করোনা নিয়ন্ত্রণে কিউআর কোড চায় চীন
jugantor
করোনা নিয়ন্ত্রণে কিউআর কোড চায় চীন

  আইটি ডেস্ক  

২৫ নভেম্বর ২০২০, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

বৈশ্বিক যাতায়াতে কিউআর কোডভিত্তিক শনাক্তকারী পদ্ধতির ব্যবহারের ওপর গুরুত্বারোপ করেছেন চীনের রাষ্ট্রপতি শি জিন পিং।

তিনি মনে করেন এ পদ্ধতি সবাই ব্যবহার করলে ভ্রমণকারীদের শরীরে সংক্রমণ আছে কিনা তা মনিটর করতে সহজ হবে।এ ধরনের কোড নিউক্লিক অ্যাসিডভিত্তিক টেস্ট সার্টিফিকেট শনাক্ত করতে পারবে।

এক প্রতিবেদন বলছে, যাত্রীর শারীরিক অবস্থা পর্যবেক্ষণে সহায়তা করবে কিউআর কোড। এদিকে মানবাধিকার বিষয়ের আইনজীবীরা সতর্ক করেছেন যে, ‘বিস্তৃত পরিসরে রাজনৈতিক নজরদারি এবং বাধাদানের’ কাজে ব্যবহাত হতে পারে এই কোড।

জি২০ সামিটের অনলাইন সভায় এ প্রস্তাব তুলেছেন জিন পিং। চীনা প্রেসিডেন্ট বলেছেন, ‘নিউক্লিক অ্যাসিড পরীক্ষার ফলাফলের ওপর ভিত্তি করে স্বাস্থ্য সনদ’ শনাক্তের কাজে লাগতে পারে এ কোড।

কিউআর কোড হল এক ধরনের বার কোড, যা মোবাইল অ্যাপ দিয়ে পড়া যায়। ফেব্রুয়ারি মাস থেকে এ ব্যবস্থায় ট্রাফিক বাতির মতোর স্বাস্থ্য কোড ব্যবহার করছে চীন।

সবুজ কোডের মানে হচ্ছে ব্যবহারকারী উন্মুক্তভাবে যাতায়াত করতে পারবেন। আর কমলা বা লাল কোডের অর্থ তাকে দু’সপ্তাহ পর্যন্ত কোয়ারেন্টিনে থাকতে হবে।

করোনা নিয়ন্ত্রণে কিউআর কোড চায় চীন

 আইটি ডেস্ক 
২৫ নভেম্বর ২০২০, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

বৈশ্বিক যাতায়াতে কিউআর কোডভিত্তিক শনাক্তকারী পদ্ধতির ব্যবহারের ওপর গুরুত্বারোপ করেছেন চীনের রাষ্ট্রপতি শি জিন পিং।

তিনি মনে করেন এ পদ্ধতি সবাই ব্যবহার করলে ভ্রমণকারীদের শরীরে সংক্রমণ আছে কিনা তা মনিটর করতে সহজ হবে।এ ধরনের কোড নিউক্লিক অ্যাসিডভিত্তিক টেস্ট সার্টিফিকেট শনাক্ত করতে পারবে।

এক প্রতিবেদন বলছে, যাত্রীর শারীরিক অবস্থা পর্যবেক্ষণে সহায়তা করবে কিউআর কোড। এদিকে মানবাধিকার বিষয়ের আইনজীবীরা সতর্ক করেছেন যে, ‘বিস্তৃত পরিসরে রাজনৈতিক নজরদারি এবং বাধাদানের’ কাজে ব্যবহাত হতে পারে এই কোড।

জি২০ সামিটের অনলাইন সভায় এ প্রস্তাব তুলেছেন জিন পিং। চীনা প্রেসিডেন্ট বলেছেন, ‘নিউক্লিক অ্যাসিড পরীক্ষার ফলাফলের ওপর ভিত্তি করে স্বাস্থ্য সনদ’ শনাক্তের কাজে লাগতে পারে এ কোড।

কিউআর কোড হল এক ধরনের বার কোড, যা মোবাইল অ্যাপ দিয়ে পড়া যায়। ফেব্রুয়ারি মাস থেকে এ ব্যবস্থায় ট্রাফিক বাতির মতোর স্বাস্থ্য কোড ব্যবহার করছে চীন।

সবুজ কোডের মানে হচ্ছে ব্যবহারকারী উন্মুক্তভাবে যাতায়াত করতে পারবেন। আর কমলা বা লাল কোডের অর্থ তাকে দু’সপ্তাহ পর্যন্ত কোয়ারেন্টিনে থাকতে হবে।