২০২২ সালে প্রযুক্তিতে পরিবর্তনের পাঁচ পূর্বাভাস
jugantor
২০২২ সালে প্রযুক্তিতে পরিবর্তনের পাঁচ পূর্বাভাস

  আইটি ডেস্ক  

২৬ জানুয়ারি ২০২২, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

প্রযুক্তি ও ডিজিটালাইজেশনে গ্রিন ট্রান্সফরমেশন (সবুজ রূপান্তর) কীভাবে সক্ষম করা যায় তারই উপায় নিয়ে পূর্বাভাস প্রতিবেদনের সপ্তম সংস্করণ উন্মোচন করেছে টেলিনর গ্রুপের সায়েন্টিফিক রিসার্চ ইউনিট। প্রতিষ্ঠানটি মনে করে, আগামী দিনে বিষয়টিই গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে। ২৪ জানুয়ারি এক অনুষ্ঠানে টেলিনরের গবেষণা থেকে প্রাপ্ত ফলাফল প্রকাশ করে গ্রামীণফোন।

যে পাঁচ পূর্বাভাস দেওয়া হয়েছে-

১. অচিরেই আসবে গ্রিন ক্লাউড।

২. জলবায়ুবিষয়ক মাইক্রো ডিগ্রির চাহিদা বাড়বে।

৩. সবকিছুর অপটিমাইজেশন হবে।

৪. গ্রিনফ্লুয়েন্সারদের আবির্ভাব ও ট্রেন্ড চালু হবে।

৫. ‘লস্ট জেনারেশন’র কাছে হেরে যাবেন না (মেধায় ও যোগ্যতায় পাল্লা দিয়ে টিকে থাকতে হবে)।

অনুষ্ঠানে টেলিনর রিসার্চের প্রধান বিওন তালে স্যান্ডবার্গ ভার্চুয়ালি যুক্ত হয়ে প্রতিবেদন তুলে ধরেন। স্যান্ডবার্গ বলেন, জলবায়ু পরিবর্তন এবং পরিবেশগত অবক্ষয় নিয়ে কাজ করার প্রয়োজনীয়তার বিষয়টি অনুধাবন করে সর্বত্রই মানুষ এখন সচেতন হচ্ছে।

গ্রামীণফোনের প্রধান নির্বাহী ইয়াসির আজমান বলেন, এ বছর প্রযুক্তি সংক্রান্ত অনুমান দেখিয়েছে, কীভাবে প্রযুক্তি এবং ডিজিটালাইজেশন ডেটা স্থানান্তরকে আরও দক্ষ, সহজ এবং আমাদের ডিভাইসগুলোকে আরও পরিবেশবান্ধব করে তুলবে।

ভিডিও বার্তায় আইসিটি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেন, ‘চতুর্থ শিল্পবিপ্লবের প্রযুক্তি অনুসারে আমরা সারা দেশে আইটি প্রশিক্ষণ কেন্দ্র এবং ল্যাব তৈরি করেছি।’ চতুর্থ শিল্পবিপ্লবের ডিজিটাল লিডারশিপ অ্যাকাডেমি এবং আরও অনেক ডিজিটাল অবকাঠামো এবং সেবা চালু করার কথা তুলে ধরেন পলক।

অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশনের মহাপরিচালক (সিস্টেমস অ্যান্ড সার্ভিসেস) ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মো. নাসিম পারভেজ, পল্লী কর্মসহায়ক ফাউন্ডেশনের (পিকেএসএফ) চেয়ারম্যান ড. কাজী খলীকুজ্জমান আহমদ, বিকাশের প্রধান নির্বাহী কামাল কাদির, বেলার প্রধান নির্বাহী সৈয়দা রিজওয়ানা হাসান উপস্থিত ছিলেন।

২০২২ সালে প্রযুক্তিতে পরিবর্তনের পাঁচ পূর্বাভাস

 আইটি ডেস্ক 
২৬ জানুয়ারি ২০২২, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

প্রযুক্তি ও ডিজিটালাইজেশনে গ্রিন ট্রান্সফরমেশন (সবুজ রূপান্তর) কীভাবে সক্ষম করা যায় তারই উপায় নিয়ে পূর্বাভাস প্রতিবেদনের সপ্তম সংস্করণ উন্মোচন করেছে টেলিনর গ্রুপের সায়েন্টিফিক রিসার্চ ইউনিট। প্রতিষ্ঠানটি মনে করে, আগামী দিনে বিষয়টিই গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে। ২৪ জানুয়ারি এক অনুষ্ঠানে টেলিনরের গবেষণা থেকে প্রাপ্ত ফলাফল প্রকাশ করে গ্রামীণফোন।

যে পাঁচ পূর্বাভাস দেওয়া হয়েছে-

১. অচিরেই আসবে গ্রিন ক্লাউড।

২. জলবায়ুবিষয়ক মাইক্রো ডিগ্রির চাহিদা বাড়বে।

৩. সবকিছুর অপটিমাইজেশন হবে।

৪. গ্রিনফ্লুয়েন্সারদের আবির্ভাব ও ট্রেন্ড চালু হবে।

৫. ‘লস্ট জেনারেশন’র কাছে হেরে যাবেন না (মেধায় ও যোগ্যতায় পাল্লা দিয়ে টিকে থাকতে হবে)।

অনুষ্ঠানে টেলিনর রিসার্চের প্রধান বিওন তালে স্যান্ডবার্গ ভার্চুয়ালি যুক্ত হয়ে প্রতিবেদন তুলে ধরেন। স্যান্ডবার্গ বলেন, জলবায়ু পরিবর্তন এবং পরিবেশগত অবক্ষয় নিয়ে কাজ করার প্রয়োজনীয়তার বিষয়টি অনুধাবন করে সর্বত্রই মানুষ এখন সচেতন হচ্ছে।

গ্রামীণফোনের প্রধান নির্বাহী ইয়াসির আজমান বলেন, এ বছর প্রযুক্তি সংক্রান্ত অনুমান দেখিয়েছে, কীভাবে প্রযুক্তি এবং ডিজিটালাইজেশন ডেটা স্থানান্তরকে আরও দক্ষ, সহজ এবং আমাদের ডিভাইসগুলোকে আরও পরিবেশবান্ধব করে তুলবে।

ভিডিও বার্তায় আইসিটি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেন, ‘চতুর্থ শিল্পবিপ্লবের প্রযুক্তি অনুসারে আমরা সারা দেশে আইটি প্রশিক্ষণ কেন্দ্র এবং ল্যাব তৈরি করেছি।’ চতুর্থ শিল্পবিপ্লবের ডিজিটাল লিডারশিপ অ্যাকাডেমি এবং আরও অনেক ডিজিটাল অবকাঠামো এবং সেবা চালু করার কথা তুলে ধরেন পলক।

অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশনের মহাপরিচালক (সিস্টেমস অ্যান্ড সার্ভিসেস) ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মো. নাসিম পারভেজ, পল্লী কর্মসহায়ক ফাউন্ডেশনের (পিকেএসএফ) চেয়ারম্যান ড. কাজী খলীকুজ্জমান আহমদ, বিকাশের প্রধান নির্বাহী কামাল কাদির, বেলার প্রধান নির্বাহী সৈয়দা রিজওয়ানা হাসান উপস্থিত ছিলেন।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন