এডিবি দিচ্ছে ২৫ কোটি ডলার
jugantor
করোনা মোকাবিলা
এডিবি দিচ্ছে ২৫ কোটি ডলার

  যুগান্তর প্রতিবেদন  

২৬ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

দেশের অর্থনৈতিক পুনরুদ্ধারে ২৫ কোটি ডলার বা প্রায় ২ হাজার ১২৫ কোটি টাকা ঋণ দিচ্ছে এশীয় উন্নয়ন ব্যাংক (এডিবি)। করোনাভাইরাস মহামারির পরবর্তী পরিস্থিতি মোকাবিলা করে অর্থনীতিকে এগিয়ে নিতে এ ঋণের অনুমোদন দিয়েছে সংস্থাটি। এডিবির ঢাকা কার্যালয় থেকে পাঠানো এক বিজ্ঞপ্তিতে শনিবার বিষয়টি জানানো হয়েছে। ৫০ কোটি ডলারের অর্থনেতিক পুনরুদ্ধার কর্মসূচির সাব-প্রোগ্রাম হিসাবে এ ঋণ অনুমোদন দিয়েছে এডিবি বোর্ড।

এডিবির বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, টেকসই অর্থনৈতিক পুনরুদ্ধার কর্মসূচির উদ্দেশ্য হলো-কোভিড-১৯ মহামারি থেকে দ্রুত এবং টেকসই পুনরুদ্ধারের সুবিধা তৈরি করা। এছাড়া কর্মসংস্থান সৃষ্টি এবং ক্ষুদ্র-উদ্যোক্তা এবং ক্ষুদ্র ব্যবসার জন্য অর্থনৈতিক কার্যক্রম সম্প্রসারিত করা। এটি নীতিগত সংস্কারের মাধ্যমে অনুসরণ করা হবে, যা জনসাধারণের ব্যয় বৃদ্ধির জন্য আর্থিক স্থান তৈরি করবে এবং কুটির, ক্ষুদ্র ও মাঝারি আকারের উদ্যোগের (সিএমএসএমই) পুনরুদ্ধার এবং বৃদ্ধিতে সহায়তা করবে। এই ঋণ শিক্ষা, স্বাস্থ্য, সামাজিক সুরক্ষা এবং অবকাঠামোতে সরকারের পরিকল্পিত বিনিয়োগকে সমর্থন করবে। অর্থনৈতিক কার্যক্রম এবং অর্থনৈতিক পুনরুদ্ধারে উদ্দীপনা দিতে সহায়তা করবে। এটি দেশের অষ্টম পঞ্চবার্ষিকী পরিকল্পনার মূল লক্ষ্যগুলোর সঙ্গেও সংযুক্ত। এ কর্মসূচি ২০৩১ সালের মধ্যে উচ্চ মধ্যম আয়ের দেশে পরিণত হওয়া বাংলাদেশের যে আকাক্সক্ষা সেটিকে সমর্থন করে। এডিবির প্রধান আর্থিক ব্যবস্থাপনা বিশেষজ্ঞ শ্রীনিবাস জনার্দনম বলেন, এ কর্মসূচির আওতায় সরকারকে সামাজিক ও অর্থনৈতিক অবকাঠামোতে ব্যয় এবং উচ্চতর বিনিয়োগকে অগ্রাধিকার দেওয়ার ক্ষেত্রে সাহায্য করবে। এ ছাড়া পাবলিক ইনভেস্টমেন্ট ম্যানেজমেন্টে দক্ষতা বৃদ্ধি করবে এবং বিশেষ করে দরিদ্র ও দুর্বলদের জন্য ঋণের অনুকূল পরিবেশ তৈরি করবে বলে আশা করা হচ্ছে।

করোনা মোকাবিলা

এডিবি দিচ্ছে ২৫ কোটি ডলার

 যুগান্তর প্রতিবেদন 
২৬ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

দেশের অর্থনৈতিক পুনরুদ্ধারে ২৫ কোটি ডলার বা প্রায় ২ হাজার ১২৫ কোটি টাকা ঋণ দিচ্ছে এশীয় উন্নয়ন ব্যাংক (এডিবি)। করোনাভাইরাস মহামারির পরবর্তী পরিস্থিতি মোকাবিলা করে অর্থনীতিকে এগিয়ে নিতে এ ঋণের অনুমোদন দিয়েছে সংস্থাটি। এডিবির ঢাকা কার্যালয় থেকে পাঠানো এক বিজ্ঞপ্তিতে শনিবার বিষয়টি জানানো হয়েছে। ৫০ কোটি ডলারের অর্থনেতিক পুনরুদ্ধার কর্মসূচির সাব-প্রোগ্রাম হিসাবে এ ঋণ অনুমোদন দিয়েছে এডিবি বোর্ড।

এডিবির বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, টেকসই অর্থনৈতিক পুনরুদ্ধার কর্মসূচির উদ্দেশ্য হলো-কোভিড-১৯ মহামারি থেকে দ্রুত এবং টেকসই পুনরুদ্ধারের সুবিধা তৈরি করা। এছাড়া কর্মসংস্থান সৃষ্টি এবং ক্ষুদ্র-উদ্যোক্তা এবং ক্ষুদ্র ব্যবসার জন্য অর্থনৈতিক কার্যক্রম সম্প্রসারিত করা। এটি নীতিগত সংস্কারের মাধ্যমে অনুসরণ করা হবে, যা জনসাধারণের ব্যয় বৃদ্ধির জন্য আর্থিক স্থান তৈরি করবে এবং কুটির, ক্ষুদ্র ও মাঝারি আকারের উদ্যোগের (সিএমএসএমই) পুনরুদ্ধার এবং বৃদ্ধিতে সহায়তা করবে। এই ঋণ শিক্ষা, স্বাস্থ্য, সামাজিক সুরক্ষা এবং অবকাঠামোতে সরকারের পরিকল্পিত বিনিয়োগকে সমর্থন করবে। অর্থনৈতিক কার্যক্রম এবং অর্থনৈতিক পুনরুদ্ধারে উদ্দীপনা দিতে সহায়তা করবে। এটি দেশের অষ্টম পঞ্চবার্ষিকী পরিকল্পনার মূল লক্ষ্যগুলোর সঙ্গেও সংযুক্ত। এ কর্মসূচি ২০৩১ সালের মধ্যে উচ্চ মধ্যম আয়ের দেশে পরিণত হওয়া বাংলাদেশের যে আকাক্সক্ষা সেটিকে সমর্থন করে। এডিবির প্রধান আর্থিক ব্যবস্থাপনা বিশেষজ্ঞ শ্রীনিবাস জনার্দনম বলেন, এ কর্মসূচির আওতায় সরকারকে সামাজিক ও অর্থনৈতিক অবকাঠামোতে ব্যয় এবং উচ্চতর বিনিয়োগকে অগ্রাধিকার দেওয়ার ক্ষেত্রে সাহায্য করবে। এ ছাড়া পাবলিক ইনভেস্টমেন্ট ম্যানেজমেন্টে দক্ষতা বৃদ্ধি করবে এবং বিশেষ করে দরিদ্র ও দুর্বলদের জন্য ঋণের অনুকূল পরিবেশ তৈরি করবে বলে আশা করা হচ্ছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন