ইনফিনিটি ওয়্যার দেখতে না পেরে

সম্প্রতি ‘ইনফিনিটি ওয়্যার’ মুভিটি নিয়ে রীতিমতো লঙ্কাকাণ্ড চলছে। ছবিটি দেখার জন্য দর্শকদের মধ্যে বিরাজ করছে তুমুল উত্তেজনা। সময়মতো টিকিট সংগ্রহ করতে গিয়ে গলদঘর্ম হচ্ছেন অনেকে। সবমিলিয়ে ‘ইনফিনিটি ওয়্যার’-এর পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া জানাচ্ছেন মেহেদী হাসান গালিব

  যুগান্তর ডেস্ক    ০৬ মে ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

* ইনফিনিটি ওয়্যারের টিকিট সংগ্রহে ব্যর্থ হওয়ায় শত শত প্রেমিক হারিয়েছে তাদের প্রেমিকাকে। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক প্রেমিকা জানায়, ‘যে পুরুষ সামান্য একটা টিকিট সংগ্রহ করতে পারে না, সে আবার কিসের পুরুষ? বিয়ের পর তো সে ঠিকমতো বাজারটাও করতে পারবে না।’ এ ঘটনায় প্রেমিক সম্প্রদায় দুইটা দলে বিভক্ত হয়ে গিয়েছে। তাদের একদলের ভাষ্য, ‘সামান্য একটা মুভি আমার ভালোবাসাটাই শেষ করে দিল! আমার হৃদয়ের ব্যথা সখিনা বুঝল না। আমি এখন কই যাব?’ আরেকটা দল অবশ্য বেশ বুদ্ধিমান। তারা বলছে, ‘ভাগ্যিস, ইনফিনিটি ওয়্যার মুভিটা আসছিল। এর কারণেই প্রেমিকার ইনফিনিটি ভালোবাসার প্রমাণ পেয়ে গেলাম। ধন্যবাদ ইনফিনিটি ওয়্যার।’

* বক্কর সাহেবের স্ত্রী যখন জানতে পারলেন বক্কর সাহেব ইনফিনিটি ওয়্যারের টিকিট সংগ্রহ করতে পারেননি, তিনি সঙ্গে সঙ্গেই রান্নাঘরে মূর্ছা গেলেন! গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জানা গিয়েছে যে বক্কর সাহেব এতে মনে মনে বেশ খুশিই হয়েছেন। কারণ তার স্ত্রী আজ তরমুজের বিচিভর্তা দিয়ে নুডলসের চচ্চড়ি রান্না করছিলেন। এর মাঝেই হঠাৎ করে কাজের বুয়া এসে বাংলা ছবির জিপিএ-৫ পাওয়া নায়কের মতো করে দৌড়ে এসে চিৎকার করে জানালো যে পাশের বাড়ির কলিমুদ্দিন সাহেব ঠিকই ইনফিনিটি ওয়্যারের টিকিট সংগ্রহ করে ফেলেছেন। এ কথা শোনামাত্র বক্কর সাহেবের স্ত্রী চড়াত করে উঠে বসে কিছুক্ষণের জন্য এদিক-ওদিক তাকিয়ে আবার ধপাস করে পড়ে গেলেন।

* উঠতি বয়সী এক যুবক ইনফিনিটি ওয়্যারের টিকিট না পেয়ে গলায় দড়ি দিয়ে আত্মহত্যা করার প্রস্তুতি নিচ্ছিল। কিন্তু দড়ি ছিঁড়ে যাওয়ায় মেঝেতে পড়ে গিয়ে তার হাত-পা ভেঙে যায়। এতে ক্ষুব্ধ হয়ে ওঠে যুবকের বন্ধুরা। তারা লাঠিসোটা নিয়ে হাজির হয় দড়ির দোকানে। সেখানে গিয়ে তারা জানতে পারে দোকানদার তার প্রেমিকার সঙ্গে ইনফিনিটি ওয়্যার দেখতে গিয়েছে। অতঃপর রাগে-ক্ষোভে তারা দোকানের তালার ফুটা মাটি দিয়ে বন্ধ করে দেয়, যাতে সেখানে আর চাবি ঢুকানো না যায়।

* একদল মুভিপ্রেমিক ইনফিনিটি ওয়্যার দেখতে না পারার শোকে এ জীবনে আর কোনো মুভি দেখবেন না বলে সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। এমন সিদ্ধান্তে দেশ-বিদেশের ডিরেক্টরদের মুখে নেমে এসেছে চিন্তার কালো ছায়া।

* ইনফিনিটি ওয়্যার দেখতে না পারার বেদনায় রীতিমতো কবি হয়ে গিয়েছে আমাদের পাড়ার নগেন। সে ঘোষণা দিয়েছে সামনের বইমেলায় সে একটি কবিতার বই বের করবে। বইয়ের নাম হবে ‘ইনফিনিটি ওয়্যার না পারিনু দেখিতে’।

আরও পড়ুন
pran
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
bestelectronics

mans-world

 

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter
.