আট লাখ অ্যাপ সরিয়েছে গুগল ও অ্যাপল
jugantor
আট লাখ অ্যাপ সরিয়েছে গুগল ও অ্যাপল

  আইটি ডেস্ক  

২৬ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

আট লাখ অ্যাপ সরিয়েছে গুগল ও অ্যাপল

মার্কিন ২ প্রযুক্তি জায়ান্ট প্রতিষ্ঠান গুগল ও অ্যাপল নিজেদের স্টোর থেকে ৮ লক্ষাধিক অ্যাপ সরিয়ে নিয়েছে। সম্প্রতি পিক্সেলেট-এর ‘এইচ-ওয়ান ২০২১’ ডিলিস্টেড মোবাইল অ্যাপ রিপোর্ট থেকে এ তথ্য জানা গেছে।

চলতি বছরের প্রথম ৬ মাসের মধ্যে গুগল প্লে-স্টোর আর অ্যাপেল অ্যাপ স্টোর থেকে ৮ লাখ ১৩ হাজারেরও বেশি অ্যাপ সরানো হয়েছে। যদিও এ অ্যাপগুলো ডিলিস্ট হওয়ার আগে গুগল প্লে স্টোর থেকে একশ কোটি বারেরও বেশি ডাউনলোড হয়েছে।

ক্যালিফোর্নিয়ার পিক্সেলেট অনুযায়ী, অ্যাপেল অ্যাপ স্টোর থেকে এই অ্যাপগুলোকে সরিয়ে নেওয়ার আগে ২.১ কোটি কাস্টোমার রিভিউ আর রেটিংস পেয়ে ছিল। তাই অ্যাপ স্টোর থেকে সরিয়ে নেওয়া হলেও লাখ লাখ ইউজারের স্মার্টফোন এই অ্যাপগুলো থাকার সম্ভাবনা রয়েছে।

প্রতিবেদনে দেখা যায়, গুগল প্লে স্টোরের ৮৬ শতাংশ আর অ্যাপেল অ্যাপ স্টোরের ৮৯ শতাংশ মোবাইল অ্যাপ ১২ বছর আর তার থেকে কম বয়সের শিশুদের টার্গেট করেছিল। এটাও দেখা গিয়েছে যে, ২৫ শতাংশ প্লে স্টোর অ্যাপস আর ৫৯ শতাংশ অ্যাপ স্টোর অ্যাপসে কোনো প্রাইভেসি পলিসি নেই।

২৬ শতাংশ অ্যাপ রাশিয়ান গুগল প্লে স্টোর থেকে সরানো হয়েছে আর ৬০ শতাংশ অ্যাপ চীনের অ্যাপ স্টোরে লিস্টেড ছিল। চীনের অ্যাপ স্টোরে কোনো প্রাইভেসি পলিসি ছিল না।

যে অ্যাপগুলো সরিয়ে দেওয়া হয়েছে তাদের মধ্যে ৬৬ শতাংশ অ্যাপে কমপক্ষে একটি বিপজ্জনক পারমিশন ছিল। এ ক্ষতিকারক পারমিশনগুলোকে রানটাইম পারমিশনও বলা হয়। এর সাহায্যে এই এপ্লিকেশনগুলো সহজেই আপনার ফোনের ডেটার অ্যাক্সেস করতে পারে। যার কারণে সিস্টেম এবং অন্যান্য অ্যাপের কার্যকারিতা প্রভাবিত হতে শুরু করে।

আট লাখ অ্যাপ সরিয়েছে গুগল ও অ্যাপল

 আইটি ডেস্ক 
২৬ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ
আট লাখ অ্যাপ সরিয়েছে গুগল ও অ্যাপল
ছবি: সংগৃহীত

মার্কিন ২ প্রযুক্তি জায়ান্ট প্রতিষ্ঠান গুগল ও অ্যাপল নিজেদের স্টোর থেকে ৮ লক্ষাধিক অ্যাপ সরিয়ে নিয়েছে। সম্প্রতি পিক্সেলেট-এর ‘এইচ-ওয়ান ২০২১’ ডিলিস্টেড মোবাইল অ্যাপ রিপোর্ট থেকে এ তথ্য জানা গেছে।

চলতি বছরের প্রথম ৬ মাসের মধ্যে গুগল প্লে-স্টোর আর অ্যাপেল অ্যাপ স্টোর থেকে ৮ লাখ ১৩ হাজারেরও বেশি অ্যাপ সরানো হয়েছে। যদিও এ অ্যাপগুলো ডিলিস্ট হওয়ার আগে গুগল প্লে স্টোর থেকে একশ কোটি বারেরও বেশি ডাউনলোড হয়েছে।

ক্যালিফোর্নিয়ার পিক্সেলেট অনুযায়ী, অ্যাপেল অ্যাপ স্টোর থেকে এই অ্যাপগুলোকে সরিয়ে নেওয়ার আগে ২.১ কোটি কাস্টোমার রিভিউ আর রেটিংস পেয়ে ছিল। তাই অ্যাপ স্টোর থেকে সরিয়ে নেওয়া হলেও লাখ লাখ ইউজারের স্মার্টফোন এই অ্যাপগুলো থাকার সম্ভাবনা রয়েছে।

প্রতিবেদনে দেখা যায়, গুগল প্লে স্টোরের ৮৬ শতাংশ আর অ্যাপেল অ্যাপ স্টোরের ৮৯ শতাংশ মোবাইল অ্যাপ ১২ বছর আর তার থেকে কম বয়সের শিশুদের টার্গেট করেছিল। এটাও দেখা গিয়েছে যে, ২৫ শতাংশ প্লে স্টোর অ্যাপস আর ৫৯ শতাংশ অ্যাপ স্টোর অ্যাপসে কোনো প্রাইভেসি পলিসি নেই।

২৬ শতাংশ অ্যাপ রাশিয়ান গুগল প্লে স্টোর থেকে সরানো হয়েছে আর ৬০ শতাংশ অ্যাপ চীনের অ্যাপ স্টোরে লিস্টেড ছিল। চীনের অ্যাপ স্টোরে কোনো প্রাইভেসি পলিসি ছিল না।

যে অ্যাপগুলো সরিয়ে দেওয়া হয়েছে তাদের মধ্যে ৬৬ শতাংশ অ্যাপে কমপক্ষে একটি বিপজ্জনক পারমিশন ছিল। এ ক্ষতিকারক পারমিশনগুলোকে রানটাইম পারমিশনও বলা হয়। এর সাহায্যে এই এপ্লিকেশনগুলো সহজেই আপনার ফোনের ডেটার অ্যাক্সেস করতে পারে। যার কারণে সিস্টেম এবং অন্যান্য অ্যাপের কার্যকারিতা প্রভাবিত হতে শুরু করে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন