স্মার্টফোনের চাহিদা পুনরুদ্ধারের আভাস
jugantor
স্মার্টফোনের চাহিদা পুনরুদ্ধারের আভাস

  আইটি ডেস্ক  

০২ জুলাই ২০২২, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

বিগত কয়েক প্রান্তিক থেকেই বিশ্বব্যাপী স্মার্টফোনের চাহিদা কমেছে অনেকাংশেই। ইউক্রেন যুদ্ধ ও চীনে দুই মাসের লকডাউনে স্মার্টফোন বাজারে বেশ জোরে ধাক্কা লাগে।

এবার সুখবর দিচ্ছে বিজনেস কোরিয়া। সম্প্রতি প্রকাশিত এশিয়ান মার্কেটিং রিভিউতে বলা হয়, সেপ্টেম্বরেই ঘুরে দাঁড়াতে পারে স্মার্টফোন খাত। চলতি বছরের দ্বিতীয় প্রান্তিকে সর্বাধিক স্মার্টফোন বিক্রেতা কোম্পানি স্যামসাংয়ের স্মার্টফোন বিক্রি ১৫ শতাংশ কমে ৬ কোটি ১০ লাখ ইউনিটে দাঁড়িয়েছে। মে ও জুনে চীনা স্মার্টফোন নির্মাতাদের সরবরাহ অনেক কমেছে। বছরের শেষের দিকে কী পরিমাণ স্মার্টফোন বিক্রি হবে তার পূর্বাভাস দেওয়া এখনো কঠিন। বিনিয়োগকারীরা যেসব বিষয়ে সবচেয়ে বেশি আগ্রহী তা হলো, গ্রেটার চায়না কোম্পানি ও এসইসিতে স্মার্টফোনের নিম্নমুখী প্রবণতা, বৈশ্বিক স্মার্টফোন শিপমেন্ট আগের অবস্থায় ফেরার সময়কাল, এক্সআর মডেলের উন্মোচন ও এক্সআর ইন্ডাস্ট্রির সম্প্রসারণ। প্রিমিয়াম স্মার্টফোন সেগমেন্টে সাম্প্রতিক জটিলতার তেমন প্রভাব দেখা যাচ্ছে না। চলতি বছরের দ্বিতীয়ার্ধে আইফোন ১৪ প্রো উন্মোচন করতে যাচ্ছে অ্যাপল। বিশ্লেষকরা বলছেন, গ্রাহকরা সানন্দেই নতুন আইফোন তুলে নেবেন। স্যামসাংয়ের ফোল্ডেবল সিরিজ গ্যালাক্সি জি ফোল্ড ৪ ও জি ফ্লিপ ৪ বাজারে এলেও আগের মতো গ্রহণযোগ্যতার আশাবাদ সংশ্লিষ্টদের। অ্যাপলের আইফোন ১৪ প্রো ও স্যামসাংয়ের ফোল্ডেবল সিরিজের ফোনগুলো দ্বিতীয়ার্ধে আসায় স্মার্টফোনের চাহিদা পুনরুদ্ধার হবে বলে মনে করেন বিশ্লেষকরা।

স্মার্টফোনের চাহিদা পুনরুদ্ধারের আভাস

 আইটি ডেস্ক 
০২ জুলাই ২০২২, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

বিগত কয়েক প্রান্তিক থেকেই বিশ্বব্যাপী স্মার্টফোনের চাহিদা কমেছে অনেকাংশেই। ইউক্রেন যুদ্ধ ও চীনে দুই মাসের লকডাউনে স্মার্টফোন বাজারে বেশ জোরে ধাক্কা লাগে।

এবার সুখবর দিচ্ছে বিজনেস কোরিয়া। সম্প্রতি প্রকাশিত এশিয়ান মার্কেটিং রিভিউতে বলা হয়, সেপ্টেম্বরেই ঘুরে দাঁড়াতে পারে স্মার্টফোন খাত। চলতি বছরের দ্বিতীয় প্রান্তিকে সর্বাধিক স্মার্টফোন বিক্রেতা কোম্পানি স্যামসাংয়ের স্মার্টফোন বিক্রি ১৫ শতাংশ কমে ৬ কোটি ১০ লাখ ইউনিটে দাঁড়িয়েছে। মে ও জুনে চীনা স্মার্টফোন নির্মাতাদের সরবরাহ অনেক কমেছে। বছরের শেষের দিকে কী পরিমাণ স্মার্টফোন বিক্রি হবে তার পূর্বাভাস দেওয়া এখনো কঠিন। বিনিয়োগকারীরা যেসব বিষয়ে সবচেয়ে বেশি আগ্রহী তা হলো, গ্রেটার চায়না কোম্পানি ও এসইসিতে স্মার্টফোনের নিম্নমুখী প্রবণতা, বৈশ্বিক স্মার্টফোন শিপমেন্ট আগের অবস্থায় ফেরার সময়কাল, এক্সআর মডেলের উন্মোচন ও এক্সআর ইন্ডাস্ট্রির সম্প্রসারণ। প্রিমিয়াম স্মার্টফোন সেগমেন্টে সাম্প্রতিক জটিলতার তেমন প্রভাব দেখা যাচ্ছে না। চলতি বছরের দ্বিতীয়ার্ধে আইফোন ১৪ প্রো উন্মোচন করতে যাচ্ছে অ্যাপল। বিশ্লেষকরা বলছেন, গ্রাহকরা সানন্দেই নতুন আইফোন তুলে নেবেন। স্যামসাংয়ের ফোল্ডেবল সিরিজ গ্যালাক্সি জি ফোল্ড ৪ ও জি ফ্লিপ ৪ বাজারে এলেও আগের মতো গ্রহণযোগ্যতার আশাবাদ সংশ্লিষ্টদের। অ্যাপলের আইফোন ১৪ প্রো ও স্যামসাংয়ের ফোল্ডেবল সিরিজের ফোনগুলো দ্বিতীয়ার্ধে আসায় স্মার্টফোনের চাহিদা পুনরুদ্ধার হবে বলে মনে করেন বিশ্লেষকরা।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন