বিনিয়োগকারীদের সতর্কতা জরুরি

  চৌধুরী নাফিজ সারাফাত ০৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

রেস এসেট ম্যানেজমেন্ট এর চেয়ারম্যান চৌধুরী নাফিজ সারাফাত, অর্থ ব্যবস্থাপনায় বাংলাদেশের নক্ষত্র। দেশের শেয়ারবাজারে মিউচুয়াল ফান্ডগুলোর মধ্যে শীর্ষে আছে রেস অ্যাসেট ম্যানেজমেন্ট। সম্পদ ব্যবস্থাপনায় স্বচ্ছতা আর দক্ষতার অনন্য দৃষ্টান্ত রেখে বিনিয়োগকারীদের আস্থার প্রতীক হয়ে উঠেছে প্রতিষ্ঠানটি। দেশের পুঁজিবাজারে বহুমাত্রিক প্রোডাক্ট নিয়ে কাজ করার চিন্তাটা থেকেই আমি ২০০৮ সালে মূলত শুরু করেন তিনি। ধীরে ধীরে আমি মেয়াদি মিউচুয়াল ফান্ড, স্পেশালপারপাসভেহিকলফান্ড এর মতো প্রোডাক্টগুলো জনপ্রিয় করে তোলেন। এরপর একে একে প্রায় ১০টি মেয়াদি মিউচুয়াল ফান্ডের সম্পদ ব্যবস্থাপনার দায়িত্ব পায় চৌধুরী নাফিজ সারাফাতের প্রতিষ্ঠান। এরপর থেকে এখন পর্যন্ত আস্থার সঙ্গে ফান্ডগুলো ব্যবস্থাপনা করে আসছে রেস। তিনি বলেন, ‘ভারতের শেয়ারবাজরে মিউচুয়াল ফান্ড লেনদেনের ক্ষেত্রে ৩২ শতাংশ আর আমাদের দেশে সেখানে মাত্র ৩ থেকে ৪ শতাংশ। এর কারণ এখানকার অধিকাংশ বিনিয়োগকারীরা তেমনভাবে মিউচুয়াল ফান্ডের বিষয়ে অবহিত নন। বর্তমানে মিউচুয়াল ফান্ড বিনিয়োগ অনুকূল অবস্থায় আছে। অথচ সাধারণ বিনিয়োগকারীরা এ বিষয়ে খুব একটা আস্থা দেখাচ্ছেন না। ক্ষুদ্র বিনিয়োগকারীদের জন্যও মিউচুয়াল ফান্ড হতে পারে ভালো বিনিয়োগ ক্ষেত্র। ‘জানান রেস অ্যাসেট ম্যানেজমেন্ট এই মুহূর্তে সবচেয়ে বড় ফান্ড। চৌধুরী নাফিজ বলেন, দেশের পুঁজিবাজারে বহুমাত্রিক প্রডাক্ট না থাকায় মিউচুয়াল ফান্ড বাজারে মোড় ঘুরাবে বলে মনে করেছিল নিয়ন্ত্রক সংস্থা। বাজারের ভাবমূর্তি বাড়বে বলেও আশা করেছিলেন সবাই। কিন্তু আমাদের দেশে সেটা হয়নি। বাজারে মিউচুয়াল ফান্ডের ভাবমূর্তি নষ্ট করে ফেলেছে কিছু স্বার্থান্বেষী। তারা তাদের কোম্পানির শেয়ার নিয়ে কারসাজি অব্যাহত রাখতেই এমন নেতিবাচক প্রচার চালিয়েছে। এই পরিপ্রেক্ষিতে ক্ষতিগ্রস্ত বাজারকে কিছুটা চাঙ্গা করার চিন্তা থেকে রেস অ্যাসেট ম্যানেজমেন্ট কাজ করছে। মেয়াদি মিউচুয়াল ফান্ড বাজারের ৫০ শতাংশের বেশি সম্পদ ব্যবস্থাপনার দায়িত্বে রয়েছে রেস। আমাদের ব্যবস্থাপনায় বিভিন্ন মেয়াদি মিউচুয়াল ফান্ডে সাধারণ বিনিয়োগকারীদের পাশাপাশি বিনিয়োগ রয়েছে এক ডজন ব্যাংকের। এসব সম্পদ ব্যবস্থাপনার কার্যক্রমে রয়েছে স্বচ্ছতা ও দক্ষতা। রেস অ্যাসেট ২০০৮ সালে পুঁজিবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থার কাছ থেকে লাইসেন্স পায় বলে জানান তিনি। এরপর ২০১৩ সাল পর্যন্ত ১০টি মেয়াদি মিউচুয়াল ফান্ডের সম্পদ ব্যবস্থাপনার দায়িত্ব পায় প্রতিষ্ঠানটি। বর্তমানে বাজারটা এখন ভালোই চলছে। তবে সাধারণ বিনিয়োগকারীদের আস্থার অভাব আছে। এই আস্থার সংকটটা কাটানো জরুরি। এজন্য বিনিয়োগকারীদের সঠিক শিক্ষায় শিক্ষিত হতে পারে। যেমন ধরেন পৃথিবীর উন্নত দেশে ক্ষুদ্র বিনিয়োগকারীরা মিউচুয়ালফান্ডে বিনিয়োগ করে। আমাদের দেশে এটা তেমন একটা হতে দেখা যায় না। বিস্ময়কর ব্যাপার বর্তমানে মিউচুয়াল ফান্ডগুলো বিনিয়োগ অনুকূল অবস্থায় আছে। বিনিয়োগকারীদের এটা বুঝতে হবে। এ কারণেই বলছি সঠিক শিক্ষায় শিক্ষিত হতে হবে। সম্পদ ব্যবস্থাপনা বিভাগে কাজ করা, এবং উদ্যোক্তা সৃষ্টির ব্যাপারে তরুণ প্রজন্মকে চৌধুরী নাফিজ বলেন, আমাদের দেশে প্রচুর মেধাবী সন্তান আছে। যারা অর্থ বাজারের দিকে ঝুঁকলে আমাদের বাজারে বড় ধরনের পরিবর্তন আসা সম্ভব। সুক্ষ ব্যবস্থাপনার এই প্রেক্ষাপটে কাজ করার একটা অন্যরকম আগ্রহ সবার থাকা উচিত বলে আমি মনে করি। বাংলাদেশের তরুণরা বিশ্বের যে কোনো মার্কেটে কাজ করার উপযুক্ত। সম্পদ ব্যবস্থাপনায়, দক্ষ ব্যবস্থাপকদের উদ্যোক্তা হিসেবে অংশগ্রহণ দেশের বাজারকে আরও সম্ভাবনাময় করে তুলবে। এই ক্ষেত্রে আমি প্রত্যেক নতুন আগ্রহীকে সাধুবাদ জানাই।

চৌধুরী নাফিজ সারাফাত : চেয়ারম্যান রেস এসেট ম্যানেজমেন্ট

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×