দেশের ছয় প্রতিষ্ঠান পেল উইটসা অ্যাওয়ার্ড
jugantor
দেশের ছয় প্রতিষ্ঠান পেল উইটসা অ্যাওয়ার্ড

  সাইফ আহমাদ  

২২ নভেম্বর ২০২০, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

বাংলাদেশের ছয় প্রতিষ্ঠান পেল প্রযুক্তি খাতের অলিম্পিকখ্যাত ওয়ার্ল্ড কংগ্রেস অব ইনফরমেশন টেকনোলজির (ডব্লিউসিআইটি) সম্মেলনে উইটসা গ্লোবাল আইসিটি এক্সিলেন্স পুরস্কার।

ওয়ার্ল্ড ইনফরমেশন টেকনোলজি অ্যান্ড সার্ভিস অ্যালায়েন্সের (উইটসা) এ সম্মেলনে ৪টি বিভাগে রানার-আপ এবং ২টি বিভাগে মেরিট পুরস্কার পেয়েছে বাংলাদেশের প্রতিষ্ঠানগুলো।

উইটসা’র এ গ্লোবাল আইসিটি এক্সিলেন্স অ্যাওয়ার্ড-২০২০-এ মোট ১০টি বিভাগে ১০ চ্যাম্পিয়ন ও রানার-আপ এবং ২১টি মেরিট পুরস্কার ছিল।

মালয়েশিয়ায় বুধবার শুরু হয় তিন দিনের এ সম্মেলন। দ্বিতীয় দিনে এক্সিলেন্স অ্যাওয়ার্ড ঘোষণা করা হয়।

রানার-আপ পুরস্কার পাওয়া প্রতিষ্ঠানগুলো হল- কোভিড ১৯ টেক সলিউশনস ফর সিটিজ অ্যান্ড লোকালিটিজ বিভাগে তথ্যপ্রযুক্তি বিভাগের এটুআই প্রকল্প এবং বেসরকারি প্রতিষ্ঠান সিনেসিস আইটি লিমিটেড।

প্রাইভেট পার্টনারশিপ বিভাগে সরকারের ইনোভেশন ডিজাইন অ্যান্ড এন্টারপ্রেনারশিপ একাডেমি (আইডিয়া) প্রকল্প।

ইনোভেটিভ ই-হেলথ সল্যুশনস বিভাগে মাইসফটের মাই হেলথ বিডি এবং ভার্চুয়াল হসপিটাল অব বাংলাদেশ। ই-এডুকেশন অ্যান্ড লার্নিং বিভাগে বিজয় ডিজিটাল।

এছাড়া মেরিট পুরস্কার পেয়েছে ডিজিটাল অপারচুনিটি অর ইনক্লুশন বিভাগে নগদ এবং সাসটেইনেবল গ্রোথ বিভাগে ডিভাইন আইটি লিমিটেডের প্রিজম ইআরপি।

তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক আইডিয়া প্রকল্পের এ অর্জন ও অন্যান্য পুরস্কার বিজয়ীদের অভিনন্দন জানিয়েছেন। এ সম্মাননা ভবিষ্যতে আরও সফল উদ্যোগ নিতে সবাইকে অনুপ্রাণিত করবে বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

উইটসা’র চেয়ারম্যান সংস্থাটির ওয়েবসাইটে এক বার্তায় এবারের পুরস্কারের বিষয়ে বলেছেন, উইটসা’র ২০ বছরের ইতিহাসে এবারের মতো এত উদ্ভাবনী ও দক্ষ প্রকল্প এবং প্রতিষ্ঠানের সমৃদ্ধ প্রতিযোগিতা হয়নি। এছাড়াও পুরস্কার সম্পর্কে উইটসা কর্তৃপক্ষ জানিয়েছেন, চলতি বছর যেসব সংস্থা মানবজাতির জন্য সর্বাধিক উল্লেখযোগ্য অবদান রেখেছে, তাদের পুরস্কারের জন্য বিবেচনায় নেয়া হয়েছে।

দেশের ছয় প্রতিষ্ঠান পেল উইটসা অ্যাওয়ার্ড

 সাইফ আহমাদ 
২২ নভেম্বর ২০২০, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

বাংলাদেশের ছয় প্রতিষ্ঠান পেল প্রযুক্তি খাতের অলিম্পিকখ্যাত ওয়ার্ল্ড কংগ্রেস অব ইনফরমেশন টেকনোলজির (ডব্লিউসিআইটি) সম্মেলনে উইটসা গ্লোবাল আইসিটি এক্সিলেন্স পুরস্কার।

ওয়ার্ল্ড ইনফরমেশন টেকনোলজি অ্যান্ড সার্ভিস অ্যালায়েন্সের (উইটসা) এ সম্মেলনে ৪টি বিভাগে রানার-আপ এবং ২টি বিভাগে মেরিট পুরস্কার পেয়েছে বাংলাদেশের প্রতিষ্ঠানগুলো।

উইটসা’র এ গ্লোবাল আইসিটি এক্সিলেন্স অ্যাওয়ার্ড-২০২০-এ মোট ১০টি বিভাগে ১০ চ্যাম্পিয়ন ও রানার-আপ এবং ২১টি মেরিট পুরস্কার ছিল।

মালয়েশিয়ায় বুধবার শুরু হয় তিন দিনের এ সম্মেলন। দ্বিতীয় দিনে এক্সিলেন্স অ্যাওয়ার্ড ঘোষণা করা হয়।

রানার-আপ পুরস্কার পাওয়া প্রতিষ্ঠানগুলো হল- কোভিড ১৯ টেক সলিউশনস ফর সিটিজ অ্যান্ড লোকালিটিজ বিভাগে তথ্যপ্রযুক্তি বিভাগের এটুআই প্রকল্প এবং বেসরকারি প্রতিষ্ঠান সিনেসিস আইটি লিমিটেড।

প্রাইভেট পার্টনারশিপ বিভাগে সরকারের ইনোভেশন ডিজাইন অ্যান্ড এন্টারপ্রেনারশিপ একাডেমি (আইডিয়া) প্রকল্প।

ইনোভেটিভ ই-হেলথ সল্যুশনস বিভাগে মাইসফটের মাই হেলথ বিডি এবং ভার্চুয়াল হসপিটাল অব বাংলাদেশ। ই-এডুকেশন অ্যান্ড লার্নিং বিভাগে বিজয় ডিজিটাল।

এছাড়া মেরিট পুরস্কার পেয়েছে ডিজিটাল অপারচুনিটি অর ইনক্লুশন বিভাগে নগদ এবং সাসটেইনেবল গ্রোথ বিভাগে ডিভাইন আইটি লিমিটেডের প্রিজম ইআরপি।

তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক আইডিয়া প্রকল্পের এ অর্জন ও অন্যান্য পুরস্কার বিজয়ীদের অভিনন্দন জানিয়েছেন। এ সম্মাননা ভবিষ্যতে আরও সফল উদ্যোগ নিতে সবাইকে অনুপ্রাণিত করবে বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

উইটসা’র চেয়ারম্যান সংস্থাটির ওয়েবসাইটে এক বার্তায় এবারের পুরস্কারের বিষয়ে বলেছেন, উইটসা’র ২০ বছরের ইতিহাসে এবারের মতো এত উদ্ভাবনী ও দক্ষ প্রকল্প এবং প্রতিষ্ঠানের সমৃদ্ধ প্রতিযোগিতা হয়নি। এছাড়াও পুরস্কার সম্পর্কে উইটসা কর্তৃপক্ষ জানিয়েছেন, চলতি বছর যেসব সংস্থা মানবজাতির জন্য সর্বাধিক উল্লেখযোগ্য অবদান রেখেছে, তাদের পুরস্কারের জন্য বিবেচনায় নেয়া হয়েছে।