ঋণের ফাঁদে নিম্ন আয়ের দেশের অর্থনীতিতে ধস নামবে
jugantor
ঋণের ফাঁদে নিম্ন আয়ের দেশের অর্থনীতিতে ধস নামবে

   

০৪ ডিসেম্বর ২০২১, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

অন্তত ৩০টি নিম্ন আয়ের দেশের অর্থনীতি কঠিন ঋণের ফাঁদে আটকা পড়েছে। এসব দেশের মধ্যে আফগানিস্তান ও ইথিওপিয়া সবচেয়ে উচ্চ ঝুঁকিতে রয়েছে। গ্রানাডা, মোজাম্বিক, রিপাবলিক অব কঙ্গো ও সোমালিয়ায় ইতোমধ্যে সংকট চলছে। এ ধরনের দেশগুলোর পাশে ঋণদাতা ধনী দেশগুলো ঋণ সংকট কাটিয়ে উঠতে ঋণ-পরিষেবা বাধ্যবাধকতা স্থগিত এবং নতুন শর্তাদি পুনর্বিবেচনায় সহায়তা না করলে পরিস্থিতির কোনো হেরফের হবে না। বিশ্বের ৬০ শতাংশ গরিব দেশগুলোর ঋণ রয়েছে উচ্চ ঝুঁকিতে। জি-টোয়েন্টি দেশগুলো ইতোমধ্যে ৪০টি ঋণগ্রস্ত দেশকে ১০.৩ বিলিয়ন ডলার সহায়তা দিয়েছে। আইএমএফ কর্মকর্তারা বলেছেন, ঋণ-পরিষেবা ত্রাণের মেয়াদ শেষ হয়ে যাওয়ায় অংশগ্রহণকারী দেশগুলোকে ঋণ পরিষেবা প্রদান পুনরায় শুরু করতে বাধ্য করবে। ঋণ সংকটে পড়া দেশগুলো হচ্ছে আফ্রিকার ক্যামেরন, কেপ ভার্ডে, সেন্ট্রাল আফ্রিকান রিপাবলিক, চাদ, জিবুতি, ইথিওপিয়া, গাম্বিয়া, ঘানা, গিয়েনা-বিসাউ, কেনিয়া, লাইবেরিয়া, মালাভি, মৌরতানিয়া, সিয়েরা লিওন, দক্ষিণ সুদান, টোগো ও জাম্বিয়া। এশিয়ার ঋণ সংকটে পড়া দেশগুলো হচ্ছে আফগানিস্তান, লাওস ও তাজিকিস্তান। দ্বীপপুঞ্জ দেশগুলোর মধ্যে রয়েছে হাইতি, কিরিবাতি, মালদ্বীপ, মার্শাল দ্বীপপুঞ্জ, মাইক্রোনেশিয়া, পাপুয়া নিউগিনি, সামোয়া, সেন্ট ভিনসেন্ট, গ্রেনাডিনেস, টোঙ্গা ও টুভালু। যুগান্তর ডেস্ক

ঋণের ফাঁদে নিম্ন আয়ের দেশের অর্থনীতিতে ধস নামবে

  
০৪ ডিসেম্বর ২০২১, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

অন্তত ৩০টি নিম্ন আয়ের দেশের অর্থনীতি কঠিন ঋণের ফাঁদে আটকা পড়েছে। এসব দেশের মধ্যে আফগানিস্তান ও ইথিওপিয়া সবচেয়ে উচ্চ ঝুঁকিতে রয়েছে। গ্রানাডা, মোজাম্বিক, রিপাবলিক অব কঙ্গো ও সোমালিয়ায় ইতোমধ্যে সংকট চলছে। এ ধরনের দেশগুলোর পাশে ঋণদাতা ধনী দেশগুলো ঋণ সংকট কাটিয়ে উঠতে ঋণ-পরিষেবা বাধ্যবাধকতা স্থগিত এবং নতুন শর্তাদি পুনর্বিবেচনায় সহায়তা না করলে পরিস্থিতির কোনো হেরফের হবে না। বিশ্বের ৬০ শতাংশ গরিব দেশগুলোর ঋণ রয়েছে উচ্চ ঝুঁকিতে। জি-টোয়েন্টি দেশগুলো ইতোমধ্যে ৪০টি ঋণগ্রস্ত দেশকে ১০.৩ বিলিয়ন ডলার সহায়তা দিয়েছে। আইএমএফ কর্মকর্তারা বলেছেন, ঋণ-পরিষেবা ত্রাণের মেয়াদ শেষ হয়ে যাওয়ায় অংশগ্রহণকারী দেশগুলোকে ঋণ পরিষেবা প্রদান পুনরায় শুরু করতে বাধ্য করবে। ঋণ সংকটে পড়া দেশগুলো হচ্ছে আফ্রিকার ক্যামেরন, কেপ ভার্ডে, সেন্ট্রাল আফ্রিকান রিপাবলিক, চাদ, জিবুতি, ইথিওপিয়া, গাম্বিয়া, ঘানা, গিয়েনা-বিসাউ, কেনিয়া, লাইবেরিয়া, মালাভি, মৌরতানিয়া, সিয়েরা লিওন, দক্ষিণ সুদান, টোগো ও জাম্বিয়া। এশিয়ার ঋণ সংকটে পড়া দেশগুলো হচ্ছে আফগানিস্তান, লাওস ও তাজিকিস্তান। দ্বীপপুঞ্জ দেশগুলোর মধ্যে রয়েছে হাইতি, কিরিবাতি, মালদ্বীপ, মার্শাল দ্বীপপুঞ্জ, মাইক্রোনেশিয়া, পাপুয়া নিউগিনি, সামোয়া, সেন্ট ভিনসেন্ট, গ্রেনাডিনেস, টোঙ্গা ও টুভালু। যুগান্তর ডেস্ক

 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন