শেয়ারবাজারে বড় উল্লম্ফন

ব্যাংকের বিনিয়োগ সক্ষমতা বৃদ্ধির প্রজ্ঞাপন জারির প্রভাব * ডিএসই’র প্রধান সূচক ১০৪ পয়েন্ট ও লেনদেন ১৫২ কোটি টাকা বেড়েছে

  যুগান্তর রিপোর্ট ২০ মে ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

শেয়ারবাজার

শেয়ারবাজারে ব্যাংকের বিনিয়োগ সক্ষমতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে বাংলাদেশ ব্যাংক থেকে নীতিমালা শিথিলের প্রজ্ঞাপন জারির পর রোববার বাজারে বড় ধরনের উত্থান হয়েছে।

এদিন ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) প্রধান মূল্যসূচক ডিএসইএক্স বেড়েছে ১০০ পয়েন্টের ওপর এবং চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সার্বিক মূল্যসূচক সিএএসপিআই বেড়েছে ৩০৫ পয়েন্ট।

এর আগে নীতিমালা শিথিল করে শেয়ারবাজারে ব্যাংকগুলোর বিনিয়োগ বাড়ানোর সুযোগ করে দিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক। বৃহস্পতিবার এ সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়। এতে বলা হয়েছে, সরকারসহ বিভিন্ন অংশীজনের মতামতের ভিত্তিতে নীতিমালা শিথিলের সিদ্ধান্ত হয়েছে।

কেন্দ্রীয় ব্যাংকের প্রজ্ঞাপনে বলা হয়েছে, এখন থেকে শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত নয় এমন সিকিউরিটিজে ব্যাংকের বিনিয়োগকে পুঁজিবাজারে ব্যাংকের মোট বিনিয়োগ হিসাবায়নে ধরা হবে না। কোনো ব্যাংক তালিকাভুক্ত নয় এমন কোনো কোম্পানিতে মূলধন বিনিয়োগ করলে এখন থেকে তা আর ওই ব্যাংকের পুঁজিবাজারে বিনিয়োগ হিসাবে ধরা হবে না। এ ছাড়া অরূপান্তরযোগ্য ক্রমবর্ধমান প্রেফারেন্স শেয়ার, অরূপান্তরযোগ্য বন্ড, ডিবেঞ্চার ও বেমেয়াদি মিউচুয়াল ফান্ডে ব্যাংকের বিনিয়োগকে এখন থেকে ব্যাংকের পুঁজিবাজারে বিনিয়োগ হিসাবের বাইরে রাখা হবে। নতুন এ নির্দেশনা বৃহস্পতিবারই দেশের সব তফসিলি ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান নির্বাহীদের কাছে পাঠানো হয়েছে।

বাংলাদেশ ব্যাংকের প্রজ্ঞাপন জারির পর রোববারই ছিল প্রথম কার্যদিবস। এদিন লেনদেন শুরুতেই মূল্যসূচকের বড় উত্থানের আভাস দিতে থাকে। লেনদেনের শেষ পর্যন্ত সূচকের টানা ঊর্ধ্বমুখিতা অব্যাহত থাকায় শেষ পর্যন্ত বড় উত্থান হয়।

ডিএসই’র প্রধান সূচক ডিএসইএক্স আগের কার্যদিবসের তুলনায় ১০৪ পয়েন্ট বেড়ে ৫ হাজার ৩৩৫ পয়েন্টে উঠে এসেছে। অপর দুই সূচকের মধ্যে ডিএসই শরিয়াহ সূচক ১৭ পয়েন্ট বেড়ে দাঁড়িয়েছে এক হাজার ২১৫ পয়েন্টে। আর ডিএসই-৩০ সূচক ৩১ পয়েন্ট বেড়ে এক হাজার ৮৪৯ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে।

মূল্যসূচকে এই উত্থানের দিনে ডিএসইতে যে কয়টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের দাম কমেছে, বেড়েছে তার পাঁচগুণের বেশি। দিনভর বাজারটিতে লেনদেনে অংশ নেয়া ২৭১টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের দাম বেড়েছে। বিপরীতে দাম কমেছে ৪৫টির এবং দাম অপরিবর্তিত রয়েছে ২৮টির।

মূল্যসূচক ও সিংহভাগ প্রতিষ্ঠানের দাম বাড়ার পাশাপাশি ডিএসইতে বেড়েছে লেনদেনের পরিমাণ। দিনভর বাজারটিতে লেনদেন হয়েছে ৪৪৩ কোটি ৫৫ লাখ টাকার। আগের কার্যদিবসে লেনদেন হয়েছিল ২৯০ কোটি ৬৮ লাখ টাকার। সে হিসাবে লেনদেন বেড়েছে ১৫২ কোটি ৮৭ লাখ টাকা।

বাজারটিতে টাকার পরিমাণে সব থেকে বেশি লেনদেন হয়েছে ফরচুন সুজের শেয়ার। কোম্পানিটির ১৯ কোটি ৫৩ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। ১৪ কোটি ৫৩ লাখ টাকার লেনদেনে দ্বিতীয় স্থানে আইএফআইসি ব্যাংক এবং ১২ কোটি ১১ লাখ টাকা লেনদেনে তৃতীয় স্থানে উঠে এসেছে এক্সিম ব্যাংক। এছাড়া লেনদেনের শীর্ষ ১০ কোম্পানির মধ্যে রয়েছে- এসকে ট্রিমস, উত্তরা ব্যাংক, ব্যাংক এশিয়া, পাওয়ার গ্রীড, প্রিমিয়ার ব্যাংক, সিটি ব্যাংক এবং ইন্দো-বাংলা ফার্মাসিউটিক্যাল।

দর বৃদ্ধিতে শীর্ষ ১০ কোম্পানি : ডিএসইতে এদিন দর বৃদ্ধির শীর্ষে ছিল এসকে ট্রিমস। এ তালিকায় অন্যান্য কোম্পানি হচ্ছে- সোনার বাংলা ইন্স্যুরেন্স, অগ্রণী ইন্স্যুরেন্স, এফএএস ফিন্যান্স, গ্লোবাল ইন্স্যুরেন্স, এশিয়া ইন্স্যুরেন্স, প্রিমিয়ার লিজিং, রিপাবলিক ইন্স্যুরেন্স, রূপালী ইন্স্যুরেন্স ও ইউনাইটেড ইন্স্যুরেন্স।

অন্যদিকে, সিএসই’র সার্বিক সূচক সিএএসপিআই ৩০৫ দশমিক ২০ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করছে ১৬ হাজার ৩০৭ পয়েন্টে। এ সময়ে সিএসইতে লেনদেনে অংশ নিয়েছে ২৩৫টি কোম্পানি ও মিউচুয়াল ফান্ড। এর মধ্যে দর বেড়েছে ১৭৯টির, কমেছে ৩৪টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ২২টির।

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×