আসছে হলোগ্রাম চ্যাটিং সুবিধা
jugantor
আসছে হলোগ্রাম চ্যাটিং সুবিধা

  আইটি ডেস্ক  

১০ আগস্ট ২০২০, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

ভিডিও কনফারেন্সে মিটিং বা কোনো প্রেজেন্টেশনে ঘণ্টার পর ঘণ্টা যদি পর্দার দিকে তাকিয়ে বিরক্তি থেকে স্বস্তি দিতে সমাধান নিয়ে এসেছে লস অ্যাঞ্জেলসের প্রতিষ্ঠান পোর্টল।

ফোন বুথ আকারের মেশিনটির সাহায্যে পৌঁছে দেয়া যাবে নিজের হলোগ্রাফিক ছবি এবং কথা বলা যাবে বিপরীত পাশে মানুষটির সঙ্গে।

এক প্রতিবেদনে এসেছে, মেশিনে প্রয়াত স্বজন বা ঐতিহাসিক মানুষের হলোগ্রাফ রেকর্ড করে রাখার প্রযুক্তিও যোগ করা যাবে। পোর্টল ইনকর্পোরেটরের বানানো পুরো ডিভাইসটি সাত ফুট উঁচু, পাঁচ ফুট চওড়া এবং দুই ফুট গভীর। ‘আমাদের কথা হচ্ছে, আপনি ওখানে যেতে না পারলে, আপনি ওখানে নিজেকে বিম করতে পারেন,’ বলেছেন পোর্টল-এর প্রধান নির্বাহী ডেভিড নাসবাম। ‘এভাবে আমরা সামরিক পরিবারকে যুক্ত করিয়ে দিতে পারি যারা মাসের পর মাস একজন আরেকজনকে দেখেনি বা যারা করোনাভাইরাস লড়াইয়ে দূরত্ব মেনে চলছেন তারা,’ যোগ করেছেন নাসবাম।

এ ধরনের মেশিনের দাম শুরু হচ্ছে ৬০ হাজার ডলার থেকে। তবে, নাসবাম প্রত্যাশা করছেন আগামী তিন থেকে পাঁচ বছরের মধ্যে এ খরচ কমে আসবে। টেবিলের ওপর রাখা যাবে এবং স্বল্প দাম হবে এমন ছোট আকারের ডিভাইস আগামী বছর নাগাদ তৈরির পরিকল্পনাও করেছে প্রতিষ্ঠান।

ডিভাইসে চাইলে লস অ্যাঞ্জেলসভিত্তিক প্রতিষ্ঠান ‘স্টেরি ফাইলে’র কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তাসম্পন্ন প্রযুক্তিজুড়ে নিয়ে হলোগ্রাম রেকর্ডও তৈরি করা যাবে।

আসছে হলোগ্রাম চ্যাটিং সুবিধা

 আইটি ডেস্ক 
১০ আগস্ট ২০২০, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

ভিডিও কনফারেন্সে মিটিং বা কোনো প্রেজেন্টেশনে ঘণ্টার পর ঘণ্টা যদি পর্দার দিকে তাকিয়ে বিরক্তি থেকে স্বস্তি দিতে সমাধান নিয়ে এসেছে লস অ্যাঞ্জেলসের প্রতিষ্ঠান পোর্টল।

ফোন বুথ আকারের মেশিনটির সাহায্যে পৌঁছে দেয়া যাবে নিজের হলোগ্রাফিক ছবি এবং কথা বলা যাবে বিপরীত পাশে মানুষটির সঙ্গে।

এক প্রতিবেদনে এসেছে, মেশিনে প্রয়াত স্বজন বা ঐতিহাসিক মানুষের হলোগ্রাফ রেকর্ড করে রাখার প্রযুক্তিও যোগ করা যাবে। পোর্টল ইনকর্পোরেটরের বানানো পুরো ডিভাইসটি সাত ফুট উঁচু, পাঁচ ফুট চওড়া এবং দুই ফুট গভীর। ‘আমাদের কথা হচ্ছে, আপনি ওখানে যেতে না পারলে, আপনি ওখানে নিজেকে বিম করতে পারেন,’ বলেছেন পোর্টল-এর প্রধান নির্বাহী ডেভিড নাসবাম। ‘এভাবে আমরা সামরিক পরিবারকে যুক্ত করিয়ে দিতে পারি যারা মাসের পর মাস একজন আরেকজনকে দেখেনি বা যারা করোনাভাইরাস লড়াইয়ে দূরত্ব মেনে চলছেন তারা,’ যোগ করেছেন নাসবাম।

এ ধরনের মেশিনের দাম শুরু হচ্ছে ৬০ হাজার ডলার থেকে। তবে, নাসবাম প্রত্যাশা করছেন আগামী তিন থেকে পাঁচ বছরের মধ্যে এ খরচ কমে আসবে। টেবিলের ওপর রাখা যাবে এবং স্বল্প দাম হবে এমন ছোট আকারের ডিভাইস আগামী বছর নাগাদ তৈরির পরিকল্পনাও করেছে প্রতিষ্ঠান।

ডিভাইসে চাইলে লস অ্যাঞ্জেলসভিত্তিক প্রতিষ্ঠান ‘স্টেরি ফাইলে’র কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তাসম্পন্ন প্রযুক্তিজুড়ে নিয়ে হলোগ্রাম রেকর্ডও তৈরি করা যাবে।