চালানো হয়েছে দক্ষিণ আফ্রিকার স্বাস্থ্য বিভাগের সংগ্রহ করা তথ্যের ভিত্তিতে। দক্ষিণ আফ্রিকার গবেষণাটিকে ‘উচ্চমানের’ বলে আখ্যায়িত করেছেন যুক্তরাজ্যের সাউদাম্পটন বিশ্ববিদ্যালয়ের বিজ্ঞানী মাইকেল হেড। তিনি বলেন, গবেষণায় যা উঠে এসেছে, তা খুবই উদ্বেগের।

যুক্তরাষ্ট্রে কঠোর বিধিনিষেধ : শীতে কোভিডের দাপট বাড়তে পারে শঙ্কায় এখন থেকেই প্রস্তুতি নিতে বলেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। করোনা মোকাবিলায় মার্কিন প্রশাসনের কৌশল জানাতে গিয়ে বৃহস্পতিবার তিনি এ কথা বলেন।

যুক্তরাষ্ট্রে এখন পর্যন্ত যে ৫টি রাজ্যে ওমিক্রন শনাক্ত হয়েছে তার মধ্যে নিউইয়র্কেই ৫ জনের দেহে এই অতি সংক্রামক ধরনটি মিলেছে। ক্যালিফোর্নিয়া, কলোরাডো ও মিনেসোটায় যে রোগীদের দেহে ওমিক্রন পাওয়া গেছে, তারা সবাই টিকার সব ডোজ নিয়েছিলেন এবং তাদের মধ্যে মৃদু উপসর্গ দেখা গেছে।

হাওয়াইতে যে একজনের দেহে ওমিক্রন শনাক্ত হয়েছে, তিনি টিকা নেননি, তার উপসর্গ মাঝারি মাত্রার। যুক্তরাষ্ট্রে ওমিক্রনের বিস্তার ঠেকাতে যেসব পদক্ষেপ নেওয়ার পরিকল্পনা করা হচ্ছে, তার মধ্যে ‘শাটডাউন’ বা ‘লকডাউন’ নেই বলে জানিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট।

নতুন নিয়ম অনুযায়ী, সব আন্তর্জাতিক যাত্রীকে যুক্তরাষ্ট্রে রওয়ানার আগে ২৪ ঘণ্টার মধ্যে করোনা পরীক্ষা করতে হবে। উড়োজাহাজ, ট্রেন ও বাসে মাস্ক পরার প্রয়োজনীয়তা আগামী বছরের মার্চ পর্যন্ত বাড়াবে বাইডেন প্রশাসন।

৩-৬ মাসে বিশ্বে ছড়াবে : সিঙ্গাপুরভিত্তিক সংক্রামক রোগের চিকিৎসকরা বলছেন, আগামী কয়েক মাসে করোনাভাইরাসের নতুন ধরন ওমিক্রন সারা বিশ্বে ছড়িয়ে পড়বে এবং আধিপত্য বিস্তার করতে পারে।

মাউন্টি এলিজাবেথ নোভেনা হসপিটালের ডা. লিওং হোয়ে নাম বলেছেন, যখন করোনার এই ধরনের জন্য টিকা তৈরি করা হবে, সেই টিকা ওমিক্রন প্রতিরোধ করতে পারা কিংবা না পারার বিষয়টি পরীক্ষা করে দেখতে আরও তিন থেকে ছয় মাস লেগে যাবে।

তিনি আরও বলেছেন, ওমিক্রন তিন থেকে ছয় মাসের মধ্যে সারা বিশ্বে আচ্ছন্ন হয়ে ছড়িয়ে পড়বে এবং আধিপত্য বিস্তার লাভ করবে।

প্রতি বছর টিকা নিতে হবে : মানুষের আগামী বহু বছর ধরে প্রতি বছর কোভিডের টিকা নেওয়ার প্রয়োজন হতে পারে বলে জানিয়েছেন ওষুধ কোম্পানি ফাইজারের প্রধান ড. আলবার্ট বুর্লা।

তিনি বলেন, ‘খুবই উঁচু মাত্রার সুরক্ষা’ নিশ্চিত করতে প্রতি বছর টিকা নেওয়ার প্রয়োজন হবে। তিনি আরও বলেন, ওমিক্রন ধরনের বিরুদ্ধে টিকা কার্যকর করার কাজ এখন তারা করছেন এবং আগামী ১০০ দিনের মধ্যে তাদের টিকা হালনাগাদ করার কাজ শেষ হবে।

মালয়েশিয়ায় শনাক্ত, নেপালে সতর্কতামূলক ব্যবস্থা : মালয়েশিয়ায় ওমিক্রন শনাক্ত হওয়া শিক্ষার্থী গত ১৯ নভেম্বর দক্ষিণ আফ্রিকা থেকে মালয়েশিয়া আসেন। দেশটির স্বাস্থ্যমন্ত্রী খাইরি জামালউদ্দিন এসব তথ্য জানিয়েছেন।

এর আগে বুধবার আফ্রিকার আট দেশের ওপর ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা জারি করে মালয়েশিয়া। পাশাপাশি বলা হয়, নতুন করে যেসব দেশে ওমিক্রন শনাক্ত হবে, সে দেশগুলোকে নিষেধাজ্ঞার আওতায় আনা হতে পারে।

ওমিক্রনের ঝুঁকির মুখে দেশের অভ্যন্তরেও নানা সতর্কতামূলক ব্যবস্থা নিয়েছে নেপাল সরকার। খুব জরুরি প্রয়োজন ছাড়া লোকজনকে দেশত্যাগ না করার আহ্বান জানানো হয়েছে।

পাশাপাশি বিদেশ ভ্রমণের আগে বাধ্যতামূলকভাবে অনুমতি নিতে হবে সরকারি কর্মচারীদের। এদিকে অস্ট্র্রেলিয়ায় স্থানীয়ভাবে করোনার ওমিক্রন ধরনে সংক্রমিত এক রোগী শনাক্ত হয়েছে।

শুক্রবার অস্ট্রেলিয়া কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, সিডনিতে এক স্কুলশিক্ষার্থী ওমিক্রনে আক্রান্ত হয়েছে। দেশটিতে এর আগে বিদেশফেরতদের মধ্যে ওমিক্রন শনাক্ত হলেও স্থানীয়ভাবে সংক্রমিত হওয়ার ঘটনা এটিই প্রথম।

ওমিক্রন ঢেউ

সব দেশকে ডব্লিউএইচও’র সতর্কবার্তা

ডেলটার চেয়ে ৩ গুণ সংক্রামক * ৩-৬ মাসে সারা বিশ্বে ছড়ানোর আশঙ্কা
 যুগান্তর ডেস্ক 
০৪ ডিসেম্বর ২০২১, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

বিশ্বজুড়ে ওমিক্রন ধরন থেকে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ দ্রুত বৃদ্ধির প্রেক্ষাপটে সব দেশকে প্রস্তুত থাকতে হবে বলে সতর্ক করেছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)। সংস্থাটি বলেছে, এই মুহূর্তে যে খবর পাওয়া যাচ্ছে, প্রকৃত চিত্র তার চেয়েও ভয়াবহ- ‘ভৌগোলিকভাবে তা ইতোমধ্যেই অনেক বেশি ছড়িয়েছে।’

এদিকে দক্ষিণ আফ্রিকার বিজ্ঞানীরা বলেছেন, ডেলটা ধরনের চেয়ে ওমিক্রনের পুনরায় সংক্রমিত করার ক্ষমতা তিন গুণ বেশি। আর যুক্তরাষ্ট্রের পাঁচ রাজ্যে নতুন ধরন ছড়িয়ে পড়ায় মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন করোনা-সংক্রান্ত কঠোর ভ্রমণবিধি প্রকাশ করেছেন।

এছাড়া চিকিৎসা বিজ্ঞানীরা বলছেন, ওমিক্রন ধরনটি ৩ থেকে ৬ মাসের মধ্যে বিশ্বে আধিপত্য বিস্তার করবে। 

ডব্লিউএইচও’র আঞ্চলিক পরিচালক ড. তাকেশি কাসাই শুক্রবার ফিলিপাইনের রাজধানী ম্যানিলা থেকে এক ভার্চুয়াল সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের বলেন, ‘সীমান্ত নিয়ন্ত্রণ ভাইরাসটির আগমন বিলম্বিত করতে পারে এবং সময় পাওয়া যেতে পারে।

তবে প্রত্যেক দেশ এবং প্রতিটি জনগোষ্ঠীকে নতুন করে আক্রান্ত বাড়ার বিষয়ে অবশ্যই প্রস্তুত থাকতে হবে। ধরনটি অনেক বেশি পরিবর্তিত হয়েছে। প্রাথমিক তথ্যে দেখা যাচ্ছে অন্য ধরনের চেয়ে বেশি সংক্রামক হতে পারে।

ওমিক্রন ধরন থেকে করোনা সংক্রমণের নতুন ঢেউ আসার সম্ভাবনার জন্য সব দেশকে তৈরি থাকতে হবে উল্লেখ করে ড. কাসাই বলেন, ডেল্টা ধরন মোকাবিলায় যেসব পদক্ষেপ নেওয়া হয় এবং যে অভিজ্ঞতা অর্জন করা গেছে সেগুলো ওমিক্রনের ক্ষেত্রেও কার্যকর।

তিনি বলেন, প্রতিটি দেশ যেন তাদের নিজস্ব ঝুঁকি বিবেচনায় নিয়ে বর্তমান পদক্ষেপগুলো জোরদার করে, যেমন: মাস্ক পরা, দূরত্ব বজায় রাখা, হাত ধোয়া, জনসমাগম এড়িয়ে চলা, সংক্রমিতদের ট্রেস করা, আক্রান্তদের আইসোলেশনে রাখা এবং টিকাদান অব্যাহত রাখা। ড. কাসাই স্কুল খোলা রাখার ঝুঁকিগুলো মূল্যায়ন করে যথাযথ ব্যবস্থা নেবার ওপরও জোর দিয়েছেন। 

ডেলটার চেয়ে ৩ গুণ সংক্রামক : ওমিক্রন ধরন নিয়ে প্রাথমিক একটি গবেষণা প্রকাশ করেছেন দক্ষিণ আফ্রিকার বিজ্ঞানীরা। সেখানে দেখা গেছে, ডেলটা ও বেটা ধরনের তুলনায় ওমিক্রনের পুনরায় সংক্রমিত করার ক্ষমতা তিন গুণ বেশি।

এ ছাড়া পূর্বে করোনায় আক্রান্ত ব্যক্তির শরীরে গড়ে ওঠা প্রতিরোধব্যবস্থা ভেঙে দেওয়ার সক্ষমতা ওমিক্রনের রয়েছে। স্থানীয় সময় বৃহস্পতিবার গবেষণাটি প্রকাশ করা হয়।

নতুন গবেষণাটি চালানো হয়েছে দক্ষিণ আফ্রিকার স্বাস্থ্য বিভাগের সংগ্রহ করা তথ্যের ভিত্তিতে। দক্ষিণ আফ্রিকার গবেষণাটিকে ‘উচ্চমানের’ বলে আখ্যায়িত করেছেন যুক্তরাজ্যের সাউদাম্পটন বিশ্ববিদ্যালয়ের বিজ্ঞানী মাইকেল হেড। তিনি বলেন, গবেষণায় যা উঠে এসেছে, তা খুবই উদ্বেগের।

যুক্তরাষ্ট্রে কঠোর বিধিনিষেধ : শীতে কোভিডের দাপট বাড়তে পারে শঙ্কায় এখন থেকেই প্রস্তুতি নিতে বলেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। করোনা মোকাবিলায় মার্কিন প্রশাসনের কৌশল জানাতে গিয়ে বৃহস্পতিবার তিনি এ কথা বলেন।

যুক্তরাষ্ট্রে এখন পর্যন্ত যে ৫টি রাজ্যে ওমিক্রন শনাক্ত হয়েছে তার মধ্যে নিউইয়র্কেই ৫ জনের দেহে এই অতি সংক্রামক ধরনটি মিলেছে। ক্যালিফোর্নিয়া, কলোরাডো ও মিনেসোটায় যে রোগীদের দেহে ওমিক্রন পাওয়া গেছে, তারা সবাই টিকার সব ডোজ নিয়েছিলেন এবং তাদের মধ্যে মৃদু উপসর্গ দেখা গেছে।

হাওয়াইতে যে একজনের দেহে ওমিক্রন শনাক্ত হয়েছে, তিনি টিকা নেননি, তার উপসর্গ মাঝারি মাত্রার। যুক্তরাষ্ট্রে ওমিক্রনের বিস্তার ঠেকাতে যেসব পদক্ষেপ নেওয়ার পরিকল্পনা করা হচ্ছে, তার মধ্যে ‘শাটডাউন’ বা ‘লকডাউন’ নেই বলে জানিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট।

নতুন নিয়ম অনুযায়ী, সব আন্তর্জাতিক যাত্রীকে যুক্তরাষ্ট্রে রওয়ানার আগে ২৪ ঘণ্টার মধ্যে করোনা পরীক্ষা করতে হবে। উড়োজাহাজ, ট্রেন ও বাসে মাস্ক পরার প্রয়োজনীয়তা আগামী বছরের মার্চ পর্যন্ত বাড়াবে বাইডেন প্রশাসন।

৩-৬ মাসে বিশ্বে ছড়াবে : সিঙ্গাপুরভিত্তিক সংক্রামক রোগের চিকিৎসকরা বলছেন, আগামী কয়েক মাসে করোনাভাইরাসের নতুন ধরন ওমিক্রন সারা বিশ্বে ছড়িয়ে পড়বে এবং আধিপত্য বিস্তার করতে পারে।

মাউন্টি এলিজাবেথ নোভেনা হসপিটালের ডা. লিওং হোয়ে নাম বলেছেন, যখন করোনার এই ধরনের জন্য টিকা তৈরি করা হবে, সেই টিকা ওমিক্রন প্রতিরোধ করতে পারা কিংবা না পারার বিষয়টি পরীক্ষা করে দেখতে আরও তিন থেকে ছয় মাস লেগে যাবে।

তিনি আরও বলেছেন, ওমিক্রন তিন থেকে ছয় মাসের মধ্যে সারা বিশ্বে আচ্ছন্ন হয়ে ছড়িয়ে পড়বে এবং আধিপত্য বিস্তার লাভ করবে। 

প্রতি বছর টিকা নিতে হবে : মানুষের আগামী বহু বছর ধরে প্রতি বছর কোভিডের টিকা নেওয়ার প্রয়োজন হতে পারে বলে জানিয়েছেন ওষুধ কোম্পানি ফাইজারের প্রধান ড. আলবার্ট বুর্লা।

তিনি বলেন, ‘খুবই উঁচু মাত্রার সুরক্ষা’ নিশ্চিত করতে প্রতি বছর টিকা নেওয়ার প্রয়োজন হবে। তিনি আরও বলেন, ওমিক্রন ধরনের বিরুদ্ধে টিকা কার্যকর করার কাজ এখন তারা করছেন এবং আগামী ১০০ দিনের মধ্যে তাদের টিকা হালনাগাদ করার কাজ শেষ হবে। 

মালয়েশিয়ায় শনাক্ত, নেপালে সতর্কতামূলক ব্যবস্থা : মালয়েশিয়ায় ওমিক্রন শনাক্ত হওয়া শিক্ষার্থী গত ১৯ নভেম্বর দক্ষিণ আফ্রিকা থেকে মালয়েশিয়া আসেন। দেশটির স্বাস্থ্যমন্ত্রী খাইরি জামালউদ্দিন এসব তথ্য জানিয়েছেন।

এর আগে বুধবার আফ্রিকার আট দেশের ওপর ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা জারি করে মালয়েশিয়া। পাশাপাশি বলা হয়, নতুন করে যেসব দেশে ওমিক্রন শনাক্ত হবে, সে দেশগুলোকে নিষেধাজ্ঞার আওতায় আনা হতে পারে।

ওমিক্রনের ঝুঁকির মুখে দেশের অভ্যন্তরেও নানা সতর্কতামূলক ব্যবস্থা নিয়েছে নেপাল সরকার। খুব জরুরি প্রয়োজন ছাড়া লোকজনকে দেশত্যাগ না করার আহ্বান জানানো হয়েছে।

পাশাপাশি বিদেশ ভ্রমণের আগে বাধ্যতামূলকভাবে অনুমতি নিতে হবে সরকারি কর্মচারীদের। এদিকে অস্ট্র্রেলিয়ায় স্থানীয়ভাবে করোনার ওমিক্রন ধরনে সংক্রমিত এক রোগী শনাক্ত হয়েছে।

শুক্রবার অস্ট্রেলিয়া কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, সিডনিতে এক স্কুলশিক্ষার্থী ওমিক্রনে আক্রান্ত হয়েছে। দেশটিতে এর আগে বিদেশফেরতদের মধ্যে ওমিক্রন শনাক্ত হলেও স্থানীয়ভাবে সংক্রমিত হওয়ার ঘটনা এটিই প্রথম।
 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন