তারেক রহমানের বিরুদ্ধে রায়ের প্রতিবাদ

রাজধানীতে বিএনপির বিক্ষোভ

  যুগান্তর রিপোর্ট ১২ অক্টোবর ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

তারেক রহমানের বিরুদ্ধে রায়ের প্রতিবাদ

একুশে আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলায় বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের বিরুদ্ধে দেয়া রায়ের প্রতিবাদে রাজধানীতে বিক্ষোভ করেছে দলটি।

কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে বৃহস্পতিবার ঢাকা মহানগর উত্তর ও দক্ষিণ বিএনপির উদ্যোগে থানায় থানায় বিক্ষোভ করা হয়।

কর্মসূচিতে কয়েকটি স্থানে পুলিশ বাধা দেয় এবং শ্যামপুর থানা বিএনপির নেতা স্বপন মিয়াসহ ১৫-১৬ জনকে গ্রেফতার করেছে বলে দাবি করেছে বিএনপি।

তারেক রহমানের বিরুদ্ধে রায়ের প্রতিবাদে সকাল ১০টায় ঢাকা মহানগর দায়রা জজ আদালত মোড় থেকে মিছিল বের করেন বিএনপির নেতাকর্মীরা।

সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভীর নেতৃত্বে এতে দলটির জাতীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য অ্যাডভোকেট নিপুণ রায় চৌধুরীসহ অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের কয়েকশ’ নেতাকর্মী অংশ নেন।

ঢাকা মহানগর উত্তর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আহসান উল্লাহ হাসানের নেতৃত্বে একটি বিক্ষোভ মিছিল হয় তেজগাঁও সাতরাস্তায়। এতে উপস্থিত ছিলেন মহানগর উত্তর বিএনপির যুগ্ম সম্পাদক তহিরুল ইসলাম তুহিন, দফতর সম্পাদক এবিএমএ রাজ্জাক, পল্লবী থানার বিএনপি সভাপতি কমিশনার সাজ্জাদ হোসেন, দারুস সালাম থানার সভাপতি হাজী আ. রহমান, তুরাগ থানা বিএনপির সভাপতি আমান উল্লাহ মেম্বার, সাধারণ সম্পাদক হারুনুর রশিদ খোকা, রূপনগর থানার সভাপতি আবদুল আউয়াল, মোহাম্মদপুর থানা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক এনায়েতুল হাফিজ, মিরপুর থানার সাধারণ সম্পাদক হাজী ওয়াজেদ উদ্দিন, রূপনগর থানা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মজিবুল হক প্রমুখ। মিছিলটি সাতরাস্তা মোড় থেকে শুরু হয়ে বিজি প্রেসে গিয়ে শেষ হয়।

মোহাম্মদপুর থানা বিএনপি টাউন হলের সামনে থেকে একটি মিছিল বের করে, যা মোহাম্মদপুর বাস স্ট্যান্ডে গিয়ে শেষ হয়। মিছিলে উপস্থিত ছিলেন মোহাম্মদপুর থানা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক এনায়েতুল হাফিজ, সাংগঠনিক সম্পাদক মিজানুর রহমান ইসহাক, দেলোয়ার হোসেন মামুন, আনোয়ার হোসেন মাসুদ, আলী কাউছার পিন্টু, কামাল হোসেন, শাওন আহাম্মেদ স্বপন, আফজাল হোসেন স্বপন প্রমুখ। উত্তরা পশ্চিম থানা বিএনপির একটি মিছিল থানার সাধারণ সম্পাদক আফাজ উদ্দিনের নেতৃত্বে অনুষ্ঠিত হয়। এ সময় থানার বিভিন্ন পর্যায়ের নেতারা উপস্থিত ছিলেন। মিরপুর, শাহআলী ও দারুস সালাম থানার উদ্যোগে একটি মিছিল এসএ সিদ্দিক সাজুর নেতৃত্বে বের করা হয়। এতে উপস্থিত ছিলেন- কেএম শাম্মী, এমএ সামাদ, সোলায়মান দেওয়ান, রিপন আহাম্মেদ, অনিক ইসলাম প্রমুখ।

শাহবাগ থানার ২০নং ওয়ার্ডের সদস্য সচিব রফিকুল ইসলাম স্বপনের নেতৃত্বে একটি মিছিল ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের গেট থেকে শুরু হয়ে গোলাপশাহ মাজার হয়ে জিরো পয়েন্ট গিয়ে শেষ হয়। মিছিলে ছিলেন বিএনপি নেতা শামসুদ্দিন ভূঁইয়া, তৌহিদুল ইসলাম বাবু, হযরত আলী, আ. রশিদ, মিজান প্রমুখ। অপর একটি মিছিল বিজয়নগর পানির ট্যাংকি হতে পল্টন মোড়ে যাওয়ার পর পুলিশের ধাওয়ায় ছত্রভঙ্গ হয়ে যায়। মিছিলে অংশ নেন শাহবাগ থানা বিএনপির নেতা মোরশেদ আলম, গোলাম সরোওয়ার অপু প্রমুখ।

রমনা থানার ১৯নং ওয়ার্ড বিএনপির উদ্যোগে একটি মিছিল মগবাজার ওয়্যারলেস মোড় থেকে শুরু হয়ে মগবাজার মোড়ে এসে শেষ হয়। এতে অংশ নেন- রমনা থানা বিএনপির নেতা হুমায়ন কবির, মহিউদ্দিন, হৃদয়, সুমন, এমএইচ মিল্লাত, এ আর ফরহাদ, বি মামুন, রিপন, জলিল প্রমুখ। বংশাল থানার একটি মিছিল থানার সভাপতি তাজউদ্দিন আহম্মেদ তাইজু ও সাধারণ সম্পাদক মামুন আহমেদের নেতৃত্বে আলুবাজার হয়ে নর্থ-সাউথ রোড প্রদক্ষিণ করে সুরিটোলা স্কুলের সামনে গিয়ে শেষ হয়। সূত্রাপুর থানা বিএনপির একটি মিছিল সূত্রাপুর থানা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক এমএ আজিজের নেতৃত্বে সিএমএম কোর্ট এলাকা থেকে শুরু হয়ে বাহাদুর শাহ পার্কে গিয়ে শেষ হয়। মিছিলে উপস্থিত ছিলেন- বিএনপি নেতা মোহন, দেলোয়ার, জন, অ্যাডভোকেট এসএম ফয়েজ, অ্যাডভোকেট এমএ সালাম সরদারসহ অঙ্গ ও সংগঠনের নেতারা।

কলাবাগান থানা বিএনপি সভাপতি সিরাজুল ইসলামে নেতৃত্বে একটি মিছিল বাংলাভিশন টিভি মোড় থেকে শুরু হয়ে পান্থপথ ফার্নিচার মার্কেটে এসে শেষ হয়। এতে অংশ নেন মনির হোসেন কামাল, মঈন-উ, কামাল হোসেন, শাহপরান, স্বপন, হিরা প্রমুখ। কামরাঙ্গীরচর থানা বিএনপির নেতা হাজী মনির হোসেন চেয়ারম্যানের নেতৃত্বে একটি মিছিল ঝাউচর চৌরাস্তা থেকে প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে ঝাউচর বেড়িবাঁধ মোড়ে এসে শেষ হয়। মিছিলে অংশ নেন হাজী আউলাদ হোসেন, আবুল কালাম আজাদ, খায়ের উদ্দিন, জাহাঙ্গীর হোসেন প্রমুখ।

শ্যামপুর থানার বিএনপির সভাপতি আ ন ম সাইফুল ইসলামের নেতৃত্বে একটি মিছিল ৮০ ফুট রোড পাইপ রাস্তা থেকে শুরু হয়ে গেণ্ডারিয়া রেল স্টেশনের সামনে যাওয়ার পর পুলিশি ধাওয়ায় ছত্রভঙ্গ হয়ে যায়। এ সময় স্বপন মিয়া নামে বিএনপির এক নেতাকে গ্রেফতার করে পুলিশ। ডেমরা থানা বিএনপির সভাপতি জয়নাল আবেদিন রতন চেয়ারম্যানের নেতৃত্বে একটি মিছিল বামুল থেকে শুরু হয়ে বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে ডেমরা ব্র্যাক সেন্টারে গিয়ে শেষ হয়। ওয়ারী থানার সাধারণ সম্পাদক মোজাম্মেল হক মুক্তোর নেতৃত্বে নবাবপুর ডিসেন্ট মার্কেট থেকে একটি মিছিল শুরু করে মদনপাল হয়ে নবাবপুর রোডে গিয়ে শেষ হয়। মিছিলে ছিলেন থানা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক গোলাম মোস্তফা সেলিম, কেএস টমাস, মাহফুজুর রহমান মনা, ইব্রাহিম, তারিক হোসেন, জাকির হোসেন, আবদুল হাই, ইমরান হোসেন, রাহাত, ডলি প্রমুখ।

মতিঝিল থানার সাংগঠনিক সম্পাদক আক্তার হোসেনের নেতৃত্বে একটি মিছিল আরামবাগ পুলিশ ফাঁড়ি থেকে শুরু হয়ে কমলাপুর বিআরটিসি বাস স্ট্যান্ডে গিয়ে শেষ হয়। মিছিলে ছিলেন বিএনপি নেতা হাজী মো. সোলেমান, কোরাইশী, রুবেল, জাহিদ, ইমন, নোমান প্রমুখ।

এছাড়া ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির চকবাজার, লালবাগ, হাজারীবাগ, মুগদা, পল্টন, নিউমার্কেট, সবুজবাগ, ধানমণ্ডি ও খিলগাঁও থানার নেতারাও বিক্ষোভ মিছিল করেন।

ঘটনাপ্রবাহ : ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter