মাস্ক পরতে বলছে রোবট
jugantor
মাস্ক পরতে বলছে রোবট

  তাহেরা তুজ শোভা  

১২ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

কোভিড-১৯ মহামারীর চলমান পরিস্থিতিতে নিজের এবং আশপাশের মানুষের সুরক্ষার জন্য মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক করেছে প্রায় দেশের স্বাস্থ্য সংস্থা।

এ সময়ে সমাবেশ এবং প্রদর্শনীতে ঘুরতে আসা ব্যক্তিদের কেউ মাস্ক না পরলে তা শনাক্ত করতে পারবে এমন একটি রোবট বানিয়েছেন প্রকৌশলীরা।

জানা যায়, মানুষকে বিনয়ের সঙ্গে মাস্ক পরার বিষয়টি মনে করিয়ে দেবে রোবটটি।

সফটব্যাংক রোবটিকস পিপার নামের ১২০ সেন্টিমিটার উচ্চতার রোবটটি বানিয়েছে। ইতোমধ্যে কয়েকটি দেশে দোকানে, প্রদর্শনী এবং জনসমাবেশে রোবটটি ব্যবহার করা হচ্ছে বলে জানা গেছে।

মানুষের মুখ স্ক্যান করতে পারে পিপার। যদি এটি শনাক্ত করতে পারে যে কোনো ব্যক্তির মুখের নিচের অংশ খোলা তবে রোবটটি বলছে, ‘আপনাকে সব সময় সঠিকভাবে মাস্ক পরতে হবে।’ এরপর যদি ওই ব্যক্তি নিজের মাস্ক পরেন তাহলে রোবটটি আবার বলছে, ‘মাস্ক পরার জন্য ধন্যবাদ।’

ইউরোপে সফটব্যাংক রোবটিকসের বিক্রয় প্রধান জনাথন বইরিয়া বলেন, মানুষ মাস্ক পরছে কি না, তা নজরদারি করতে রোবট পুলিশ রাখার কোনো ধারণা এটি নয়। বন্ধুসুলভভাবে মাস্ক পরার বিষয়টি মনে করিয়ে দেয়াই এ প্রকল্পের লক্ষ্য।

মাস্ক পরতে বলছে রোবট

 তাহেরা তুজ শোভা 
১২ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

কোভিড-১৯ মহামারীর চলমান পরিস্থিতিতে নিজের এবং আশপাশের মানুষের সুরক্ষার জন্য মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক করেছে প্রায় দেশের স্বাস্থ্য সংস্থা।

এ সময়ে সমাবেশ এবং প্রদর্শনীতে ঘুরতে আসা ব্যক্তিদের কেউ মাস্ক না পরলে তা শনাক্ত করতে পারবে এমন একটি রোবট বানিয়েছেন প্রকৌশলীরা।

জানা যায়, মানুষকে বিনয়ের সঙ্গে মাস্ক পরার বিষয়টি মনে করিয়ে দেবে রোবটটি।

সফটব্যাংক রোবটিকস পিপার নামের ১২০ সেন্টিমিটার উচ্চতার রোবটটি বানিয়েছে। ইতোমধ্যে কয়েকটি দেশে দোকানে, প্রদর্শনী এবং জনসমাবেশে রোবটটি ব্যবহার করা হচ্ছে বলে জানা গেছে।

মানুষের মুখ স্ক্যান করতে পারে পিপার। যদি এটি শনাক্ত করতে পারে যে কোনো ব্যক্তির মুখের নিচের অংশ খোলা তবে রোবটটি বলছে, ‘আপনাকে সব সময় সঠিকভাবে মাস্ক পরতে হবে।’ এরপর যদি ওই ব্যক্তি নিজের মাস্ক পরেন তাহলে রোবটটি আবার বলছে, ‘মাস্ক পরার জন্য ধন্যবাদ।’

ইউরোপে সফটব্যাংক রোবটিকসের বিক্রয় প্রধান জনাথন বইরিয়া বলেন, মানুষ মাস্ক পরছে কি না, তা নজরদারি করতে রোবট পুলিশ রাখার কোনো ধারণা এটি নয়। বন্ধুসুলভভাবে মাস্ক পরার বিষয়টি মনে করিয়ে দেয়াই এ প্রকল্পের লক্ষ্য।