কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতরে নিয়োগ

  চাকরির খোঁজ প্রতিবেদক ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

একসময় কৃষিকে ভাবা হতো চাষাভোষাদের পেশা। সময় বদলেছে। কৃষিকে এখন আর অশিক্ষিত-প্রান্তিকজনের কাজ বলার সুযোগ নেই। কৃষি খাতে বর্তমানে শত শত উচ্চ শিক্ষিত জনশক্তির কর্মসংস্থান হচ্ছে। এর পরিধিও বেড়েছে। কৃষি এখন শুধু ধান-আলু চাষের মধ্যেই সীমাবদ্ধ নেই। সবজি-ফল উৎপাদন-প্রক্রিয়াজাতকরণ, বীজ সংরক্ষণ-বিপণন, কৃষির বাই প্রোডাক্ট (যেমন- আম লিচু থেকে জুস-আচার তৈরি, আলু থেকে চিপস তৈরি) উৎপাদন-বিপণন, মৎস্য চাষাবাদ-বিপণন এবং এসব নিয়ে গবেষণা সবই কৃষি অর্থনীতির আওতায়। এছাড়া খামার ব্যবস্থাপনা-দুধের বাই প্রোডাক্ট তৈরি-রফতানি ও গবাদি পশুর চিকিৎসা, পোল্ট্রি ব্যবস্থাপনায় প্রান্তিক চাষীদের সঠিক পরামর্শ দেয়ার জন্যও দরকার হচ্ছে কৃষিবিদের। প্রতিবছর প্রচুর লোকের কর্মসংস্থান হচ্ছে কৃষিতে। যারা কৃষিতে ক্যারিয়ার গড়তে চান তাদের জন্য সুযোগ এনে দিয়েছে কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতর। প্রতিষ্ঠানটি ১৬৫০ জনকে নিয়োগ দেবে। এলক্ষে সম্প্রতি বিভিন্ন জাতীয় দৈনিকে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি দেয়া হয়েছে। চাইলে আপনিও আবেদন করতে পারেন এসব পদে।

কোন পদে নিয়োগ : কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতরের বিজ্ঞপ্তি অনুযায়ী উপসহকারী কৃষি কর্মকর্তা পদে ১৬৫০টি স্থায়ী পদে জনবল নিয়োগ দেয়া হবে। পুরুষ ও নারী উভয়েই আবেদন করতে পারবেন।

আবেদনের যোগ্যতা : কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতরের বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, যে কোনো স্বীকৃত বিশ্ববিদ্যালয় কিংবা ইন্সটিটিউট থেকে কৃষি বিজ্ঞানে ৪ (চার) বছর মেয়াদি ডিপ্লোমাধারীরা আবেদন করতে পারবেন উপ সহকারী কৃষি কর্মকর্তা পদে। আবেদনের জন্য বাংলাদেশের নাগরিক হতে হবে।

বয়স : সাধারণ প্রার্থীদের বয়স ২৫ জানুয়ারি ২০১৮ তারিখে বয়স ১৮ থেকে ৩০ বছরের মধ্যে হতে হবে। আর মুক্তিযোদ্ধাদের পুত্র-কন্যা এবং শারীরিক প্রতিবন্ধী প্রার্থীদের জন্য বয়স ১৮ থেকে ৩২ বছর থাকতে হবে। প্রার্থীকে অবশ্যই বাংলাদেশের নাগরিক হতে হবে।

যেভাবে আবেদন : বিজ্ঞপ্তি অনুযায়ী, আগ্রহী প্রার্থীদের টেলিটক বাংলাদেশ লিমিটেডের ওয়েবসাইট http://daesaao.teletalk.com.bd অথবা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতরের ওয়েবসাইট www.dae.gov.bd এর মাধ্যমে নির্ধারিত আবেদনপত্র পূরণ করে অনলাইন রেজিস্ট্রেশন কার্যক্রম এবং ফি জমাদান সম্পন্ন করতে হবে। কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতরের ওয়েবসাইট ww(w.dae.gov.bd) থেকে অনলাইন আবেদনপত্র পূরণের বিষয়ে বিস্তারিত নির্দেশনা পাওয়া যাবে। এ ছাড়া নির্ভুলভাবে আবেদন করার ক্ষেত্রে কৃষি সম্প্র্রসারণ অধিদফতরের আইসিটি ব্যবস্থাপনা অনুশাখা এবং জেলা ও উপজেলা পর্যায়ের দফতর থেকে প্রয়োজনীয় তথ্যাদি ও সহযোগিতা পাওয়া যাবে।

বেতন-ভাতা : উপসহকারী কৃষি কর্মকর্তাকে জেলা ও উপজেলা কৃষি সম্প্র্রসারণ অধিদফতরের অধীনে ইউনিয়ন পর্যায়ে কাজ করতে হবে। পদায়ন করা হবে জেলা কোটা, মুক্তিযোদ্ধা কোটা, প্রতিবন্ধী কোটাসহ অন্যান্য কোটা অনুসারে। নিয়োগপ্রাপ্ত একজন উপসহকারী কৃষি কর্মকর্তা ২০১৫ সালের জাতীয় বেতন স্কেলের ১১তম গ্রেড অনুসারে ১২৫০০-৩০২৩০ টাকা স্কেলে মাসিক বেতন পাবেন।

যেসব জেলার প্রার্থীরা আবেদন করতে পারবেন না : জেলার কোটায় প্রাপ্যতা না থাকায় শেরপুর, কুষ্টিয়া, মেহেরপুর, খুলনা, বাগেরহাট, বরিশাল, ঝালকাঠি, ভোলা, পটুয়াখালী, বরগুনা ও রাজবাড়ী জেলার প্রার্থীরা এ পদে আবেদন করতে পারবেন না। তবে উল্লেখিত জেলাসহ সব জেলার এতিমখানা নিবাসী ও শারীরিক প্রতিবন্ধী প্রার্থীরা আবেদন করতে পারবেন (রাঙ্গামাটি, বান্দরবান ও খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলা ব্যতীত)।

আবেদনের নিয়ম : কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতরের ওয়েবসাইটে দেয়া আবেদনপত্রের ফরম ডাউনলোড করে আবেদন করতে হবে। আবেদনের ক্ষেত্রে নাম, পিতা-মাতা নাম, শিক্ষাগত যোগ্যতা ও জাতীয় পরিচয়পত্র নম্বর সঠিকভাবে উল্লেখ করতে হবে। সঠিকভাবে আবেদন পূরণ করে সেন্ট করার পর ইউজার আইডি দেয়া হবে। পরেও সেটি অবলম্বন করে ১০০ টাকা ফি দিতে হবে টেলিটক নম্বর থেকে। আবেদনের নিয়ম, যোগ্যতা এবং বিজ্ঞপ্তি সম্পর্কে জানতে প্রতিষ্ঠানটির ওয়েবসাইট িি.িফধব.ঢ়ড়ৎঃধষ.মড়া.নফ দেখুন।

আবেদনের সময়সীমা : আগ্রহী প্রার্থীরা আগামী ১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ তারিখ সকাল ১০ টা থেকে ২৫ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ তারিখ বিকাল ৫টা পর্যন্ত আবেদন করতে পারবেন।

পরীক্ষা পদ্ধতি : কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতর সূত্রে জানা গেছে, দুই ধরনের পরীক্ষার মাধ্যমে প্রার্থী বাছাই করা হয়। প্রথমে নেয়া হয় এমসিকিউ পদ্ধতির লিখিত পরীক্ষা। তবে এ পদে সরাসরি লিখিত নিয়োগ পরীক্ষা নেয় না কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতর। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইন্সটিটিউট অব বিজনেস অ্যাডমিনিস্ট্রেশনের (আইবিএ) মাধ্যমে পরীক্ষা নেয়া হয়। লিখিত ও মৌখিক দুই পরীক্ষা মিলে ১০০ নম্বর বরাদ্দ। এর মধ্যে এমসিকিউ টাইপের লিখিত পরীক্ষায় ৭০ এবং ভাইভায় থাকে ৩০ নম্বর। লিখিত পরীক্ষায় ৫০ নম্বরের ডিপার্টমেন্টাল প্রশ্ন করা হয়ে থাকে। বাকি ২০ নম্বরের প্রশ্ন করা হয় বাংলা, ইংরেজি, গণিত, সাধারণ জ্ঞান ও কম্পিউটার বিষয়ে। তবে চাইলে প্রশ্নপত্র প্রণয়ন, নম্বর বণ্টন ও অন্যান্য বিষয়ে পরিবর্তন আনতে পারে কর্তৃপক্ষ।

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×