ফেসবুক ক্লাউড গেমিং অ্যাপল ডিভাইসে
jugantor
গেম
ফেসবুক ক্লাউড গেমিং অ্যাপল ডিভাইসে

  আইটি ডেস্ক  

২৬ জুলাই ২০২১, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

ফেসবুক ক্লাউড গেমিং অ্যাপল ডিভাইসে

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুক অ্যাপল ডিভাইসের জন্য নিজেদের ক্লাউড গেমিং সেবা নিয়ে এসেছে। তবে, অ্যাপ স্টোরে কোনো অ্যাপ আনেনি প্রতিষ্ঠানটি। সরাসরি সাফারি ব্রাউজারে ওয়েব অ্যাপের মাধ্যমে অ্যাপল ব্যবহারকারীদের সুবিধাটি দেবে তারা। নতুন নিয়ম প্রশ্নে অ্যাপল-ফেসবুক-এর যে বিতণ্ডা চলছিল, তা এখনো থামেনি। এরই মধ্যে ক্লাউড গেমিং সেবা নিয়ে নিজেদের সাম্প্রতিক পদক্ষেপটি নিল ফেসবুক। প্রযুক্তিবিষয়ক সাইট সিনেট মন্তব্য করেছে, ফেসবুক যে ক্লাউড গেমিংয়ে নিজেদের প্রচেষ্টা দ্বিগুণ করেছে, গোটা বিষয়টি সেদিকেই ইঙ্গিত দিচ্ছে। ফেসবুকের ক্লাউড গেমিং সেবা ব্যবহার করে মোবাইল ডিভাইস বা ওয়েব ব্রাউজারের মাধ্যমে কোনো গেম ডাউনলোড করা ছাড়াই খেলার সুযোগ পাবেন আগ্রহীরা। এর আগে অ্যাপল নিজেদের ক্লাউড গেমিং নীতিমালা আপডেট করেছিল। নতুন নীতিমালায় প্রতিষ্ঠানটি জানিয়েছিল, ক্লাউড গেমিংয়ে থাকা প্রতিটি স্ট্রিমিং গেমকে পৃথক পৃথক অ্যাপ হিসাবে বিবেচনা করে পর্যালোচনার জন্য অ্যাপ স্টোরে জমা দিতে হবে। অ্যাপলের এ নিয়মের ব্যাপারে উদ্বেগ প্রকাশ করেছিল ফেসবুক। ফেসবুক যে কৌশলে অ্যাপল ডিভাইসে ক্লাউড গেমিং নিয়ে এসেছে তা নতুন নয়। এর আগে মাইক্রোসফট ও অ্যামাজনের মতো প্রতিষ্ঠানগুলোও একই কৌশলে ওয়েব অ্যাপের মাধ্যমে নিজ নিজ ক্লাউড সেবা পৌঁছে দিয়েছে অ্যাপল ব্যবহারকারীদের হাতে। অন্যদের মতো বিকল্প রাস্তা বেছে নেওয়ার ব্যাপারটি স্বীকার করেছে ফেসবুক গেমিংও। বিভাগটির ভাইস প্রেসিডেন্ট ভিভেক শার্মা বলছেন, ‘আমরা অন্যদের মতো একই সিদ্ধান্তে এসেছি- এ মুহূর্তে আইওএসে ক্লাউড গেম স্ট্রিম করার শুধু একটিই উপায় ওয়েব অ্যাপ।’ তিনি আরও বলেন, ‘অনেকেই বলছেন, অ্যাপলের অ্যাপ স্টোরে ক্লাউড গেমিংয়ে ‘অনুমোদন’ দেওয়ার নীতি তেমন কোনো কিছুর অনুমোদন দেয় না একেবারেই।’ মানুষের ‘নতুন গেম খুঁজে পেতে, বিভিন্ন ডিভাইসে খেলতে এবং হাতের আইওএস অ্যাপ দিয়েই উচ্চ মানের গেমে প্রবেশ করার ক্ষেত্রে’ অ্যাপলের ক্লাউডে গেমিং নীতিমালা ‘প্রতিবন্ধকতা’ তৈরি করছে বলেও উল্লেখ করেন তিনি।

গেম

ফেসবুক ক্লাউড গেমিং অ্যাপল ডিভাইসে

 আইটি ডেস্ক 
২৬ জুলাই ২০২১, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ
ফেসবুক ক্লাউড গেমিং অ্যাপল ডিভাইসে
ছবি: সংগৃহীত

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুক অ্যাপল ডিভাইসের জন্য নিজেদের ক্লাউড গেমিং সেবা নিয়ে এসেছে। তবে, অ্যাপ স্টোরে কোনো অ্যাপ আনেনি প্রতিষ্ঠানটি। সরাসরি সাফারি ব্রাউজারে ওয়েব অ্যাপের মাধ্যমে অ্যাপল ব্যবহারকারীদের সুবিধাটি দেবে তারা। নতুন নিয়ম প্রশ্নে অ্যাপল-ফেসবুক-এর যে বিতণ্ডা চলছিল, তা এখনো থামেনি। এরই মধ্যে ক্লাউড গেমিং সেবা নিয়ে নিজেদের সাম্প্রতিক পদক্ষেপটি নিল ফেসবুক। প্রযুক্তিবিষয়ক সাইট সিনেট মন্তব্য করেছে, ফেসবুক যে ক্লাউড গেমিংয়ে নিজেদের প্রচেষ্টা দ্বিগুণ করেছে, গোটা বিষয়টি সেদিকেই ইঙ্গিত দিচ্ছে। ফেসবুকের ক্লাউড গেমিং সেবা ব্যবহার করে মোবাইল ডিভাইস বা ওয়েব ব্রাউজারের মাধ্যমে কোনো গেম ডাউনলোড করা ছাড়াই খেলার সুযোগ পাবেন আগ্রহীরা। এর আগে অ্যাপল নিজেদের ক্লাউড গেমিং নীতিমালা আপডেট করেছিল। নতুন নীতিমালায় প্রতিষ্ঠানটি জানিয়েছিল, ক্লাউড গেমিংয়ে থাকা প্রতিটি স্ট্রিমিং গেমকে পৃথক পৃথক অ্যাপ হিসাবে বিবেচনা করে পর্যালোচনার জন্য অ্যাপ স্টোরে জমা দিতে হবে। অ্যাপলের এ নিয়মের ব্যাপারে উদ্বেগ প্রকাশ করেছিল ফেসবুক। ফেসবুক যে কৌশলে অ্যাপল ডিভাইসে ক্লাউড গেমিং নিয়ে এসেছে তা নতুন নয়। এর আগে মাইক্রোসফট ও অ্যামাজনের মতো প্রতিষ্ঠানগুলোও একই কৌশলে ওয়েব অ্যাপের মাধ্যমে নিজ নিজ ক্লাউড সেবা পৌঁছে দিয়েছে অ্যাপল ব্যবহারকারীদের হাতে। অন্যদের মতো বিকল্প রাস্তা বেছে নেওয়ার ব্যাপারটি স্বীকার করেছে ফেসবুক গেমিংও। বিভাগটির ভাইস প্রেসিডেন্ট ভিভেক শার্মা বলছেন, ‘আমরা অন্যদের মতো একই সিদ্ধান্তে এসেছি- এ মুহূর্তে আইওএসে ক্লাউড গেম স্ট্রিম করার শুধু একটিই উপায় ওয়েব অ্যাপ।’ তিনি আরও বলেন, ‘অনেকেই বলছেন, অ্যাপলের অ্যাপ স্টোরে ক্লাউড গেমিংয়ে ‘অনুমোদন’ দেওয়ার নীতি তেমন কোনো কিছুর অনুমোদন দেয় না একেবারেই।’ মানুষের ‘নতুন গেম খুঁজে পেতে, বিভিন্ন ডিভাইসে খেলতে এবং হাতের আইওএস অ্যাপ দিয়েই উচ্চ মানের গেমে প্রবেশ করার ক্ষেত্রে’ অ্যাপলের ক্লাউডে গেমিং নীতিমালা ‘প্রতিবন্ধকতা’ তৈরি করছে বলেও উল্লেখ করেন তিনি।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন