স্টারশিপ মঙ্গলে যাবে ২০২৪ সালে
jugantor
স্টারশিপ মঙ্গলে যাবে ২০২৪ সালে

  আইটি ডেস্ক  

১৩ জানুয়ারি ২০২১, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

স্পেসএক্সের প্রতিষ্ঠাতা ইলন মাস্ক মঙ্গল গ্রহে মানুষের বসতি স্থাপন করতে চান। তার মতে অন্য গ্রহের সঙ্গে সংঘর্ষে বা প্রাকৃতিক দুর্যোগে পৃথিবী থেকে প্রাণের অস্তিত্ব বিলীন হতে পারে।

মঙ্গলযাত্রার জন্য খুব শিগগির মহাকাশ যান স্টারশিপের প্রটোটাইপ উন্মোচন করবে স্পেসএক্স। পুনরায় ব্যবহারযোগ্য স্টারশিপে করে মঙ্গলগ্রহে একসঙ্গে ১০০ মানুষ পাঠানোর প্রকল্প হাতে নিয়েছেন তিনি। মহাকাশ যানের উপরের অংশটির নাম স্টারশিপ। এর হবে উচ্চতা ৫০ মিটার। নিচের অংশে থাকবে সুপার হ্যাভি বুস্টার নামের রকেট।

যৌথভাবে মহাকাশ যান ও রকেটের উচ্চতা হবে ১২০ মিটার। মহাকাশে যাত্রা করার সময় সুপার হ্যাভিতে থাকবে ছয়টি র‌্যাপটর। উপরে আর নিচে থাকবে চারটি পাখা। শুধু র‌্যাপটর তৈরিতে এক দশকেরও বেশি সময় লেগেছে। সুপার হেভি বুস্টার রকেটের ওজন হবে ৩ হাজার ৩৩০ টন। ওড়ার সময় স্টারশিপ ও সুপার হ্যাভি আলাদা হয়ে যাবে। সুপার হ্যাভি পৃথিবীতেই রয়ে যাবে। স্টারশিপ চলে যাবে মঙ্গলে।

ফিরে আসবে ৯ মাস পর। প্রতিটি স্টারশিপে ৪০টি ক্যাবিন থাকবে। প্রতিটি ক্যাবিনে থাকবে ৩ জন। স্টারশিপের ভেতরে করে ১০০ টনের বেশি পণ্য ও ১০০ মানুষ কক্ষপথে পাঠানো সম্ভব হবে। অন্যান্য মহাকাশ যানকে পৃথিবীতে ফেরাতে প্যারাসুটের ওপর নির্ভর করতে হয়।

স্টারশিপ মঙ্গলে যাবে ২০২৪ সালে

 আইটি ডেস্ক 
১৩ জানুয়ারি ২০২১, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

স্পেসএক্সের প্রতিষ্ঠাতা ইলন মাস্ক মঙ্গল গ্রহে মানুষের বসতি স্থাপন করতে চান। তার মতে অন্য গ্রহের সঙ্গে সংঘর্ষে বা প্রাকৃতিক দুর্যোগে পৃথিবী থেকে প্রাণের অস্তিত্ব বিলীন হতে পারে।

মঙ্গলযাত্রার জন্য খুব শিগগির মহাকাশ যান স্টারশিপের প্রটোটাইপ উন্মোচন করবে স্পেসএক্স। পুনরায় ব্যবহারযোগ্য স্টারশিপে করে মঙ্গলগ্রহে একসঙ্গে ১০০ মানুষ পাঠানোর প্রকল্প হাতে নিয়েছেন তিনি। মহাকাশ যানের উপরের অংশটির নাম স্টারশিপ। এর হবে উচ্চতা ৫০ মিটার। নিচের অংশে থাকবে সুপার হ্যাভি বুস্টার নামের রকেট।

যৌথভাবে মহাকাশ যান ও রকেটের উচ্চতা হবে ১২০ মিটার। মহাকাশে যাত্রা করার সময় সুপার হ্যাভিতে থাকবে ছয়টি র‌্যাপটর। উপরে আর নিচে থাকবে চারটি পাখা। শুধু র‌্যাপটর তৈরিতে এক দশকেরও বেশি সময় লেগেছে। সুপার হেভি বুস্টার রকেটের ওজন হবে ৩ হাজার ৩৩০ টন। ওড়ার সময় স্টারশিপ ও সুপার হ্যাভি আলাদা হয়ে যাবে। সুপার হ্যাভি পৃথিবীতেই রয়ে যাবে। স্টারশিপ চলে যাবে মঙ্গলে।

ফিরে আসবে ৯ মাস পর। প্রতিটি স্টারশিপে ৪০টি ক্যাবিন থাকবে। প্রতিটি ক্যাবিনে থাকবে ৩ জন। স্টারশিপের ভেতরে করে ১০০ টনের বেশি পণ্য ও ১০০ মানুষ কক্ষপথে পাঠানো সম্ভব হবে। অন্যান্য মহাকাশ যানকে পৃথিবীতে ফেরাতে প্যারাসুটের ওপর নির্ভর করতে হয়।