লাফিয়ে বাড়ছে শেয়ারবাজার

ভোটের পর আট কার্যদিবসে ডিএসইএক্স বেড়েছে ৪১২ পয়েন্ট

  যুগান্তর রিপোর্ট ১১ জানুয়ারি ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

শেয়ারবাজার

শেয়ারবাজারে ছোট কোম্পানির শেয়ারের দাম বাড়ছে। নির্বাচনের পর এই বৃদ্ধির হার অস্বাভাবিক। সপ্তাহজুড়ে এই প্রবণতা ছিল। সংশ্লিষ্টরা দ্রুত মুনাফা হাতিয়ে নিতে একটি চক্র এ কাজ করছে। অন্যদিকে বৃহস্পতিবারও দেশের দুই শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) ও চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) উচ্চ লেনদেন হয়েছে। এর মধ্যে ডিএসইতে লেনদেন হয়েছে ৮৯৭ কোটি টাকা এবং সিএসইতে ৬৩ কোটি টাকা।

তবে উভয় শেয়ারবাজারেই এদিন মূল্যসূচক কিছুটা কমেছে। বৃহস্পতিবার শেষ হওয়া সপ্তাহে প্রধান বাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) প্রধান ডিএসইএক্স ২০৭ পয়েন্ট বেড়েছে। পাঁচ দিনের তিন দিনই হাজার কোটি টাকা ছাড়িয়েছে লেনদেন। তার আগের সপ্তাহে ৩০ ডিসেম্বর ভোটের পর তিন দিন লেনদেন হয় বাজারে। ওই তিন দিনে ডিএসইএক্স সূচকে যোগ হয়েছিল ২০৫ পয়েন্ট। সবমিলিয়ে ভোটের পর আট কার্যদিবসে ডিএসইএক্স বেড়েছে ৪১২ পয়েন্ট।

বিশ্লেষকরা বলছেন, নির্বাচনের পর বাজারে বিনিয়োগ বেড়েছে। বিশেষ করে প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীরা সক্রিয় হয়েছে। এর প্রভাব পড়েছে মূল্যসূচক ও বাজারমূলধনে। তাদের মতে, বাজারে মূল সমস্যা বিনিয়োগকারীদের আস্থা সংকট। এই সংকট কাটাতে না পারলে বাজার দীর্ঘ মেয়াদে ইতিবাচক হবে না।

বাজার বিশ্লেষণে দেখা গেছে, ডিএসবিইতে বৃহস্পতিবার ৩৪৬ কোম্পানির ২২ কোটি ৪৭ লাখ শেয়ার লেনদেন হয়েছে। যার মোট মূল্য ৮৯৭ কোটি ৫৭ লাখ টাকা। এর মধ্যে দাম বেড়েছে ১৪৮টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ারের, কমেছে ১৭৩টি এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ২৫টি কোম্পানির শেয়ারের দাম। ডিএসইর ব্রড সূচক আগের দিনের চেয়ে ১ পয়েন্ট কমে ৫ হাজার ৫৯৭ পয়েন্টে নেমে এসেছে। এই সূচক গত সাড়ে আট মাসের মধ্যে সর্বোচ্চ। এর আগে এর চেয়ে বেশি সূচক ছিল ২০১৮ সালের ২৬ এপ্রিল সেদিন সূচক ছিল ৫ হাজার ৮১৩ দশমিক ৮০ পয়েন্ট। ভোটের আগে ১৭ ডিসেম্বর থেকে পুঁজিবাজারে সূচক অল্প অল্প বাড়তে শুরু করে। ভোটের পর লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে সূচক। বৃহস্পতিবার ডিএসই ৩০ মূল্যসূচক আগের দিনের চেয়ে দশমিক ৬২ পয়েন্ট বেড়ে ২ হাজার ১১ পয়েন্টে উন্নীত হয়েছে। ডিএসই শরীয়াহ সূচক আগের দিনের চেয়ে ২ দশমিক ৬৭ পয়েন্ট বেড়ে ১ হাজার ৩১৮ পয়েন্টে উন্নীত হয়েছে। ডিএসই সিএসইর বাজারমূলধন আগের দিনের চেয়ে বেড়ে ৪ লাখ ১০ হাজার কোটি টাকায় উন্নীত হয়েছে।

সিএসই : চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে বৃহস্পতিবার ২৬৪টি প্রতিষ্ঠানের ১ কোটি ২১ লাখ শেয়ার লেনদেন হয়েছে। যার মোট মূল্য ৩৩ কোটি ২ লাখ টাকা। এর মধ্যে দাম বেড়েছে ১০৭টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ারের, কমেছে ১৪০টি এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ১৭টি কোম্পানির শেয়ারের দাম। সিএসইর সার্বিক মূল্যসূচক আগের দিনের চেয়ে ১৩ পয়েন্ট কমে ১৭ হাজার ৭৬৫ পয়েন্টে নেমে এসেছে। সিএসই ৩০ মূল্যসূচক আগের দিনের চেয়ে ২০ পয়েন্ট বেড়ে ১৫ হাজার ৫০৯ পয়েন্টে উন্নীত হয়েছে। সিএসইর বাজারমূলধন আগের দিনের চেয়ে বেড়ে ৩ লাখ ৩৯ হাজার কোটি টাকায় উন্নীত হয়েছে।

শীর্ষ দশ কোম্পানি : ডিএসইতে বৃস্পতিবার যেসব প্রতিষ্ঠানের শেয়ার বেশি লেনদেন হয়েছে সেগুলো হল- জেএমআই সিরিঞ্জ, বিবিএস ক্যাবল, অলিম্পিক ইন্ডাস্ট্রিজ, শেফার্ড ইন্ডাস্ট্রিজ, প্যারামাউন্ট টেক্সটাইল, অ্যাক্টিভ ফাইন কেমিক্যাল, শাহজিবাজার পাওয়ার, ব্র্যাক ব্যাংক লিমিটেড, নাহি অ্যালুমিনিয়াম এবং সিঙ্গার বাংলাদেশ।

বৃহস্পতিবার ডিএসইতে যেসব কোম্পানির শেয়ারের দাম বেশি বেড়েছে সেগুলো হল- প্রাইম লাইফ, প্যারামাউন্ট ইন্স্যুরেন্স, ঢাকা ইন্স্যুরেন্স, মুন্নু সিরামিক, অগ্রণী ইন্স্যুরেন্স, সোনালি আঁশ, ফেডারেল ইন্স্যুরেন্স, নাহি অ্যালুমিনিয়াম, শেফার্ড ইন্ডাস্ট্রিজ এবং আলহাজ্ব টেক্সটাইল।

অন্যদিকে যেসব কোম্পানির শেয়ারের দাম বেশি কমেছে সেগুলো হল- পিপলস লিজিং অ্যান্ড ফাইন্যান্সিয়াল সার্ভিস, পপুলার লাইফ ফাস্ট মিউচুয়াল ফান্ড, মেঘনা সিমেন্ট, প্রাইম ফাইন্যান্স, রহিম টেক্সটাইল, পিএইচপি ফাস্ট মিউচুয়াল ফান্ড, কাশেম ইন্ডাস্ট্রিজ, আনোয়ার গ্যালভানাইজিং, ইসলামী ব্যাংক শরীয়াহ ফান্ড এবং ফিনিক্স ফাইন্যান্স।

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter
×