রিউমর স্ক্যানার পেল আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি
jugantor
রিউমর স্ক্যানার পেল আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি

  আইটি ডেস্ক  

৩১ জুলাই ২০২১, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

বাংলাদেশের দ্বিতীয় তথ্য যাচাইকারী প্রতিষ্ঠান হিসাবে আন্তর্জাতিক ফ্যাক্ট-চেকিং নেটওয়ার্কের স্বীকৃতি পেয়েছে রিউমর স্ক্যানার বাংলাদেশ। পয়েন্টার ইনস্টিটিউট অব জার্নালিজমের অঙ্গ সংগঠন ইন্টারন্যাশনাল ফ্যাক্ট-চেকিং নেটওয়ার্ক (আইএফসিএন) বুধবার এ স্বীকৃতি প্রদান করেছে। পয়েন্টারের তথ্য যাচাই কার্যক্রম পলিটিফ্যাক্ট ২০০৯ সালে সাংবাদিকতার নোবেল পুরস্কারখ্যাত পুলিৎজার পুরস্কার পায়। ফলে ফ্যাক্ট চেকিং বা তথ্য-যাচাই সাংবাদিকতায় একটি গ্রহণযোগ্য ধারা হয়ে উঠতে শুরু করে। বিশ্বব্যাপী স্বাধীন ও মানসম্মত তথ্য যাচাই কার্যক্রম পরিচালনার লক্ষ্যে পয়েন্টারের অঙ্গসংগঠন হিসাবে ২০১৫ সালে প্রতিষ্ঠা পাওয়া আইএফসিএন চলতি বছর নোবেল শান্তি পুরস্কারের মনোনয়ন পেয়েছে।

রিউমর স্ক্যানারের প্রতিষ্ঠাতা সুমন আহমেদ জানান, আমাদের জন্য এটি অত্যন্ত গৌরবের একটি বিষয়, এমন একটি দায়িত্বশীল প্রতিষ্ঠান কর্তৃক আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি অর্জন বেশ সুখকর। ব্যক্তি উদ্যোগে প্রাতিষ্ঠানিক সাহায্য ছাড়া এ যাত্রাটা আমাদের জন্য বেশ চ্যালেঞ্জিং ছিল। তবে আমাদের টিম মেম্বারদের ডেডিকেশনের কারণে যাত্রাটা কিছুটা হলেও সহজ হয়েছে।

রিউমর স্ক্যানার পেল আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি

 আইটি ডেস্ক 
৩১ জুলাই ২০২১, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

বাংলাদেশের দ্বিতীয় তথ্য যাচাইকারী প্রতিষ্ঠান হিসাবে আন্তর্জাতিক ফ্যাক্ট-চেকিং নেটওয়ার্কের স্বীকৃতি পেয়েছে রিউমর স্ক্যানার বাংলাদেশ। পয়েন্টার ইনস্টিটিউট অব জার্নালিজমের অঙ্গ সংগঠন ইন্টারন্যাশনাল ফ্যাক্ট-চেকিং নেটওয়ার্ক (আইএফসিএন) বুধবার এ স্বীকৃতি প্রদান করেছে। পয়েন্টারের তথ্য যাচাই কার্যক্রম পলিটিফ্যাক্ট ২০০৯ সালে সাংবাদিকতার নোবেল পুরস্কারখ্যাত পুলিৎজার পুরস্কার পায়। ফলে ফ্যাক্ট চেকিং বা তথ্য-যাচাই সাংবাদিকতায় একটি গ্রহণযোগ্য ধারা হয়ে উঠতে শুরু করে। বিশ্বব্যাপী স্বাধীন ও মানসম্মত তথ্য যাচাই কার্যক্রম পরিচালনার লক্ষ্যে পয়েন্টারের অঙ্গসংগঠন হিসাবে ২০১৫ সালে প্রতিষ্ঠা পাওয়া আইএফসিএন চলতি বছর নোবেল শান্তি পুরস্কারের মনোনয়ন পেয়েছে।

রিউমর স্ক্যানারের প্রতিষ্ঠাতা সুমন আহমেদ জানান, আমাদের জন্য এটি অত্যন্ত গৌরবের একটি বিষয়, এমন একটি দায়িত্বশীল প্রতিষ্ঠান কর্তৃক আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি অর্জন বেশ সুখকর। ব্যক্তি উদ্যোগে প্রাতিষ্ঠানিক সাহায্য ছাড়া এ যাত্রাটা আমাদের জন্য বেশ চ্যালেঞ্জিং ছিল। তবে আমাদের টিম মেম্বারদের ডেডিকেশনের কারণে যাত্রাটা কিছুটা হলেও সহজ হয়েছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন