গ্রিন ক্লাইমেট ফান্ড পরিচালিত হবে ওয়েবসাইটের মাধ্যমে
jugantor
গ্রিন ক্লাইমেট ফান্ড পরিচালিত হবে ওয়েবসাইটের মাধ্যমে

  যুগান্তর রিপোর্ট  

২৮ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

জলবায়ুর ক্ষতিকর প্রভাব মোকাবেলায় পরিচালিত গ্রিন ক্লাইমেট ফান্ড পরিচালিত হবে ওয়েবসাইটের মাধ্যমে। এতে তহবিলের অর্থ ব্যবহারের স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা নিশ্চিত হবে। এ লক্ষ্যে বৃহস্পতিবার একটি নতুন ওয়েবসাইটের উদ্বোধন করা হয়। রাজধানীর শেরেবাংলা নগরের এনইসি সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগের (ইআরডি) সিনিয়র সচিব কাজী শফিকুল আযম। বিশেষ অতিথি ছিলেন পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব ড. নুরুল কাদির। ইআরডির অতিরিক্ত সচিব কাজী আনোয়ারুল হকের সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন জার্মান অ্যাম্বাসির ফার্স্ট সেক্রেটারি ক্যারেন ব্লুম, উন্নয়ন সহযোগী সংস্থা জিইজেডের ক্লাইমেট ক্লাস্টারের কো-অর্ডিনেটর গোন্তারাম গ্লাসব্রেননার।

কাজী শফিকুল আযম জানান, ইআরডি ন্যাশনাল ডেজিগনেটেড অথরিটি (এনডিএ) হিসেবে কাজ করে। এই সংস্থাটি বাংলাদেশে গ্রিন ক্লাইমেন্ট ফান্ড পরিচালনা করে থাকে। এখন এনডিএ-এর ওয়েবসাইট চালু হওয়ায় এই ফান্ডের অর্থায়নে বাস্তবায়নাধীন প্রকল্পের অবস্থা, নতুন প্রকল্প প্রস্তাব এবং অনুমোদনের পর তার প্রকাশ, অর্থ ব্যয় ইত্যাদি সব তথ্যই থাকবে। এটি বাংলা ও ইংরেজি দুই ভার্সন থাকবে। যাতে সবার কাছেই গ্রহণযোগ্য হয়। এই ওয়েবসাইট তৈরিতে সহায়তা দিয়েছে জার্মান সরকারের উন্নয়ন সহযোগী সংস্থা জিআইজেড।

তিনি জানান, ইতিমধ্যেই গ্রিন ক্লাইমেট ফান্ডের অর্থায়নে ৮ কোটি ডলারের তিনটি প্রকল্প অনুমোদন দেয়া হয়েছে। এছাড়া আরও ৪৬টি প্রকল্প প্রস্তাব রয়েছে। টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা (এসডিজি) বাস্তবায়নে উন্নয়ন সহযোগীদের সহায়তা প্রয়োজন। আগামীতে স্বল্প সুদের কিংবা অনুদান প্রাপ্তির হার কমে যাবে। সেক্ষেত্রে গ্রিন ক্লাইমেট ফান্ড সেই অর্থায়ন ঘাটতি পূরণে সহায়ক হবে। তিনি জানান, ১৪৬টি দেশে এনডিএ রয়েছে। কিন্তু ওয়েবসাইট আছে ৪-৫টি দেশে। তার মধ্যে যুক্ত হল বাংলাদেশের নাম।

গ্রিন ক্লাইমেট ফান্ড পরিচালিত হবে ওয়েবসাইটের মাধ্যমে

 যুগান্তর রিপোর্ট  
২৮ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

জলবায়ুর ক্ষতিকর প্রভাব মোকাবেলায় পরিচালিত গ্রিন ক্লাইমেট ফান্ড পরিচালিত হবে ওয়েবসাইটের মাধ্যমে। এতে তহবিলের অর্থ ব্যবহারের স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা নিশ্চিত হবে। এ লক্ষ্যে বৃহস্পতিবার একটি নতুন ওয়েবসাইটের উদ্বোধন করা হয়। রাজধানীর শেরেবাংলা নগরের এনইসি সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগের (ইআরডি) সিনিয়র সচিব কাজী শফিকুল আযম। বিশেষ অতিথি ছিলেন পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব ড. নুরুল কাদির। ইআরডির অতিরিক্ত সচিব কাজী আনোয়ারুল হকের সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন জার্মান অ্যাম্বাসির ফার্স্ট সেক্রেটারি ক্যারেন ব্লুম, উন্নয়ন সহযোগী সংস্থা জিইজেডের ক্লাইমেট ক্লাস্টারের কো-অর্ডিনেটর গোন্তারাম গ্লাসব্রেননার।

কাজী শফিকুল আযম জানান, ইআরডি ন্যাশনাল ডেজিগনেটেড অথরিটি (এনডিএ) হিসেবে কাজ করে। এই সংস্থাটি বাংলাদেশে গ্রিন ক্লাইমেন্ট ফান্ড পরিচালনা করে থাকে। এখন এনডিএ-এর ওয়েবসাইট চালু হওয়ায় এই ফান্ডের অর্থায়নে বাস্তবায়নাধীন প্রকল্পের অবস্থা, নতুন প্রকল্প প্রস্তাব এবং অনুমোদনের পর তার প্রকাশ, অর্থ ব্যয় ইত্যাদি সব তথ্যই থাকবে। এটি বাংলা ও ইংরেজি দুই ভার্সন থাকবে। যাতে সবার কাছেই গ্রহণযোগ্য হয়। এই ওয়েবসাইট তৈরিতে সহায়তা দিয়েছে জার্মান সরকারের উন্নয়ন সহযোগী সংস্থা জিআইজেড।

তিনি জানান, ইতিমধ্যেই গ্রিন ক্লাইমেট ফান্ডের অর্থায়নে ৮ কোটি ডলারের তিনটি প্রকল্প অনুমোদন দেয়া হয়েছে। এছাড়া আরও ৪৬টি প্রকল্প প্রস্তাব রয়েছে। টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা (এসডিজি) বাস্তবায়নে উন্নয়ন সহযোগীদের সহায়তা প্রয়োজন। আগামীতে স্বল্প সুদের কিংবা অনুদান প্রাপ্তির হার কমে যাবে। সেক্ষেত্রে গ্রিন ক্লাইমেট ফান্ড সেই অর্থায়ন ঘাটতি পূরণে সহায়ক হবে। তিনি জানান, ১৪৬টি দেশে এনডিএ রয়েছে। কিন্তু ওয়েবসাইট আছে ৪-৫টি দেশে। তার মধ্যে যুক্ত হল বাংলাদেশের নাম।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন