একরাম হত্যার তদন্ত শুরু, অডিও জোগাড় হচ্ছে : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

প্রকাশ : ০৪ জুন ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

  যুগান্তর রিপোর্ট

মাদকবিরোধী অভিযানে টেকনাফের পৌর কাউন্সিলর একরামুল হক কথিত বন্দুকযুদ্ধে নিহত হওয়ার আগে তার সঙ্গে টেলিফোনে ‘শেষ কথোপকথনের’ যে অডিও রেকর্ড প্রকাশিত হয়েছে তা ‘সংগ্রহ করা হচ্ছে’ বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল।

তিনি বলেছেন, ‘অডিও রেকর্ডটি আনাচ্ছি, জোগাড় হচ্ছে। আমাদের একজন ম্যাজিস্ট্রেট এটি তদন্ত করে দেখছে।’

রোববার সকালে সিদ্ধেশ্বরীতে স্টামফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফতরের জনসচেতনতা বিষয়ক এক অনুষ্ঠানে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, ‘কোনো হত্যা বা অ্যাক্সিডেন্ট আমাদের তদন্তের বাইরে নয়। সব হত্যার বিষয়ে তদন্ত হবে। যেখানে যা দরকার সেটা করা হবে।’

মাদক নির্মূলে গত মাস থেকে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর চলমান অভিযানে শতাধিক মানুষের মৃত্যু হয়েছে, যাকে বিচারবহির্ভূত হত্যাকাণ্ড বলছেন মানবাধিকারকর্মীরা। তাদের সমালোচনার মুখেও সরকারের কর্তাব্যক্তিরা এই অভিযান অব্যাহত রাখার ঘোষণা দিয়ে আসছেন।

এর মধ্যেই টেকনাফের যুবলীগ নেতা ও ওয়ার্ড কাউন্সিলর একরামের পরিবার অভিযোগ তুলেছে, তাকে ধরে নিয়ে হত্যা করা হয়েছে। বক্তব্যের সপক্ষে মৃত্যুর আগে একরামের সঙ্গে টেলি কথোপকথনের একটি অডিও টেপ প্রকাশ করেছে তার পরিবার, যা নিয়ে চলছে তুমুল আলোচনা।

দেশের শীর্ষস্থানীয় লেখক, অধ্যাপক, কবি ও সাংস্কৃতিক কর্মীরাও কথিত বন্দুকযুদ্ধে প্রাণহানিকে ‘বিচারবহির্ভূত হত্যাকাণ্ড’ আখ্যায়িত করে বলেছেন, মাদকবিরোধী অভিযানে মানুষের সমর্থন আছে, কিন্তু এমন মৃত্যু কখনই গ্রহণযোগ্য নয়।

স্টামফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের অনুষ্ঠানে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘অভিযানে কেউ নিহত হোক এটি আমাদের কাম্য নয়। আমাদের উদ্দেশ্য হল মাদকের ভয়াবহতা থেকে সবাইকে সরিয়ে আনা। যতদিন না দেশ থেকে মাদক নির্মূল হবে, ততদিন মাদক চোরাকারবারিদের তালিকা হালনাগাদ হতে থাকবে এবং অভিযানও চলবে।’

তিনি বলেন, ‘যুব সমাজকে বাঁচাতে হবে। মেধা নষ্ট হতে দেয়া যাবে না। সে জন্যই মাদকের বিরুদ্ধে সর্বাÍক যুদ্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। এই যুদ্ধে আমাদের জয়ী হতেই হবে।’

অনুষ্ঠানে বেলুন উড়িয়ে দেশব্যাপী মাদকবিরোধী ফেস্টুন বিতরণ ও উদ্বুদ্ধকরণ কর্মসূচির উদ্বোধন করেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী।

স্টামফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক মুহম্মদ আলী নকীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সুরক্ষা সেবা বিভাগের সচিব ফরিদ উদ্দিন আহম্মদ চৌধুরী, প্রাইভেট ইউনিভার্সিটি ওনার্স অ্যাসোসিয়েশনের নির্বাহী সদস্য একেএম এনামুল হক শামীম ও বিশ্ববিদ্যালয়ের বোর্ড অব ট্রাস্টি চেয়ারম্যান ফাতিনাজ ফিরোজ বক্তব্য দেন।