লক্ষ্য নতুন বাজেট

সংশোধন হচ্ছে এমটিবিএফ

অর্থ মন্ত্রণালয়ের পরিপত্র জারি : ২৪ জানুয়ারির মধ্যে অর্থ বিভাগ ও পরিকল্পনা কমিশনে জমা দেয়ার নির্দেশ এমটিবিএফ আর্থিক স্বচ্ছতার একটি মাপকাঠিও- ড. শামসুল আলম

  হামিদ-উজ-জামান ০২ জানুয়ারি ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

লক্ষ্য নতুন বাজেট
লক্ষ্য নতুন বাজেট

আগামী ২০১৯-২০ অর্থবছরের জাতীয় বাজেটকে সামনে রেখে সংশোধন বা হালনাগাদ করা হচ্ছে মধ্যমেয়াদি বাজেট কাঠামো (এমটিবিএফ)। এই কাঠামো হচ্ছে, এমন একটি পদ্ধতি যার মাধ্যমে এক বছরের বাজেট বরাদ্দ এবং তার পরবর্তী বছরের বাজেটে কী ধরনের বরাদ্দ থাকবে তা নির্ধারণ করা হয়।

দুটি লক্ষ্য নিয়ে এটি সংশোধন করা হচ্ছে। এগুলো হল, সরকারি ব্যয়ের দক্ষতা ও কার্যকারিতা বৃদ্ধি করা এবং সরকারের কৌশলগত লক্ষ্য ও উদ্দেশ্যগুলো অর্জন নিশ্চিত করা। গত ৯ ডিসেম্বর মন্ত্রণালয় ও বিভাগগুলোর জন্য একটি বাজেট পরিপত্র-১ জারি করে এমটিবিএফ সংশোধন বা হালনাগাদের নির্দেশনা দেয়া হয়েছে।

এক্ষেত্রে বলা হয়েছে আগামী ২৪ জানুয়ারির মধ্যে মন্ত্রণালয় বা বিভাগ এবং অন্যান্য প্রতিষ্ঠানের বাজেট কাঠামো অর্থ বিভাগের সংশ্লিষ্ট অনুবিভাগ এবং পরিকল্পনা কমিশনের বিভিন্ন বিভাগে পাঠানো বলা হয়েছে।

এ পরিপ্রেক্ষিতে গত ২৬ ডিসেম্বর পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের বিভিন্ন বিভাগ ও সংশ্লিষ্ট অন্যান্য প্রতিষ্ঠানের এমটিবিএফ সংশোধনের নির্দেশনা নিয়েছে পরিকল্পনা কমিশন। এতে মঙ্গলবার ২ জানুয়ারির মধ্যে পরিকল্পনা বিভাগের তথ্য পাঠানোর তাগিদ দেয়া হয়েছে।

অর্থ মন্ত্রালয়ের পরিপত্রে বলা হয়েছে আগামী ২৪ জানুয়ারির মধ্যে মন্ত্রণালয় ও বিভাগ এবং অন্যান্য প্রতিষ্ঠানের বাজেট সংশোধিত কাঠামো অর্থ বিভাগের সংশ্লিষ্ট অনুবিভাগ এবং পরিকল্পনা কমিশনের কার্যক্রম বিভাগ, সাধারণ অর্থনীতি বিভাগ এবং পরিকল্পনা কমিশনের সংশ্লিষ্ট সেক্টর ডিভিশনে পাঠাতে হবে।

এ নির্দেশনা মেনে বাজেট কাঠামো পাঠানোর জন্য সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয় ও বিভাগের সচিব এবং মুখ্য হিসাবরক্ষণ কর্মকর্তাকে বিশেষভাবে অনুরোধ করা হয়েছে। এ প্রসঙ্গে এর আগে সাধারণ অর্থনীতি বিভাগের (জিইডি) সদস্য (সিনিয়র সচিব) ড. শামসুল আলম যুগান্তরকে বলেছিলেন, এমটিবিএফ করা হয়েছিল আর্থিক খাতের শৃঙ্খলা ও সঠিক ব্যয় বিন্যাসের জন্য। কিন্তু সেটি কতটা সফল হয়েছে সে বিষয়ে একটি মূল্যায়ন হওয়া উচিত।

তবে বর্তমান দেশের অগ্রগতি এবং উন্নয়ন চাহিদার পরিপ্রেক্ষিতে সংশোধন বা হালনাগাদকরণের উদ্যোগটি ভালো হয়েছে। তিনি আরও বলেন, যেহেতু অনেক মেগা প্রকল্প গ্রহণ এবং বাস্তবায়ন করা হচ্ছে। তাছাড়া প্রতিবছর বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচির (এডিপি) আকারও অনেক বাড়ছে সেক্ষেত্রে এমটিবিএফ আর্থিক শৃঙ্খলা নিশ্চিত করে। এটি আর্থিক স্বচ্ছতার একটি মাপকাঠিও।

অর্থ মন্ত্রণালয়ের পরিপত্রে বলা হয়েছে, সরকারি ব্যয়ের দক্ষতা ও কার্যকারিতা বৃদ্ধি এবং সরকারের কৌশলগত লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য অর্জন নিশ্চিত করতে মধ্যমেয়াদি পদ্ধতিতে বাজেট কাঠামো প্রণয়ন করা হয়েছে। এ প্রক্রিয়া তিনটি প্রধান পর্যায়ে বিভক্ত।

সেগুলো হচ্ছে, কৌশলগত পর্যায়, প্রাক্কলন পর্যায় এবং বাজেট অনুমোদন পর্যায়। কৌশলগত পর্যায়ে প্রথম ধাপে প্রশাসনিক মন্ত্রণালয় বা বিভাগ এবং অন্যান্য প্রতিষ্ঠানকে বিদ্যমান বাজেট কাঠামো হালনাগাদ করতে হবে।

পরিপত্রে উল্লেখ করা পদ্ধতি অনুসরণ করে বাজেট কাঠামো সংশোধন করে অর্থ বিভাগ এবং পরিকল্পনা কমিশনে পাঠাতে হবে। পরবর্তীতে অর্থ ও পরিকল্পনা মন্ত্রণালয় সব মন্ত্রণালয় ও বিভাগের সঙ্গে আলোচনা করে বাজেট কাঠামো চূড়ান্ত করবে।

অর্থ মন্ত্রণালয় থেকে বাজেট কাঠামো সংশোধন বা হালনাগাদ করতে যেসব প্রক্রিয়ার কথা বলা হয়েছে সেগুলো হচ্ছে, বাজেট কাঠামোর প্রথম ভাগ সংশোধন করতে হবে। রাজস্ব প্রাপ্তির প্রাথমিক লক্ষ্যমাত্রা এবং প্রাথমিক ব্যয় সীমা নির্ধারণ করতে হবে।

বাজেট ওয়ার্কিং গ্র“পের মাধ্যমে বাজেট কাঠামোর প্রথম ভাগ পরীক্ষা ও অনুমোদন করাতে হবে। অধিদফতর, অধস্তন দফতর, প্রাতিষ্ঠানিক ইউনিট বা সংস্থাকে বাজেট কাঠামোর দ্বিতীয় ভাগ তৈরির জন্য নির্দেশনা দিতে হবে, প্রাথমিক ব্যয় প্রাক্কলন ও প্রক্ষেপণ প্রণয়ন, বাজেট কাঠামোর দ্বিতীয় ভাগ পরীক্ষা ও চূড়ান্তকরণ, বাজেট কাঠামোর দ্বিতীয় ভাগ প্রশাসনিক মন্ত্রণালয়ে পাঠানো, পরিকল্পনা কমিশনের সঙ্গে পরামর্শ করতে হবে। এক্ষেত্রে বলা হয়েছে, মন্ত্রণালয়ের সামগ্রিক ব্যয় সরকারের প্রেক্ষিত পরিকল্পনা, টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা এবং সপ্তম পঞ্চবার্ষিক পরিকল্পনার সঙ্গে সামঞ্জস্যপূর্ণ হওয়া প্রয়োজন।

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×