যুব উন্নয়ন অধিদফতর

প্রশিক্ষণেই মিলবে চাকরি

  এমএ রহমান ১৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

বাংলাদেশে বর্তমানে ১৫ থেকে ৬৫ বছর বয়সী বিপুল পরিমাণে কর্মক্ষম লোক রয়েছে। এদের একটি বড় অংশ বেকার। কাজ চাচ্ছে কিন্তু কাক্সিক্ষত কাজ পাচ্ছে না। এভাবে দিনের পর দিন বসে থেকে তাদের কর্মক্ষমতা নষ্ট হচ্ছে। এসব বেকার তরুণ-তরুণীর প্রশিক্ষণের উদ্যোগ নিয়েছে সরকারের যুব উন্নয়ন অধিদফতর। দেশব্যাপী বছরজুড়ে প্রতিষ্ঠানটি প্রশিক্ষণ পরিচালনা করে আসছে। নতুন বছরেও নতুন উদ্যোমে প্রশিক্ষণ কার্যকর শুরু করেছে সরকারি এ প্রতিষ্ঠান। এখান থেকে প্রশিক্ষণ নিয়ে বহু তরুণ-যুবক আজ সাবলম্বী। অনেকেরই চাকরি হয়েছে। অনেকে আবার উদ্যোক্তা হয়ে সফল হয়েছে।

প্রশিক্ষণের ধরন

যুব উন্নয়ন অধিদফতর সাধারণত দুই ধরনের প্রশিক্ষণ দিয়ে থাকে। এগুলো হচ্ছে- ১. কর্মপ্রত্যাশী যুবকদের প্রশিক্ষণ ২. কর্মকর্তা ও কর্মচারী প্রশিক্ষণ। কর্মপ্রত্যাশী যুবদের জন্য প্রাতিষ্ঠানিকভাবে ৩৫টি ট্রেডে এবং অপ্রাতিষ্ঠানিক পর্যায়গুলোতে ৪১টি ট্রেডে ৪৯৬টি উপজেলায় প্রশিক্ষণ দেয়া হয়ে থাকে।

যেসব বিষয়ে প্রশিক্ষণ

ক) কম্পিউটার প্রশিক্ষণ : ৬ মাস মেয়াদে রয়েছে কম্পিউটার বেসিক প্রশিক্ষণ, কম্পিউটার গ্রাফিক্স প্রশিক্ষণ, মডার্ণ অফিস ম্যানেজমেন্ট অ্যান্ড কম্পিউটার এপ্লিকেশন ও এক মাস মেয়াদে রয়েছে ফ্রি ল্যান্সিং বিষয়ক প্রশিক্ষণ কোর্স।

খ) বস্ত্র বিষয়ক প্রশিক্ষণ : বস্ত্র বিষয়ক প্রশিক্ষণের মধ্যে রয়েছে পোশাক তৈরি প্রশিক্ষণ ব্লক বাটিক ও স্ক্রিন প্রিন্টিং প্রশিক্ষণ, ব্লক প্রিন্টিং প্রশিক্ষণ, স্ক্রিন প্রিন্টিং প্রশিক্ষণ, ফ্যাশন ডিজাইন বিষয়ক প্রশিক্ষণ, ওভেন সুইং মেশিন অপারেটিং প্রশিক্ষণ, সোয়েটার নিটিং প্রশিক্ষণ, লিংকিং মেশিন অপারেটিং প্রশিক্ষণ। এগুলো সাধারণত এক মাস থেকে চার মাস মেয়াদে হয়ে থাকে।

গ) ইলেকট্রিক্যাল প্রশিক্ষণ : প্রাত্যহিক জীবন যাত্রার চাহিদার কথা মাথায় রেখে যুব উন্নয়ন অধিদফতর রেখেছে ছয় মাস মেয়াদি ইলেকট্রিক্যাল অ্যান্ড হাউজওয়্যারিং, ইলেকট্রুনিক্স প্রশিক্ষণ, রেফ্রিজারেশন অ্যান্ড এয়ারকন্ডিশনিং প্রশিক্ষণ। এছাড়া এক মাস মেয়াদি মোবাইল ফোন সার্ভিসিং অ্যান্ড রিপেয়ারিং প্রশিক্ষণ ও প্রিভোকেশনাল প্রশিক্ষণ।

ঘ) কৃষি বিষয়ক প্রশিক্ষণ : গ্রামীণ কৃষি অর্থনীতিতে কৃষির ভূমিকা সবচেয়ে বেশি। আর এর পেছনে যুব উন্নয়ন অধিদফতর সব সময় ভূমিকা রেখেছে। এক্ষেত্রে তিন মাস মেয়াদি গবাদিপশু, হাঁস-মুরগি পালন, প্রাথমিক চিকিৎসা, মৎস্য চাষ ও কৃষি বিষয়ক প্রশিক্ষণ খুব জনপ্রিয়। এছাড়া এক মাস মেয়াদি দুগ্ধবতী গাভী পালন ও গরু মোটা তাজাকরণ প্রশিক্ষণ, দুগ্ধজাত দ্রব্যাদি উৎপাদন, বিপণন ও বাজারজাতকরণ বিষয়ক প্রশিক্ষণ, লাইভস্টক অ্যাসিস্টেন্ট প্রশিক্ষণ দিয়ে থাকে যুব উন্নয়ন অধিদফতর।

ঘ) ভাষা বিষয়ক প্রশিক্ষণ : বিদেশ যেতে ইচ্ছুক যুবকদের জন্য রয়েছে ১৫ দিন মেয়াদি আরবি ভাষা শিক্ষা প্রশিক্ষণ ও এক মাস মেয়াদি ইংরেজি ভাষা শিক্ষা প্রশিক্ষণ।

ঙ) বিবিধ প্রশিক্ষণ : এছাড়া রয়েছে তিন মাস মেয়াদি সেলসম্যানশিপ বিষয়ক প্রশিক্ষণ, মেয়াদি টুরিস্ট গাইড বিষয়ক প্রশিক্ষণ ও হাউজকিপিং অ্যান্ড লন্ড্রি অপারেশন প্রশিক্ষণ। ছয় মাস মেয়াদি ফুড অ্যান্ড বেভারেজ প্রডাকশন সার্ভিস প্রশিক্ষণ ও এক মাস মেয়াদি শতরঞ্জি বিষয়ক প্রশিক্ষণ ও হস্তশিল্প বিষয়ক প্রশিক্ষণ। পাশাপাশি অপ্রাতিষ্ঠানিক কর্মসূচির আওতায় সাত দিন মেয়াদি পশুসম্পদ বিষয়ক প্রশিক্ষণ, মৎস্য সম্পদ বিষয়ক প্রশিক্ষণ, কৃষি বিষয়ক প্রশিক্ষণ, বস্ত্র বিষয়ক প্রশিক্ষণ, ক্ষুদ্র ও কুটির শিল্প বিষয়ক প্রশিক্ষণ কোর্স রয়েছে। রয়েছে রিক্সা, সাইকেল, ভ্যান, ওয়েল্ডিং, ফটোগ্রাফি ও সোলার প্যানেল স্থাপন বিষয়ক প্রশিক্ষণ।

ভর্তির যোগ্যতা

যুব নীতিমালা অনুযায়ী সাধারণত আঠার থেকে ৩৫ বছর বয়সী কর্মপ্রত্যাশী সব যুবক ও যুবনারী এসব প্রশিক্ষণের আওতায় আসবে। যুব সংগঠনের নেতৃরা, শারীরিক প্রতিবন্ধী, অটিস্টিক যুবক ও যুবনারী ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠী ও হিজড়া জনগোষ্ঠী এসব প্রশিক্ষণে প্রাধান্য পাবে। প্রাতিষ্ঠানিক প্রশিক্ষণে কমপক্ষে অষ্টম শ্রেণী পাস হওয়া ও অপ্রাতিষ্ঠানিক প্রশিক্ষণে অক্ষরজ্ঞান সম্পন্ন হওয়া বাধ্যতামূলক। বর্তমানে আঠার থেকে বিশ বছরের অভিজ্ঞতা সম্পন্ন প্রশিক্ষকরা প্রশিক্ষণ দিয়ে থাকেন।

আয়-রোজগার

যুব উন্নয়ন অধিদফতর সূত্রে জানা গেছে, ইতিপূর্বে যারা প্রশিক্ষণ নিয়েছে তাদেও বেশিরভাগই প্রশিক্ষণ শেষে চাকরি হয়েছে। আবার কেউ কেউ ক্ষুদ্র উদ্যোক্তা হয়ে সাবলম্বী হয়েছে। সুতরাং এখানকার প্রশিক্ষার্থীদের সাফল্যের হার একশ’।

যোগাযোগ

প্রশিক্ষণের যেকোনো তথ্যের জন্য যোগাযোগ করতে হবে নিজ জেলা বা উপজেলার যুব উন্নয়ন অধিদফতর কার্যালয়ে। প্রধান কার্যালয় : যুব ভবন, ১০৮ মতিঝিল বা/এ, ঢাকা-১০০০। ওয়েব : www.dyd.gov.bd

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×