অনলাইনে রিভিউ দেখে পণ্য ক্রয়ে সাবধান

  সাইফ আহমাদ ০৮ আগস্ট ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

অনলাইন
প্রতীকী ছবি

প্রযুক্তির অগ্রগতিতে এগিয়ে যাচ্ছে বিশ্ব। বাড়ছে অনলাইন দুনিয়ার বিস্তৃতি। কেনাকাটা খাওয়া দাওয়া থেকে শুরু করে দৈনন্দিন যাবতীয় সবকিছুই এখন অনলাইনে পেতেই পছন্দ করছেন মানুষ।

এদিকে অনলাইন থেকে পণ্য কিনে প্রায়ই প্রতারণার শিকার হচ্ছে গ্রাহক। রিভিউ অসম্ভব ভালো থাকার পরও পণ্য হাতে পেয়ে মাথায় হাত! হরহামেশাই ঘটছে এমন ঘটনা।

শুধু বাংলাদেশেই নয়, এ সমস্যার মুখোমুখি বিশ্বের সর্ববৃহৎ অনলাইন মার্কটপ্লেস মার্কিন প্রতিষ্ঠান অ্যামাজনও। পণ্যের রিভিউ দেখে মান অনেক ভালো মনে হলেও আসলে তার ধারে কাছেও নেই।

গ্রাহক এবং অ্যামাজন দুই পক্ষকেই প্রতারণার মুখে ঠেলে দেয়া এসব ভুয়া রিভিউ নানাভাবেই পোস্ট করা হয়। আর এই ভুয়া রিভিউয়ের অন্যতম বড় উৎস হচ্ছে ফেসবুক।

পণ্য যাচাই বাছাইয়ের যুক্তাজ্যভিত্তিক পরামর্শক প্রতিষ্ঠান ‘হুইচ?’ এক প্রতিবেদনে বলছে অ্যামাজন পণ্যের ভুয়া রিভিউ বেচাকেনার গ্রুপ বন্ধ করতে সম্পূর্ণ ব্যর্থ হয়েছে ফেসবুক।

যদিও ফেসবুক বলেছে তারা ভুয়া রিভিউ-লাইক দেয়ার এসব চক্রকে বিদায় করেছে। হুইচ বলেছে ফেসবুক নিজেদের পক্ষে সাফাই গাইলেও বাস্তবতা আসলে ভিন্ন।

হুইচ জানিয়েছে, তদন্তের স্বার্থে নিয়োগকৃত ব্যক্তিদের কাজে নজরদারি করতে ১০টি ভিন্ন ফেসবুক গ্রুপে যুক্ত হয়েছিল তারা। ৩০ দিনের মধ্যে রিভিউয়ারদের পক্ষ থেকে ৫৫ হাজার পোস্ট পাবলিশড হয় গ্রুপগুলোয়। অ্

যামাজন পণ্যের গুণগান গাইলে প্রায় পোস্টেই ফ্রি পণ্য দেয়ার ঘোষণা থাকত।

হুইচ গ্রুপের হেড অব প্রোডাক্ট নাটালি হিটচিনস জানিয়েছেন, ক্রেতারা যে নিুমানের পণ্য কিনে ঠকছে সে ব্যাপারে ফেসবুকের কোনো পদক্ষেপ না নেয়াটা উদ্বেগজনক।

এ ব্যাপারে তিনি কনজিউমার অ্যান্ড মার্কেট অথরিটির (সিএমএ) হস্তক্ষেপও কামনা করেছেন।

ব্রিটেনের কনজিউমার অ্যান্ড মার্কেট অথরিটির ক্রেতা অধিকার বিভাগের জ্যেষ্ঠ পরিচালক জর্জ লাস্টি বলেন, ফেসবুক বিভিন্ন গ্রুপ বন্ধ করে দেয়ার পরও এসব ভিভিউ ফিরে ফিরে আসার বিষয়টি ‘অগ্রহণযোগ্য’।

তবে, এ অগ্রহণযোগ্য বলেই কাজ সমাধা হয়ে গেল এমনটা মানতে নারাজ হুইচ। তাদের বক্তব্য হল, প্রয়োজনে ফেসবুককে এসব ভুয়া ?রিভিউ বন্ধে ‘বাধ্য করা উচিত’।

ফেসবুকের এক মুখপাত্র জানিয়েছেন, রিপোর্ট করা প্রায় সব গ্রুপের বিরুদ্ধে তারা ব্যবস্থা নিয়েছে। হুইচের রিপোর্ট করা ১০টির মধ্যে ৯টি গ্রুপই ডিলিট করা হয়েছে।

বাকি একটি গ্রুপের ব্যাপারেও তদন্ত চলছে। এর আগে ভুয়া রিভিউ প্রকাশ করা গ্রুপগুলোর ব্যাপারে পদক্ষেপ নিতে ফেসবুককে অনুরোধ জানিয়েছিল কম্পিটিশন ও মার্কেটস অথোরিটি।

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×