গ্রামে বাড়ছে এজেন্ট ব্যাংকিং সেবা

  যুগান্তর রিপোর্ট ২৩ মে ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

ব্যাংকিং সেবা

বাংলাদেশে নতুন চালু করা এজেন্ট ব্যাংকিংয়ের সবচেয়ে বেশি প্রসার ঘটছে গ্রামে। এর ফলে গ্রামের মানুষ ব্যাংকিং সেবার আওতায় আসছে। শহরের মধ্যে যেসব এলাকায় ব্যাংকিং সেবা নেই, ওইসব এলাকায় ব্যাংকিং সেবা দিচ্ছে এজেন্ট ব্যাংকিং।

এজেন্ট ব্যাংকিংয়ের আওতায় এখন পর্যন্ত আমানতের পরিমাণ বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৩ হাজার ৭৩৪ কোটি ৫১ লাখ টাকা। বুধবার বাংলাদেশ ব্যাংকের প্রকাশিত এক গবেষণা প্রতিবেদন থেকে এসব তথ্য পাওয়া গেছে।

প্রতিবেদনে দেখা যায়, সারা দেশে এজেন্ট ব্যাংকিংয়ের আওতায় ৪ হাজার ৮৬৬টি এজেন্ট রয়েছে। এর মধ্যে গ্রামে ৪ হাজার ৩৬৫ এবং শহরে ৫০১। এজেন্টের আওতায় চলে আউটলেট। সারা দেশে আউটলেট আছে ৭ হাজার ৮৩৮টি। এর মধ্যে গ্রামে ৭ হাজার ৮৪ এবং শহরে ৭৫৪। এখন পর্যন্ত কেন্দ্রীয় ব্যাংক থেকে ১৯টি ব্যাংক এজেন্ট ব্যাংকিংয়ের লাইসেন্স নিয়েছে। এর মধ্যে সবচেয়ে এগিয়ে রয়েছে ব্যাংক এশিয়া। তারা গ্রামে সবচেয়ে বেশি সেবা দিচ্ছে। আর ডাচ্-বাংলা ব্যাংক গ্রামের পাশাপাশি শহরেও সেবা দিচ্ছে। এখন পর্যন্ত এজেন্ট ব্যাংকিংয়ের আওতায় হিসাব খোলা হয়েছে ২৯ লাখ ৭ হাজার। এর মধ্যে সঞ্চয়ী হিসাবের সংখ্যাই সবচেয়ে বেশি। প্রায় ২৫ লাখ ৯ হাজার।

ব্যবসায়িক কাজে ব্যবহারের জন্য চলতি হিসাব রয়েছে প্রায় ৯৪ হাজার। অন্যান্য হিসাব রয়েছে ৯ লাখ ৪ হাজার। এর মধ্যে গ্রামে হিসাব খোলা হয়েছে ২৫ লাখ ২৩ হাজার। শহরে প্রায় ৩ লাখ ৮৫ হাজার। অ্যাকাউন্ট খোলায় নারীদের চেয়ে পুরুষরাই এগিয়ে রয়েছেন। প্রায় ১৮ লাখ ৬২ হাজার পুরুষের এবং নারীর অ্যাকাউন্ট রয়েছে ১০ লাখ ২৪ হাজার।

এজেন্ট ব্যাংকিংয়ের মাধ্যমে বিতরণ করা ঋণের পরিমাণ ২১১ কোটি টাকা। এর মধ্যে গ্রামে বিতরণ করা হয়েছে ১২৪ কোটি এবং শহরে ২৬ কোটি টাকা।

এজেন্ট ব্যাংকিংয়ের মাধ্যমে রেমিটেন্সও বিতরণ করা হয়। এর মধ্যে ৭ হাজার ২০০ কোটি টাকা রেমিটেন্স বিতরণ করা হয়েছে। এর মধ্যে গ্রামে বিতরণ করা হয়েছে ৬ হাজার ৪৬ কোটি টাকা এবং শহরে ৭২৬ কোটি টাকা। রেমিটেন্স বিতরণে এগিয়ে রয়েছে ডাচ্-বাংলা ব্যাংক। তারা বিতরণ করেছে ২ হাজার ৬২২ কোটি টাকা। দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে ব্যাংক এশিয়া। তারা বিতরণ করেছে ২ হাজার ২৫৪ কোটি টাকা।

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×