বিআইবিএমের পর্যালোচনা প্রতিবেদন

ব্যাংকের ট্রেজারি কার্যক্রম সন্তোষজনক

  যুগান্তর রিপোর্ট ০৭ মে ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

ট্রেজারি

বিদায়ী বছরে (২০১৮ সাল) ট্রেজারি কার্যক্রম সন্তোষজনক ছিল। ট্রেজারি সংক্রান্ত বিভিন্ন সূচক লিকুইডিটি, ফরেন এক্সচেঞ্জ, এডি রেশিও, মূলধন সংরক্ষণের ক্ষেত্রে অধিকাংশ ব্যাংকের ট্রেজারি বিভাগ ছিল সফল। যা ব্যাংকের ঝুঁকি কমাতে সাহায্য করেছে।

সোমবার রাজধানীর মিরপুরে বিআইবিএম অডিটোরিয়ামে ‘ট্রেজারি অপারেশনস অব ব্যাংকস’ শীর্ষক বার্ষিক পর্যালোচনা কর্মশালায় উপস্থাপিত গবেষণা প্রতিবেদনে এসব তথ্য উল্লেখ করা হয়েছে। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ ব্যাংকের ডেপুটি গভর্নর এবং বিআইবিএম নির্বাহী কমিটির চেয়ারম্যান এসএম মনিরুজ্জামান। আয়োজনের উদ্দেশ্য বিশ্লেষণের মধ্য দিয়ে ঢাকার বিআইবিএমে অনুষ্ঠানটি স্বাগত বক্তব্য প্রদান করেন পরিচালক (প্রশিক্ষণ) অধ্যাপক ড. শাহ মো. আহসান হাবীব।

কর্মশালায় সভাপতিত্ব করেন পূবালী ব্যাংকের সাবেক ব্যবস্থাপনা পরিচালক এবং বিআইবিএমের সুপার নিউমারারি অধ্যাপক হেলাল আহমেদ চৌধুরী। কর্মশালায় আরও উপস্থিত ছিলেন বিআইবিএমের ড. মোজাফফর আহমদ চেয়ার প্রফেসর এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের সাবেক অধ্যাপক ড. বরকত-এ-খোদা; বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক নির্বাহী পরিচালক এবং বিআইবিএমের সুপারনিউমারারি অধ্যাপক ইয়াছিন আলি; বাংলাদেশ কৃষি ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. আলী হোসেন প্রধানীয়া; স্টান্ডার্ড চাটার্ড ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক এবং হেড অব ফাইন্যান্সিয়াল মার্কেটস মুহিত রহমান; বিআইবিএমের অনুষদ সদস্য এবং সাবেক উপব্যবস্থাপনা পরিচালক সৈয়দ এম. বারিকুল্লাহ।

কর্মশালায় গবেষণা প্রতিবেদন উপস্থাপন করেন বিআইবিএমের অধ্যাপক মো. নেহাল আহমেদ। গবেষণা দলে অন্যদের মধ্যে ছিলেন বিআইবিএমের প্রভাষক রিফাত জামান সৌরভ; ইস্টার্ন ব্যাংকের হেড অব ট্রেজারি মেহেদী জামান এবং ব্যাংক এশিয়ার হেড অব ট্রেজারি আরিকুল আরেফিন।

দেশে কার্যক্রম পরিচালনাকারী ৫০টি ব্যাংকের কাছে তথ্য চাওয়া হলেও ২০টি ব্যাংক তথ্য সরবরাহ করেছে। এসব তথ্য থেকে পাওয়া তথ্যের ভিত্তিতে প্রতিবেদনটি প্রস্তুত করা হয়েছে। এ প্রতিবেদন তৈরিতে ব্যাংকের কাছ থেকে তথ্য নেয়ার পাশাপাশি ২০১১ থেকে ২০১৮ সাল পর্যন্ত বাণিজ্যিক ব্যাংকের বার্ষিক প্রতিবেদন এবং বাংলাদেশ ব্যাংকের বিভিন্ন ধরনের প্রকাশনা, সার্কুলার ইত্যাদি সেকেন্ডারি তথ্যের সহায়তা নেয়া হয়েছে। অধ্যাপক হেলাল আহমেদ চৌধুরী বলেন, ব্যাংকের ট্রেজারি বিভাগ খুবই গুরুত্বপূর্ণ। ব্যাংকের শীর্ষ কর্মকর্তাদের কাছে ট্রেজারির সর্বশেষ আপডেট থাকতে হবে।

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×