যুগান্তরের সঙ্গে একান্ত সাক্ষাৎকার

ভোট কারচুপি হলে ফল হবে ভয়াবহ: হাসান সরকার

  ভ্রাম্যমাণ প্রতিনিধি, গাজীপুর থেকে ২৬ জুন ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

গাজীপুর সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে মেয়র পদে বিএনপির প্রার্থী মো. হাসান উদ্দিন সরকার
গাজীপুর সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে মেয়র পদে বিএনপির প্রার্থী মো. হাসান উদ্দিন সরকার

গাজীপুর সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে মেয়র পদে বিএনপির প্রার্থী মো. হাসান উদ্দিন সরকার বলেছেন, ভোটাররা কেন্দ্রে গিয়ে নির্ভয়ে ভোট দেয়ার সুযোগ পেলে ধানের শীষের নীরব ভোট বিপ্লব ঘটবে।

তাই যে কোনো উদ্ভূত পরিস্থিতি মোকাবেলা করে ভোটারদের কেন্দ্রে যাওয়ার আহ্বানও জানিয়েছেন তিনি। নির্বাচন সুষ্ঠু হওয়া নিয়ে শঙ্কা প্রকাশ করে হাসান সরকার বলেন, নির্বাচনে ভোট কারচুপির চেষ্টা হলে এর পরিণতি ভয়াবহ হবে।

জনগণকে সঙ্গে নিয়ে তা মোকাবেলা করব। সোমবার টঙ্গীর বাসভবনে বিএনপি প্রার্থী হাসান উদ্দিন সরকার যুগান্তরের সঙ্গে একান্ত সাক্ষাৎকারে এসব কথা বলেন।

নির্বাচনের সার্বিক পরিস্থিতি সম্পর্কে হাসান সরকার অভিযোগ করেন, গাজীপুরজুড়ে এখন আতঙ্ক বিরাজ করছে। মামলা না থাকলেও বিএনপি নেতাকর্মীদের গণগ্রেফতার করছে।

বাড়ি বাড়ি গিয়ে রামদা হাতে নিয়ে ভোটারদের ধমক দেয়া হচ্ছে। দলীয় নেতাকর্মীদের বাড়িঘর ভাংচুরও করেছে ক্ষমতাসীন দলের নেতাকর্মীরা। নির্বাচন কমিশনে এ ব্যাপারে একাধিকবার অভিযোগ জানালেও কোনো ব্যবস্থা নেয়নি।

তিনি আরও বলেন, যুবলীগ-ছাত্রলীগের ক্যাডাররা পুলিশের পোশাক পরে এরই মধ্যে নেমে পড়েছে। তারা ভোটারদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে হুমকিধমকি দিচ্ছে।

সুষ্ঠু নির্বাচন হলে জয়ী হওয়ার ব্যাপারে শতভাগ আশাবাদ ব্যক্ত করে হাসান সরকার বলেন, সুষ্ঠু ভোট হলে গাজীপুরে ধানের শীষে নীরব ভোট বিপ্লব ঘটবে। গাজীপুরের মাটিতে আমার জন্ম।

যখন বাংলাদেশে মাত্র ২১টি পৌরসভা ছিল, তখন আমি পরপর দু’বার পৌরসভার চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছি। শিল্প এলাকায় শ্রমিকদের ভোটে নির্বাচিত হওয়া কঠিন ব্যাপার।

আমাকে নির্বাচিত করলে শ্রমিকদের অধিকার আদায় করা যাবে, এটা তারা জানেন। শেষ পর্যন্ত ভোটে থাকবেন জানিয়ে বিএনপি প্রার্থী হাসান উদ্দিন সরকার বলেন, বিএনপি একটি গণতান্ত্রিক রাজনৈতিক দল। বিএনপি তিনবার ক্ষমতায় ছিল। জনগণ বিএনপির সঙ্গে আছে।

পোলিং এজেন্ট নিয়োগের বিষয়ে হাসান সরকার বলেন, গাজীপুরে খুলনার মতো হওয়ার কোনো সুযোগ নেই। গাজীপুরে তিন স্তরের পোলিং এজেন্ট রাখা হয়েছে।

প্রথম স্তরের পোলিং এজেন্ট ফেল করলে দ্বিতীয় ও তৃতীয় স্তরের পোলিং এজেন্ট থাকবে। যে কোনো ত্যাগের বিনিময়ে তারা কেন্দ্রে থাকবেন।

দলীয় নেতাকর্মীদের উদ্দেশে তিনি বলেন, সব ভয়ভীতি উপেক্ষা করে ভোট গণনা শেষ না হওয়া পর্যন্ত কেন্দ্রে অবস্থান করুন। ভোটারদের কেন্দ্রে গিয়ে ভোট দেয়ার আহ্বান জানিয়ে হাসান উদ্দিন সরকার বলেন, ভোট দেয়া ভোটারদের গণতান্ত্রিক অধিকার। আমার বিশ্বাস, যে কোনো পরিস্থিতিতেই ভোটাররা ভোট কেন্দ্রে গিয়ে ভোট দেবেন। আর ভোট কারচুপি করা হলে জনগণকে সঙ্গে নিয়ে তা মোকাবেলা করব।

ঘটনাপ্রবাহ : গাজীপুর সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন ২০১৮

 

 

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter