যেখানে হেরেছে বেলজিয়াম

  স্পোর্টস রিপোর্টার ১২ জুলাই ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

যেখানে হেরেছে বেলজিয়াম
ফাইল ছবি (এ্রএফপি)

এবারের বিশ্বকাপে সেমিফাইনাল পর্যন্ত শতভাগ জয়ের রেকর্ড ছিল শুধু বেলজিয়ামের। কিন্তু টানা পাঁচ জয়ের আত্মবিশ্বাস শেষ পর্যন্ত রক্ষাকবচ হতে পারল না হ্যাজার্ডদের। মঙ্গলবার সেমিফাইনালে ফ্রান্সের কাছে ১-০ গোলে হেরে প্রথমবারের মতো বিশ্বকাপ ফাইনালে খেলার স্বপ্ন অধরাই রয়ে গেল বেলজিয়ামের।

এর আগে একবারই বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে উঠেছিল তারা। সেটা ১৯৮৬ সালে। সেবার আর্জেন্টিনার কাছে হেরে স্বপ্নভঙ্গ হয়েছিল। এবার বিশ্বকাপজুড়ে বেলজিয়ামের সোনালি প্রজন্ম যে সোনালি ঝলক দেখাচ্ছিল, তাতে রবার্তো মার্টিনেজের দলের হাতেই শিরোপা দেখছিলেন অনেকে।

কিন্তু ফ্রান্সের তারুণ্যের গতি শেষ চারেই থামিয়ে দিল তাদের স্বপ্নযাত্রা। ব্রাজিলের বিপক্ষে কোয়ার্টার ফাইনালে ফরোয়ার্ডদের পজিশন ও কৌশল বদলে বাজিমাত করেছিল বেলজিয়াম। হ্যাজার্ড, ডি ব্রুইনদের প্লেসিং ফুটবলের জবাব জানা ছিল না নেইমারদের। সেমিতে ঠিক উল্টো অভিজ্ঞতা হল বেলজিয়ামের।

এবার ফ্রান্সের কোচ দিদিয়ের দেশমের কৌশলের কাছে হার মানতে হল তাদের। ব্রাজিলের মতো শুধু আক্রমণের মন্ত্র না জপে ঠাণ্ডা মাথায় পরিকল্পনা সাজিয়েছিলেন দেশম। পরিকল্পনাটা ছিল রক্ষণ সামলে প্রতিআক্রমণে প্রতিপক্ষকে খুন করা। ডিফেন্ডার স্যামুয়েল উমতিতির দেয়া একমাত্র গোলে সেটাই করেছে ফ্রান্স। শুরুতে বেলজিয়াম আক্রমণের ঝড় তুললেও পূর্বপ্রস্তুতি থাকায় খেই হারিয়ে ফেলেনি ফরাসি রক্ষণ।

উল্টো ধীরে ধীরে মাঝমাঠের দখল নিয়ে উড়তে থাকা বেলজিয়ামকে কৌশলে মাটিতে নামিয়ে আনে ফ্রান্স। পুরো টুর্নামেন্টে ফর্মে থাকা রোমেলু লুকাকু ও কেভিন ডি ব্রুইনকে নিষ্ক্রিয় করে বেলজিয়ামের সৃষ্টিশীলতার পায়ে শেকল পরিয়ে দেয় দিদিয়ের দেশমের দল।

বল পজেশনে অনেক এগিয়ে থাকায় বেলজিয়াম বুঝতেই পারেনি ধীরে ধীরে ম্যাচটা তাদের হাত থেকে বেরিয়ে যাচ্ছে। ৫১ মিনিটে উমতিতির গোলের পর ম্যাচে ফেরার আপ্রাণ চেষ্টা করেও ফ্রান্সের জমাট রক্ষণ ভাঙতে পারেননি লুকাকুরা। অন্যদিকে রক্ষণাত্মক কৌশলে খেললেও প্রতিআক্রমণে ঠিকই ভীতি ছড়িয়েছেন এমবাপ্পেরা।

মাত্র ৩৬ শতাংশ সময় বল দখলে রেখেও বেলজিয়ামের গোলে ১৯টি শট নিচ্ছে ফ্রান্স। যার পাঁচটিই ছিল লক্ষ্যে। বিপরীতে বেলজিয়ামের নয়টি শটের তিনটি ছিল লক্ষ্যে। এই ম্যাচের আগে ডেড বল পরিস্থিতিতে বেলজিয়ানদের দক্ষতা নিয়ে কিছুটা আতঙ্ক ছিল ফরাসি শিবিরে। অথচ সেই সেট পিসেই কপাল পুড়ল বেলজিয়ামের। হেডে করা উমতিতির গোলটির উৎস ছিল গ্রিজমানের কর্নার কিক, যা ক্লিয়ার করতে ব্যর্থ হয় বেলজিয়ামের রক্ষণ।

তবে এক্ষেত্রে নিজেদের কোনো দায় দেখছেন না বেলজিয়ামের শেষপ্রহরী থিবো কুর্তোয়া। স্বপ্নভঙ্গের বেদনায় হতাশার পোস্টার হয়ে ফ্রান্সের রক্ষণাত্মক ফুটবলকে কাঠগড়ায় তুলেছেন তিনি।

বেলজিয়ান গোলকিপারের দাবি, ফ্রান্সের জয় ফুটবলের জন্যই লজ্জার। কুর্তোয়ার ভাষায়, ‘ফ্রান্স তো খেলেইনি, ১১ জন খেলোয়াড় নিয়ে তারা শুধু আক্রমণ ঠেকিয়ে গেছে। এটা কোনো ফুটবল না। এটা হতাশার এক ম্যাচ। আমরা এমন একটি দলের কাছে হেরেছি, যারা কিছুই খেলেনি, শুধু রক্ষণ সামলেছে। জিতেছে কর্নার থেকে পাওয়া একটি গোলে। ফ্রান্সের জয় আসলে ফুটবলের জন্যই লজ্জার।’

SELECT id,hl2,parent_cat_id,entry_time,tmp_photo FROM news WHERE ((spc_tags REGEXP '.*"event";s:[0-9]+:"বিশ্বকাপ ফুটবল ২০১৮".*') AND publish = 1) AND id<>69057 ORDER BY id DESC

ঘটনাপ্রবাহ : বিশ্বকাপ ফুটবল ২০১৮

 

 

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter
.