ব্রডব্যান্ডে এগিয়ে গেলেও মোবাইল ইন্টারনেটে পিছিয়েছে বাংলাদেশ
jugantor
ব্রডব্যান্ডে এগিয়ে গেলেও মোবাইল ইন্টারনেটে পিছিয়েছে বাংলাদেশ

  আইটি ডেস্ক  

১৯ জুন ২০২১, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেটের গতির দিক থেকে ১৮০ দেশের মধ্যে পূর্বের স্থান থেকে বাংলাদেশ তিন ধাপ এগিয়েছে। তবে দেশে মোবাইল ইন্টারনেটের গতি বৃদ্ধি পেলেও ১৩৭ দেশের সঙ্গে পাল্লায় দুই ধাপ পিছিয়ে পড়েছে বাংলাদেশ। অনলাইনে ইন্টারনেটের গতি পরিমাপক জনপ্রিয় ওয়েবসাইট স্পিডটেস্টের গ্লোবাল ইনডেক্সের মে মাসে প্রকাশিত সূচকে এমন তথ্য উঠে এসেছে।

স্পিডটেস্টের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, এপ্রিলে ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেটের গতির দিক থেকে বাংলাদেশের অবস্থান ছিল ৯৯তম। মে মাস শেষে ইন্টারনেটের গতি অনুযায়ী, বাংলাদেশের অবস্থান হয়েছে ৯৬তম। গত মাস শেষে ব্রডব্যান্ড ব্যবহারকারী গড়ে ইন্টারনেটের গতি পেতেন ৩৮ দশমিক ১৩ মেগাবিট পার সেকেন্ড। অপরদিকে মোবাইল ইন্টারনেট ব্যবহারকারীরা গড়ে ১১ দশমিক ৩২ এমবিপিএস ইন্টারনেটের গতি পেলেও মে মাস শেষে তা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১২ দশমিক ৫৩। মোবাইল ইন্টারনেট গতি বৃদ্ধি পেলেও ১৩৭ দেশের মধ্যে বাংলাদেশের অবস্থানের অবনতি ঘটেছে। মোবাইল ইন্টারনেটের গতির দিক থেকে এপ্রিলে বাংলাদেশের অবস্থান ছিল ১৩২তম; যা মে মাস শেষে হয়েছে ১৩৪তম।

এদিকে বিশ্বে মোবাইল ইন্টারনেটের গতিতে সবচেয়ে এগিয়ে আছে সংযুক্ত আরব আমিরাত। দেশটির মোবাইল ইন্টারনেটের গতি ১৯৪ এমবিপিএসের বেশি। তার পরেই রয়েছে দক্ষিণ কোরিয়া ১৯২ এমবিপিএস, এরপরই রয়েছে কাতার, সৌদি আরব, চীন, নরওয়ে, কুয়েত ও অস্ট্রেলিয়া। ওইসব দেশের মোবাইল ইন্টারনেটের গতি ১২০-১৮০ এমবিপিএসের মধ্যে। অন্যদিকে বাংলাদেশের মোবাইল ইন্টারনেটের গতি মাত্র ১২.৫৩ এমবিপিএস। আর ভারতে ১৫.৩৪ এমবিপিএস এবং পাকিস্তানে প্রায় ২০ এমবিপিএস।

ব্রডব্যান্ডে এগিয়ে গেলেও মোবাইল ইন্টারনেটে পিছিয়েছে বাংলাদেশ

 আইটি ডেস্ক 
১৯ জুন ২০২১, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেটের গতির দিক থেকে ১৮০ দেশের মধ্যে পূর্বের স্থান থেকে বাংলাদেশ তিন ধাপ এগিয়েছে। তবে দেশে মোবাইল ইন্টারনেটের গতি বৃদ্ধি পেলেও ১৩৭ দেশের সঙ্গে পাল্লায় দুই ধাপ পিছিয়ে পড়েছে বাংলাদেশ। অনলাইনে ইন্টারনেটের গতি পরিমাপক জনপ্রিয় ওয়েবসাইট স্পিডটেস্টের গ্লোবাল ইনডেক্সের মে মাসে প্রকাশিত সূচকে এমন তথ্য উঠে এসেছে।

স্পিডটেস্টের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, এপ্রিলে ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেটের গতির দিক থেকে বাংলাদেশের অবস্থান ছিল ৯৯তম। মে মাস শেষে ইন্টারনেটের গতি অনুযায়ী, বাংলাদেশের অবস্থান হয়েছে ৯৬তম। গত মাস শেষে ব্রডব্যান্ড ব্যবহারকারী গড়ে ইন্টারনেটের গতি পেতেন ৩৮ দশমিক ১৩ মেগাবিট পার সেকেন্ড। অপরদিকে মোবাইল ইন্টারনেট ব্যবহারকারীরা গড়ে ১১ দশমিক ৩২ এমবিপিএস ইন্টারনেটের গতি পেলেও মে মাস শেষে তা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১২ দশমিক ৫৩। মোবাইল ইন্টারনেট গতি বৃদ্ধি পেলেও ১৩৭ দেশের মধ্যে বাংলাদেশের অবস্থানের অবনতি ঘটেছে। মোবাইল ইন্টারনেটের গতির দিক থেকে এপ্রিলে বাংলাদেশের অবস্থান ছিল ১৩২তম; যা মে মাস শেষে হয়েছে ১৩৪তম।

এদিকে বিশ্বে মোবাইল ইন্টারনেটের গতিতে সবচেয়ে এগিয়ে আছে সংযুক্ত আরব আমিরাত। দেশটির মোবাইল ইন্টারনেটের গতি ১৯৪ এমবিপিএসের বেশি। তার পরেই রয়েছে দক্ষিণ কোরিয়া ১৯২ এমবিপিএস, এরপরই রয়েছে কাতার, সৌদি আরব, চীন, নরওয়ে, কুয়েত ও অস্ট্রেলিয়া। ওইসব দেশের মোবাইল ইন্টারনেটের গতি ১২০-১৮০ এমবিপিএসের মধ্যে। অন্যদিকে বাংলাদেশের মোবাইল ইন্টারনেটের গতি মাত্র ১২.৫৩ এমবিপিএস। আর ভারতে ১৫.৩৪ এমবিপিএস এবং পাকিস্তানে প্রায় ২০ এমবিপিএস।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন