আলোর মুখ দেখেনি ২ প্রকল্প

ঢাকার জলাবদ্ধতা নিরসনে ফের নতুন প্রকল্প

ব্যয় হবে সাড়ে ৫শ’ কোটি টাকা

  হামিদ-উজ-জামান ১৮ মে ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

আলোর মুখ দেখেনি ২ প্রকল্প

রাজধানীর জলাবদ্ধতা নিরসন সংক্রান্ত দুটি প্রকল্প আলোর মুখ দেখেনি। প্রকল্প দুটি হল ‘হাজারীবাগ-বাইশটেকী, কুর্মিটোলা, মাণ্ডা ও বেগুনবাড়ি খালে ভূমি অধিগ্রহণ এবং খনন/পুনঃখনন’ এবং ‘কল্যাণপুর স্টর্ম ওয়াটার পাম্পিং স্টেশনসংলগ্ন রেগুলেটিং অ্যান্ড সংরক্ষণ (ফেজ-২)’ প্রকল্প।

কিন্তু নতুন করে ঢাকার ১৩টি এলাকার জলাবদ্ধতা নিরসনে খাল খননসহ পানি নিষ্কাশন সংক্রান্ত একটি প্রকল্প হাতে নিচ্ছে ঢাকা ওয়াসা। ‘ঢাকা মহানগরীর ড্রেনেজ নেটওয়ার্ক সম্প্রসারণ এবং খাল উন্নয়ন’ নামের এ প্রকল্পটি প্রস্তাব করা হয়েছে পরিকল্পনা কমিশনে।

এটি বাস্তবায়নে ব্যয় হবে ৫৫০ কোটি ৫০ লাখ টাকা। পুরোটাই সরকারের নিজস্ব অর্থায়নে চলতি বছর থেকে ২০২০ সালের ডিসেম্বরের মধ্যে প্রকল্পটি বাস্তবায়নের লক্ষ্য নির্ধারণ করা হয়েছে। প্রকল্পটি প্রক্রিয়াকরণের সময়ের আগে হাতে নেয়া দুটি প্রকল্প সম্পর্কে প্রশ্ন তোলে পরিকল্পনা কমিশন। ১৯ ফেব্র“য়ারি অনুষ্ঠিত প্রকল্প মূল্যায়ন কমিটির (পিইসি) সভায় এ প্রশ্ন উত্থাপন করা হয়।

এ প্রসঙ্গে একনেকের জন্য তৈরি করা প্রকল্পের সার-সংক্ষেপে পরিকল্পনা কমিশনের ভৌত অবকাঠামো বিভাগের সদস্য জুয়েনা আজিজ বলেছেন, ঢাকা ওয়াসার ড্রেনেজ ব্যবস্থাপনা জোন-১ ও ২ এলাকায় বিদ্যমান খালগুলোর পানি নিষ্কাশনে যেসব প্রতিবন্ধকতা রয়েছে প্রস্তাবিত প্রকল্পটি বাস্তবায়নের মাধ্যমে সেসব প্রতিবন্ধকতা দূর হবে।

ফলে প্রকল্প এলাকায় প্রায় ৫২ লাখ মানুষ বর্ষা মৌসুমে সৃষ্ট জলাবদ্ধতা থেকে রক্ষা পাবেন। এতে বর্ষাকালে যানবাহন ও মানুষের নির্বিঘœ চলাচল সম্ভব হবে।

প্রকল্প প্রস্তাবে ঢাকা ওয়াসা থেকে বলা হয়েছে, মহানগরীর ড্রেনেজ নেটওয়ার্ক সম্প্রসারণ এবং খাল উন্নয়নের মাধ্যমে ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের ধানমণ্ডি, হাজারীবাগ, শঙ্কর, জিগাতলা, রায়েরবাজার এলাকা এবং ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের মোহাম্মদপুর, শ্যামলী, শেরেবাংলা নগর, দারুসসালাম, মিরপুর, পল্লবী, ক্যান্টনমেন্ট, উত্তরা এবং বিমানবন্দর এলাকার জলাবদ্ধতা দূর করা হবে। এছাড়া প্রকল্প এলাকায় অবস্থিত বিদ্যমান খালগুলো খনন ও প্রশস্ত করে তীর উন্নয়ন এবং ওয়াকওয়ে নির্মাণের মাধ্যমে খালের দু’তীরের পরিবেশ উন্নত করা হবে।

এ প্রসঙ্গে পরিকল্পনা কমিশনের একাধিক কর্মকর্তা যুগান্তরকে জানান, স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয় থেকে প্রস্তাব পাওয়ার পর পিইসি সভায় বিভিন্ন বিষয়ে প্রশ্ন তোলা হয়। এ সময় বলা হয় জলাবদ্ধতা নিরসন সংক্রান্ত ‘হাজারীবাগ-বাইশটেকী, কুর্মিটোলা, মাণ্ডা ও বেগুনবাড়ি খালে ভূমি অধিগ্রহণ এবং খনন/পুনঃখনন’ প্রকল্প এবং ‘কল্যাণপুর স্টর্ম ওয়াটার পাম্পিং স্টেশন সংলগ্ন রেগুলেটিং অ্যান্ড সংরক্ষণ (ফেজ-২)’ নামের দুটি প্রকল্প এখনও অনুমোদন পায়নি।

তাই এ প্রকল্প দুটি অনুমোদনের পরই নতুনভাবে প্রস্তাবিত প্রকল্পটি প্রক্রিয়াকরণ করা যেতে পারে। কিন্তু পরে স্থানীয় সরকার বিভাগ থেকে জানানো হয় এ প্রকল্প দুটি একনেক উপস্থাপনের জন্য ওয়াসা ইতিমধ্যেই স্থানীয় সরকার বিভাগকে অনুরোধ করেছে। শিগগিরই একনেকে উত্থাপন করা হবে।

সূত্র জানায়, এর আগে হাজারীবাগ-বাইশটেকী-কুর্মিটোলা-বেগুনবাড়ি খাল উন্নয়ন সংক্রান্ত একটি প্রকল্প ১৬ জানুয়ারি একনেকে উপস্থাপনের এজেন্ডায় অন্তর্ভুক্ত করা হয়। কিন্তু অজ্ঞাত কারণে স্থানীয় সরকার বিভাগ একনেক সভা হতে প্রকল্পটি প্রত্যাহার করে নেয়।

এভাবে কল্যাণপুর স্টর্ম ওয়াটার পাম্পিং স্টেশন সংলগ্ন রেগুলেটিং পন্ড সংরক্ষণ প্রকল্পটিও ২৩ জানুয়ারি একনেকে উপস্থাপনের কথা ছিল। কিন্তু পরে সেটিও প্রত্যাহার করা হয়। সূত্র জানায়, ঢাকা মহানগরীর ড্রেনেজ ব্যবস্থাপনা ১৫১ কিলোমিটার দৈর্ঘ্যরে ৪৪টি খাল, ১০টি বক্স কালভার্ট ও বিভিন্ন সংস্থার কয়েক হাজার কিলোমিটার পাইপ লাইনের মাধ্যমে পরিচালিত হচ্ছে।

যে কোনো স্থানের ড্রেনেজ ব্যবস্থার প্রাইমারি অবকাঠামো হচ্ছে খাল। যার মাধ্যমে বৃষ্টির পানি প্রবাহিত হয়ে নদীতে নিষ্কাশিত হয়। ঢাকা মহানগরীতে ৪৩টি প্রাকৃতিক খাল রয়েছে। এর মধ্যে ঢাকা ওয়াসার আওতায় রয়েছে ২৬টি খাল।

এসব খালের অধিকাংশেরই স্থায়ী অবকাঠামোর মাধ্যমে উন্নয়ন করা হয়নি। ফলে বর্ষা মৌসুমে অতিবৃষ্টির সময় পানি দ্রুত নিষ্কাশিত হতে পারে না। নগরীতে জলজটের সৃষ্টি হয়। এ বিবেচনায় প্রকল্পটি প্রস্তাব করা হয়েছে।

 

 

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
bestelectronics

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter
.