একটি ভালো ভ্যালেন্টাইন প্ল্যানিং

  মো. রায়হান কবির ১১ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

ভ্যালেন্টাইন ডে’তে ভালোবাসা দিবস পালন করা হলেও সবার জন্য দিবসটি ভালো যায় না। এর ভেতর অন্যতম কারণ হচ্ছে অবশ্যই মানিব্যাগ। এই দিবসটি সামনে রেখে মানিব্যাগের ওপর চলে চরম অত্যাচার, যার দরুন মানিব্যাগ বেচারা এই দিবসের পরে শুকিয়ে কাঠ হয়ে যায়। তবে একটি ভালো প্ল্যানিং আপনাকে সব দিক দিয়ে ভালো রাখতে পারে। চলুন দেখি-

পোশাক পরিচ্ছেদ

ভ্যালেন্টাইন ডে’র ভালো শুরুর জন্য ভালো পোশাক খুব জরুরি। তাই সুন্দর দিনটিকে রাঙাতে আপনি রঙিন পাঞ্জাবির সঙ্গে অবশ্যই পকেট ছাড়া পায়জামা চুজ করুন। এগুলোর উপকারী দিক ধাপে ধাপে টের পাবেন।

কী উপহার দেবেন

আপনি যদি ব্যাচেলর হয়ে থাকেন, তাহলে বাজারে গিয়ে শাপলা ফুল কিনে আনুন। মাত্র একটি গোলাপের দামেই এক আঁটি শাপলা ফুল পেয়ে যাবেন। তাকে বলুন, আপনার ভালোবাসার দলিল হিসেবে শাপলা ফুল দিয়েছেন। কারণ বাংলাদেশের সব দলিলে শাপলা ফুলের ছবি থাকে।

শুরুতেই বেড়াল মারুন

অবশ্যই প্রেমিকা হাজির হওয়ার পর ডেটিংস্পটে হাজির হবেন। সেভাবেই টাইমিং সেট করুন। রিকশা বা সিএনজি অটোরিকশা নিয়ে সোজা তার সামনে থামুন এবং চিৎকার দিয়ে বলুন, পাঞ্জাবির পকেট থেকে মানিব্যাগ পড়ে গেছে! ভাড়াটা তার কাছ থেকে নিয়েই দিনের শুরু করুন। বাকি দিন নিশ্চিন্তে কাটাতে থাকুন।

কোথায় যাবেন

যেহেতু পাঞ্জাবির পকেট থেকে মানিব্যাগ পড়ে গেছে সেহেতু কাছে পিঠে কোনো খোলা ময়দানে হেঁটে যেতে পারেন গল্প করতে করতে। মোদ্দাকথা রেস্টুরেন্টে যাওয়ার ঝামেলামুক্ত থাকুন।

কী খাবেন

এখন আপনি সম্পূর্ণ তার ওপর নির্ভরশীল, তাই আবার যেন এগ্রেসিভ হয়ে উঠবেন না। সস্তা খাবার অর্ডার করুন, যেমন: বাদাম, পানি পুরি কিংবা চা। যাতে তার ওপর প্রেসার কম পড়ে। আপনি সেভ হয়েছেন এতেই সন্তুষ্ট থাকুন, মুনাফার দিকে ঝুঁকবেন না যেন!

সেলফি ও অন্যান্য

এবার আসুন সেলফি কিংবা ফটোসেশনের বিষয়ে। খাবার কিংবা ঘোরাঘুরি যেখানেই হোক না কেন, সেলফি তুলতে চলে যান বড় বড় শপিং মলে। কারণ এই প্রথম বড় শপিং মলে নিশ্চিন্তে যেতে পারছেন কারণ আপনার সঙ্গে মানিব্যাগ নেই! ফেসবুক পোস্টের জন্য ভালো ভালো শপের সামনে ছবি তোলা জরুরি। বাসায় ফিরে এসব ছবি ফেসবুকে আপলোড দিন। কেউ টেরই পাবে না দিনটি আপনারা কীভাবে কাটিয়েছেন।

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

 

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৮৪১৯২১১-৫, রিপোর্টিং : ৮৪১৯২২৮, বিজ্ঞাপন : ৮৪১৯২১৬, ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৭, সার্কুলেশন : ৮৪১৯২২৯। ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৮, ৮৪১৯২১৯, ৮৪১৯২২০

E-mail: [email protected], [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter