নতুন আইফোনে যত আয়োজন

  সাইফ আহমেদ ১২ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

জমকালো আয়োজনের মধ্য দিয়ে উন্মোচিত হয়েছে বহুল আলোচিত আইফোন ১১ প্রো। একই সঙ্গে আইফোন ১১ ও আইফোন ১১ প্রো ম্যাক্স সংস্করণও উন্মোচন করা হয়েছে। ২০ সেপ্টেম্বর থেকে এসব সংস্করণ বাজারে কিনতে পাওয়া যাবে। জেনে নিন এই ফোনগুলোর বিস্তারিত।

ডিজাইন : ফিনিশিং এলিগেন্ট লুকের নতুন আইফোনে ব্যবহার করা হয়েছে সবচেয়ে শক্তিশালী গ্লাস, যা এই প্রথম কোনো স্মার্টফোনে ব্যবহার করা হয়েছে বলে দাবি করছে অ্যাপল। আইফোন ১১ প্রো ও প্রো ম্যাক্স কালচে সবুজ, ছাই, রুপালি ও সোনালি রঙে পাওয়া যাবে।

ক্যামেরা : আইফোন ১১-এ রয়েছে ১২ মেগাপিক্সেলের দুটি ওয়াইড এবং আল্ট্রা-ওয়াইড অ্যাঙ্গেল লেন্স, যা দিয়ে ল্যান্ডস্কেপ এবং পোট্রেট ফটোগ্রাফির জুড়ি নেই। এছাড়া ক্যামেরা সেকশনের ফিচারের মধ্যে থাকছে ডাইনামিক ফটোশুট, স্টুডিও কোয়ালিটির ফটোগ্রাফি এবং সুপার নাইটমুড ফিচার। এছাড়াও রয়েছে ২ক্স ফাস্ট জুম এবং ব্রাইট এলইডি লাইট প্রযুক্তি। থাকছে সেলফি মুডে ৪শ’ রেজ্যুলেশনে ৬০ ফ্রেমে ভিডিও ধারণ করার সুবিধা। নতুন ক্যামেরা ফিচার ‘ডিপ ফিউশন’ ছবি তোলার বাটনে চাপ দেয়ার আগেই ৮টি ছবি তুলবে। আর ছবি তোলার বাটনে চাপ দেয়ার পর সেগুলো একটি ছবিতে পরিণত হওয়ার আগে আরেকটি দীর্ঘ এক্সপোজারের ছবি তুলবে। এতে করে ছবি আরও নিখুঁত হবে।

ডিসপ্লে : এতে ব্যবহৃত হয়েছে ৬.১ ইঞ্চির লিকুইড রেটিনা ডেসিপ্লে, যেখানে পর্দার বিষয়বস্তু আরও জীবন্ত এবং প্রাণবন্ত হয়ে উঠবে। ধুলো ও পানিরোধী প্রো-তে রয়েছে ৫.৮ ইঞ্চির সুপার রেটিনা এক্সডিআর ডিসপ্লে। প্রো ম্যাক্স এর ডিসপ্লে হবে সাড়ে ছয় ইঞ্চির।

সাউন্ড ও ভিডিওর বিশেষ প্রযুক্তি : আইফোন ১১-তে থিয়েটার সাউন্ড প্রযুক্তি ব্যবহার করা হয়েছে এবং ডলবি আটমোস্ট সাউন্ড সিস্টেম যুক্ত করা হয়েছে। ফলে ঘরে বসেই থিয়েটারের মজা উপভোগ করা যাবে।

ফিচার দিয়ে ছবি তোলার সময় ক্যাপচার বাটন চেপে ধরে ভিডিও ধারণ করতে পারবেন, যা এ প্রথম কোনো স্মার্টফোনে যুক্ত করা হয়েছে। আইফোন ১১-তে ভিডিও ধারণে কাঁপুনি রোধে ব্যবহার করা হয়েছে ‘সিনেম্যাটিক স্ট্যাবিলাইজেশন’ প্রযুক্তি।

পারফর্ম্যান্স : অ্যাপল ঘোষণা দিয়েছে আইফোন ১১-কে তারা বাজারের সবচেয়ে দ্রুতগতির স্মার্টফোনে পরিণত করবে। স্মার্টফোন জগতে দ্রুতগতির পারফর্ম্যান্স এবং শক্তিশালী সিপিইউ/জিপিউ কার্যক্ষমতা বৃদ্ধি করতে এ১৩ বায়োনিক চিপসেট ব্যবহার করা হয়েছে।

ব্যাটারি : আগের চেয়ে ব্যাটারি ব্যাকআপও বেশি পাওয়া যাবে নতুন আইফোনগুলোয়। আইফোন ১১ প্রো-তে আগের আইফোন ঢএস-এর চেয়ে চার ঘণ্টা এবং আইফোন ১১ প্রো ম্যাক্সে আগের আইফোন ঢএস ম্যাক্সের চেয়ে পাঁচ ঘণ্টা বেশি ব্যাটারি ব্যাকআপ পাওয়া যাবে বলে দাবি করেছে অ্যাপল। নতুন আইফোনে আগের আইফোন থেকে দীর্ঘ ব্যাটারি লাইফ এবং পানি নিরোধক প্রযুক্তি শক্তিশালী করা হয়েছে।

দাম : আগামী শুক্রবার থেকে আইফোন ভক্তরা প্রি-অর্ডার করতে পারবেন এবং ২০ সেপ্টেম্বর থেকে বাজারে দেখা মিলবে নতুন আইফোনের। আইফোন ১১ প্রো-এর দাম শুরু হবে ৯৯৯ ডলার এবং প্রো ম্যাক্সের দাম শুরু হবে ১০৯৯ ডলার থেকে। এক্সএস ও এক্সআর-এর মতোই আইফোন ১১ প্রো ও আইফোন ১১-এর মূল পার্থক্য ওএলইডি স্ক্রিনেই। অ্যাপল বলছে, আইফোন ১১ প্রো হবে তাদের সবচেয়ে ভালো পারফর্ম্যান্সের আইফোন।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×