সাকিবকে ঘিরেই আশা ঘুরে দাঁড়ানোর
jugantor
ঢাকা টেস্ট আজ শুরু
সাকিবকে ঘিরেই আশা ঘুরে দাঁড়ানোর

  জ্যোতির্ময় মণ্ডল  

০৪ ডিসেম্বর ২০২১, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়াম থেকে মিরপুর শেরেবাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামের দূরত্ব ২৫০ কিলোমিটার। আধুনিক যুগে সামান্য দূরত্ব। তবে বাংলাদেশের টপঅর্ডার ব্যাটে-বলে দূরত্ব কতটা কমাতে পারবে সেটাই ভাববার বিষয়। পাকিস্তানের পেসারদের মোকাবিলা করার জন্য মানসিক ও টেকনিক্যাল দূরত্ব কমানোর চেষ্টার কোনো ত্রুটি রাখেননি সাদমান ইসলামরা। তবে নেটে অনুশীলন দেখে খুব বেশি আস্থা রাখার সাহস পাচ্ছে না টিম ম্যানেজমেন্ট। চট্টগ্রাম টেস্টে বাংলাদেশ ইনিংসের প্রথম ঘণ্টাতেই হারের বীজ বোনা হয়ে যায়। মিরপুরেও প্রথম ঘণ্টাকে গুরুত্বপূর্ণ বললেন অধিনায়ক মুমিনুল হক। দ্বিতীয় টেস্টে স্বাগতিক শিবিরে কিছুটা আশার প্রদীপ জ্বালাচ্ছেন সাকিব আল হাসান। এই অভিজ্ঞ অলরাউন্ডার দলে ফেরায় ভালো কিছুর স্বপ্ন দেখছেন মুমিনুল। তাসকিন আহমেদের একাদশে ফেরা নিয়ে কিছুটা সংশয় রয়েছে। অভিষেক হতে পারে মাহমুদুল হাসান জয়ের। একাদশে পরিবর্তন এনে বাংলাদেশ ঘুরে দাঁড়ানোর স্বপ্ন দেখছে। টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের প্রথম জয়ের সঙ্গে সিরিজ ১-১ করা লক্ষ্য স্বাগতিকদের।

মিরপুরে দুদিন ধরে অনুশীলন করলেও দলের কাছে যেতে পারছিলেন না সাকিব। বৃহস্পতিবার এক ঘণ্টা অনুশীলনের পর করোনা নেগেটিভ ফল পেয়ে দলের সঙ্গে যোগ দেন এই বাঁ-হাতি অলরাউন্ডার। সাকিবের উপস্থিতি দলের মধ্যে অনুপ্রেরণা হিসাবে কাজ করেছে। সাকিব ফেরায় একাদশে একটি পরিবর্তন নিশ্চিত ছিল। সাইফ হাসান টাইফয়েডে আক্রান্ত হওয়ায় দল থেকে বেরিয়ে গেছেন। সাদমানের সঙ্গে ওপেনিংয়ে নাজমুল হোসেন শান্ত খেলবেন, না অভিষেক হবে মাহমুদুল হাসান জয়ের? অধিনায়ক জানিয়েছেন, চার বোলার ও সাত ব্যাটার নিয়ে মাঠে নামবে বাংলাদেশ। এছাড়া ব্যাটিংয়ে ডান-হাতি-বাঁ-হাতি কম্বিনেশনের কথাও চিন্তা করা হবে। সাকিব ফেরায় একটা অপশন বেশি পাচ্ছে টিম ম্যানেজমেন্ট। সেক্ষেত্রে এক পেসার নিয়েও খেলতে পারে দল। দ্বিতীয় টেস্টে তাসকিনকে পাওয়ার আশা করেছিল স্বাগতিকরা। তবে আজ সকাল পর্যন্ত তার অবস্থা দেখতে চায় টিম ম্যানেজমেন্ট। যদিও অধিনায়কের কথায় বেরিয়ে এলো তাসকিনকে নিউজিল্যান্ডের জন্য ভাবা হচ্ছে। একজন বাঁ-হাতি স্পিনার খেলানোর পরিকল্পনা থাকলে তাইজুল ইসলামের বাদ যাওয়ার কথা। কিন্তু আগের টেস্টে তাইজুলই বাংলাদেশকে ম্যাচে রেখেছিলেন। সেক্ষেত্রে মেহেদী হাসান মিরাজকে বাইরে যেতে হতে পারে। এক পেসার খেললে আবু জায়েদকে বাইরে রেখে একাদশ সাজানোর কাজ সহজ করতে চাইবে স্বাগতিকরা। তবে দ্বিতীয় টেস্ট মুমিনুল কিছুটা সহজ দেখছেন সাকিব ফেরায়। অধিনায়ক বলেন, ‘সাকিব দলে থাকলে কাজটা সহজ হয়। এখন পর্যন্ত তার সবকিছু ঠিকঠাক আছে। সাকিব আসায় আমরা চার বোলার, সাত ব্যাটসম্যান নিয়ে মাঠে নামার চিন্তা করছি।’ ব্যাটিংয়ে লিটন দাস ও মুশফিকুর রহিম দৃঢ় মানসিকতার পরিচয় দিয়েছেন। তাদের দুজনের ব্যাটে প্রথম ইনিংসে বড় স্কোর পায় স্বাগতিকরা। উইকেটকিপার-ব্যাটার হিসাবে এ বছর দ্বিতীয় সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক লিটন।

উপমহাদেশের বাইরের দলগুলো এখানে খেলতে এলে স্পিন সহায়ক উইকেট তৈরি করে বিসিবি। কিন্তু পাকিস্তানের বিপক্ষে ফ্লাট উইকেট প্রত্যাশা করছেন বাংলাদেশ অধিনায়ক। উইকেটে ঘাস নেই। এমন উইকেটে শাহিন শাহ আফ্রিদি-হাসান আলী জুটি নতুন বলে ফায়দা তুলে নিতে চাইবে। বাংলাদেশ সফরে বাবর আজম অনেকটাই ব্যর্থ। ঢাকায় আসার পর তিনি বাড়তি অনুশীলন করেছেন। পাকিস্তানকে নিয়ে বাংলাদেশের মাথাব্যথার কারণ তাদের দুই ওপেনার। প্রথম টেস্টে তারাই ব্যবধান গড়ে দিয়েছেন। আবিদ আলী দুই ইনিংসে করেছেন ২২৪ রান। অভিষেকে আবদুল্লাহ শফিক হাফ সেঞ্চুরি করেন। দ্বিতীয় টেস্টেও তাদের অপরিবর্তিত একাদশ নিয়ে মাঠে নামার সম্ভাবনাই বেশি। কাল ম্যাচ-পূর্ব সংবাদ সম্মেলনে শাহিন আফ্রিদি বলেন, ‘মোমেন্টাম খুব ভালো আছে, দলের কম্বিনেশনও দারুণ। ছেলেরা দ্বিতীয় টেস্টের জন্য প্রস্তুত। অবশ্যই লড়াই করে ভালোভাবে শেষ করব। সিরিজ জিতে ফিরব।’ এই টেস্টে বৃষ্টি বাগড়া দিতে পারে।

ঢাকা টেস্ট আজ শুরু

সাকিবকে ঘিরেই আশা ঘুরে দাঁড়ানোর

 জ্যোতির্ময় মণ্ডল 
০৪ ডিসেম্বর ২০২১, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়াম থেকে মিরপুর শেরেবাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামের দূরত্ব ২৫০ কিলোমিটার। আধুনিক যুগে সামান্য দূরত্ব। তবে বাংলাদেশের টপঅর্ডার ব্যাটে-বলে দূরত্ব কতটা কমাতে পারবে সেটাই ভাববার বিষয়। পাকিস্তানের পেসারদের মোকাবিলা করার জন্য মানসিক ও টেকনিক্যাল দূরত্ব কমানোর চেষ্টার কোনো ত্রুটি রাখেননি সাদমান ইসলামরা। তবে নেটে অনুশীলন দেখে খুব বেশি আস্থা রাখার সাহস পাচ্ছে না টিম ম্যানেজমেন্ট। চট্টগ্রাম টেস্টে বাংলাদেশ ইনিংসের প্রথম ঘণ্টাতেই হারের বীজ বোনা হয়ে যায়। মিরপুরেও প্রথম ঘণ্টাকে গুরুত্বপূর্ণ বললেন অধিনায়ক মুমিনুল হক। দ্বিতীয় টেস্টে স্বাগতিক শিবিরে কিছুটা আশার প্রদীপ জ্বালাচ্ছেন সাকিব আল হাসান। এই অভিজ্ঞ অলরাউন্ডার দলে ফেরায় ভালো কিছুর স্বপ্ন দেখছেন মুমিনুল। তাসকিন আহমেদের একাদশে ফেরা নিয়ে কিছুটা সংশয় রয়েছে। অভিষেক হতে পারে মাহমুদুল হাসান জয়ের। একাদশে পরিবর্তন এনে বাংলাদেশ ঘুরে দাঁড়ানোর স্বপ্ন দেখছে। টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের প্রথম জয়ের সঙ্গে সিরিজ ১-১ করা লক্ষ্য স্বাগতিকদের।

মিরপুরে দুদিন ধরে অনুশীলন করলেও দলের কাছে যেতে পারছিলেন না সাকিব। বৃহস্পতিবার এক ঘণ্টা অনুশীলনের পর করোনা নেগেটিভ ফল পেয়ে দলের সঙ্গে যোগ দেন এই বাঁ-হাতি অলরাউন্ডার। সাকিবের উপস্থিতি দলের মধ্যে অনুপ্রেরণা হিসাবে কাজ করেছে। সাকিব ফেরায় একাদশে একটি পরিবর্তন নিশ্চিত ছিল। সাইফ হাসান টাইফয়েডে আক্রান্ত হওয়ায় দল থেকে বেরিয়ে গেছেন। সাদমানের সঙ্গে ওপেনিংয়ে নাজমুল হোসেন শান্ত খেলবেন, না অভিষেক হবে মাহমুদুল হাসান জয়ের? অধিনায়ক জানিয়েছেন, চার বোলার ও সাত ব্যাটার নিয়ে মাঠে নামবে বাংলাদেশ। এছাড়া ব্যাটিংয়ে ডান-হাতি-বাঁ-হাতি কম্বিনেশনের কথাও চিন্তা করা হবে। সাকিব ফেরায় একটা অপশন বেশি পাচ্ছে টিম ম্যানেজমেন্ট। সেক্ষেত্রে এক পেসার নিয়েও খেলতে পারে দল। দ্বিতীয় টেস্টে তাসকিনকে পাওয়ার আশা করেছিল স্বাগতিকরা। তবে আজ সকাল পর্যন্ত তার অবস্থা দেখতে চায় টিম ম্যানেজমেন্ট। যদিও অধিনায়কের কথায় বেরিয়ে এলো তাসকিনকে নিউজিল্যান্ডের জন্য ভাবা হচ্ছে। একজন বাঁ-হাতি স্পিনার খেলানোর পরিকল্পনা থাকলে তাইজুল ইসলামের বাদ যাওয়ার কথা। কিন্তু আগের টেস্টে তাইজুলই বাংলাদেশকে ম্যাচে রেখেছিলেন। সেক্ষেত্রে মেহেদী হাসান মিরাজকে বাইরে যেতে হতে পারে। এক পেসার খেললে আবু জায়েদকে বাইরে রেখে একাদশ সাজানোর কাজ সহজ করতে চাইবে স্বাগতিকরা। তবে দ্বিতীয় টেস্ট মুমিনুল কিছুটা সহজ দেখছেন সাকিব ফেরায়। অধিনায়ক বলেন, ‘সাকিব দলে থাকলে কাজটা সহজ হয়। এখন পর্যন্ত তার সবকিছু ঠিকঠাক আছে। সাকিব আসায় আমরা চার বোলার, সাত ব্যাটসম্যান নিয়ে মাঠে নামার চিন্তা করছি।’ ব্যাটিংয়ে লিটন দাস ও মুশফিকুর রহিম দৃঢ় মানসিকতার পরিচয় দিয়েছেন। তাদের দুজনের ব্যাটে প্রথম ইনিংসে বড় স্কোর পায় স্বাগতিকরা। উইকেটকিপার-ব্যাটার হিসাবে এ বছর দ্বিতীয় সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক লিটন।

উপমহাদেশের বাইরের দলগুলো এখানে খেলতে এলে স্পিন সহায়ক উইকেট তৈরি করে বিসিবি। কিন্তু পাকিস্তানের বিপক্ষে ফ্লাট উইকেট প্রত্যাশা করছেন বাংলাদেশ অধিনায়ক। উইকেটে ঘাস নেই। এমন উইকেটে শাহিন শাহ আফ্রিদি-হাসান আলী জুটি নতুন বলে ফায়দা তুলে নিতে চাইবে। বাংলাদেশ সফরে বাবর আজম অনেকটাই ব্যর্থ। ঢাকায় আসার পর তিনি বাড়তি অনুশীলন করেছেন। পাকিস্তানকে নিয়ে বাংলাদেশের মাথাব্যথার কারণ তাদের দুই ওপেনার। প্রথম টেস্টে তারাই ব্যবধান গড়ে দিয়েছেন। আবিদ আলী দুই ইনিংসে করেছেন ২২৪ রান। অভিষেকে আবদুল্লাহ শফিক হাফ সেঞ্চুরি করেন। দ্বিতীয় টেস্টেও তাদের অপরিবর্তিত একাদশ নিয়ে মাঠে নামার সম্ভাবনাই বেশি। কাল ম্যাচ-পূর্ব সংবাদ সম্মেলনে শাহিন আফ্রিদি বলেন, ‘মোমেন্টাম খুব ভালো আছে, দলের কম্বিনেশনও দারুণ। ছেলেরা দ্বিতীয় টেস্টের জন্য প্রস্তুত। অবশ্যই লড়াই করে ভালোভাবে শেষ করব। সিরিজ জিতে ফিরব।’ এই টেস্টে বৃষ্টি বাগড়া দিতে পারে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন