ওমেনটরের দ্বিতীয় ব্যাচ সম্পন্ন
jugantor
ওমেনটরের দ্বিতীয় ব্যাচ সম্পন্ন

  আইটি ডেস্ক  

২৯ জানুয়ারি ২০২২, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

ইঞ্জিনিয়ারিং বিষয়ে অধ্যয়নরত ছাত্রীদের জন্য বিশেষ প্রশিক্ষণমূলক কর্মসূচি বাংলালিংক ওমেনটরের ২য় ব্যাচ শেষ হয়েছে। সমাপনী অনুষ্ঠানে বিদায়ী ব্যাচের উদ্দেশে বাংলালিংকের চিফ হিউম্যান রিসোর্সেস অ্যান্ড অ্যাডমিনিস্ট্রেশন অফিসার মনজুলা মোরশেদ, অ্যাক্টিং চিফ টেকনোলজি অফিসার হাসনাত রেজা মাহবুব আলম ও হেড অফ ট্যালেন্ট ম্যানেজমেন্ট আয়েশা সাঈদ বক্তব্য দেন। ২০২০ সালে চালু হওয়া এ কর্মসূচিতে ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের তৃতীয় ও চতুর্থবর্ষের ছাত্রীরা বাংলালিংকে কর্মরত অভিজ্ঞ নারী প্রকৌশলীদের কাছ থেকে প্রশিক্ষণের সুযোগ পেয়ে থাকে।

২০২১ সালের জুলাইয়ে বাংলালিংক ওমেনটরের আবেদন প্রক্রিয়া শুরু হওয়ার পর দেশের সব প্রান্ত থেকে অংশগ্রহণকারীদের ব্যাপক সাড়া পাওয়া যায়। মোট ১০ জন নির্বাচিত অংশগ্রহণকারীকে এ কর্মসূচিতে পৃথক পৃথকভাবে প্রশিক্ষকদের সঙ্গে প্রতি মাসে বিভিন্ন সেশনে যোগ দেওয়ার সুযোগ দেওয়া হয়। টেলিকম খাতে ব্যবহৃত প্রযুক্তি সম্পর্কে জ্ঞানের পাশাপাশি তাদের করপোরেটে ক্যারিয়ার গঠন সম্পর্কে ধারণা দেওয়া হয়।

মনজুলা মোরশেদ বলেন, ‘বাংলালিংক ওমেনটরের দ্বিতীয় সেশন সফলভাবে শেষ করতে পেরে আমরা আনন্দিত। সব অংশগ্রহণকারী যেভাবে আমাদের অভিজ্ঞ মেনটরদের কাছ থেকে শেখার আগ্রহ দেখিয়েছে এবং এ উদ্যোগকে প্রত্যাশা অনুযায়ী সফল করতে ভূমিকা রেখেছে, তা সত্যিই আশাব্যঞ্জক। আমি আশাবাদী যে, তারা এ অভিজ্ঞতা কাজে লাগিয়ে সঠিকভাবে তাদের ক্যারিয়ার শুরু করবে যা বাংলালিংক ওমেনটরের পরবর্তী ব্যাচগুলোর জন্য অনুসরণীয় হয়ে থাকবে।’

ওমেনটরের দ্বিতীয় ব্যাচ সম্পন্ন

 আইটি ডেস্ক 
২৯ জানুয়ারি ২০২২, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

ইঞ্জিনিয়ারিং বিষয়ে অধ্যয়নরত ছাত্রীদের জন্য বিশেষ প্রশিক্ষণমূলক কর্মসূচি বাংলালিংক ওমেনটরের ২য় ব্যাচ শেষ হয়েছে। সমাপনী অনুষ্ঠানে বিদায়ী ব্যাচের উদ্দেশে বাংলালিংকের চিফ হিউম্যান রিসোর্সেস অ্যান্ড অ্যাডমিনিস্ট্রেশন অফিসার মনজুলা মোরশেদ, অ্যাক্টিং চিফ টেকনোলজি অফিসার হাসনাত রেজা মাহবুব আলম ও হেড অফ ট্যালেন্ট ম্যানেজমেন্ট আয়েশা সাঈদ বক্তব্য দেন। ২০২০ সালে চালু হওয়া এ কর্মসূচিতে ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের তৃতীয় ও চতুর্থবর্ষের ছাত্রীরা বাংলালিংকে কর্মরত অভিজ্ঞ নারী প্রকৌশলীদের কাছ থেকে প্রশিক্ষণের সুযোগ পেয়ে থাকে।

২০২১ সালের জুলাইয়ে বাংলালিংক ওমেনটরের আবেদন প্রক্রিয়া শুরু হওয়ার পর দেশের সব প্রান্ত থেকে অংশগ্রহণকারীদের ব্যাপক সাড়া পাওয়া যায়। মোট ১০ জন নির্বাচিত অংশগ্রহণকারীকে এ কর্মসূচিতে পৃথক পৃথকভাবে প্রশিক্ষকদের সঙ্গে প্রতি মাসে বিভিন্ন সেশনে যোগ দেওয়ার সুযোগ দেওয়া হয়। টেলিকম খাতে ব্যবহৃত প্রযুক্তি সম্পর্কে জ্ঞানের পাশাপাশি তাদের করপোরেটে ক্যারিয়ার গঠন সম্পর্কে ধারণা দেওয়া হয়।

মনজুলা মোরশেদ বলেন, ‘বাংলালিংক ওমেনটরের দ্বিতীয় সেশন সফলভাবে শেষ করতে পেরে আমরা আনন্দিত। সব অংশগ্রহণকারী যেভাবে আমাদের অভিজ্ঞ মেনটরদের কাছ থেকে শেখার আগ্রহ দেখিয়েছে এবং এ উদ্যোগকে প্রত্যাশা অনুযায়ী সফল করতে ভূমিকা রেখেছে, তা সত্যিই আশাব্যঞ্জক। আমি আশাবাদী যে, তারা এ অভিজ্ঞতা কাজে লাগিয়ে সঠিকভাবে তাদের ক্যারিয়ার শুরু করবে যা বাংলালিংক ওমেনটরের পরবর্তী ব্যাচগুলোর জন্য অনুসরণীয় হয়ে থাকবে।’

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন