বইমেলায় কর্মজীবীদের বই, কাজের বই

  যুগান্তর ডেস্ক    ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

সুন্দর ক্যারিয়ার গড়তে হলে

অনন্যা প্রকাশনী থেকে প্রকাশ হল ক্যারিয়ার বিষয়ক নতুন বই ‘সুন্দর ক্যারিয়ার গড়তে হলে’। বইটির প্রচ্ছদ করেছেন ধ্রুব এষ। সাংবাদিক আহমেদ শরীফের লেখা এই বইটিতে ইন্টারনেট ভিত্তিক ক্যারিয়ার বিষয়ক গুরুত্বপূর্ণ টিপসগুলোকে তুলে ধরা হয়েছে। চাকরি সন্ধানী তরুণ প্রজন্ম বইটি থেকে ভালো গাইডলাইন পাবেন। পাশাপাশি নতুন চাকরি পাওয়া লোকেরা কিভাবে অফিসে মানিয়ে চলবেন সেসব টিপসও আছে বইটিতে। মোট ৫টি ধাপ-চাকরি খোঁজা,জীবন বৃত্তান্ত ও কভার লেটার লেখা, ইন্টারভিউ, বেতন নিয়ে কথা, অফিসে করণীয় রয়েছে বইটিতে। আলাদা আলাদা সব আর্টিকেলে সাজানো প্রতিটি সেগমেন্ট থেকে পাঠক জানতে পারবেন ক্যারিয়ার গড়ার এ টু জেড সম্পর্কে।

চৌহদ্দি সুনির্দিষ্ট নয়

লেখক জুয়েল দেব ছোট গল্প লিখেন। এবার লিখেছেন উপন্যাস ‘চৌহদ্দি সুনির্দিষ্ট নয়’। ঐতিহ্য প্রকাশনী থেকে প্রকাশিত বইটির প্রচ্ছদ করেছেন রাজীব দত্ত। রাঙ্গামাটির কাচালংয়ে বেড়ে ওঠা একজনের চোখে দেখা জীবন সংগ্রাম ওঠে এসেছে এই উপন্যাসে। জুয়েল দেব পেশায় বিচারক,পার্বত্য রাঙ্গামাটি জেলার বাঘাইছড়ি উপজেলায় জন্ম ও বেড়ে ওঠা। স্থানীয় কাচালং উচ্চ বিদ্যালয় ও কাচালং কলেজ থেকে এসএসসি ও এইচএসসি পাসের পর চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগ থেকে স্নাতক ও স্নাতকোত্তর। জানান, যে গল্পগুলো বয়ে নিয়ে বেড়াতে বেড়াতে আমি রাত ভোর হয়ে যাওয়া দেখি, বুক কুড়ে কুড়ে খাওয়া সেই অসংখ্য গল্পের মধ্যে একটি গল্প আমি বলতে চেয়েছি। আমার মনে হয়েছে রাত যত গভীর হয় মানুষ তত একা হয়ে যায়। চারপাশে সবকিছু থাকলেও তখন নিজেকে ভীষণ নিঃস্ব মনে হয়। ঠিক মধ্যরাতে সত্য আর মিথ্যার মাঝে এক ধরনের বিভ্রম তৈরি হয়। পৃথিবীর নিয়তিতে জড়িয়ে যাওয়া সেই একাকী মানুষ তখন সত্য আর মিথ্যার বিভ্রমটা ভাঙার জন্য নানা ধরনের চেষ্টা করে। যারা সেই বিভ্রম ভাঙতে পারে তাদের জীবনের চৌহদ্দি সুনির্দিষ্ট হয়। যারা সেই বিভ্রমতা ভাঙতে পারে না তাদেরকে জীবনভর পথে পথে ঘুরে বেরাতে হয়। বইয়ের শেষ কয়েকটা লাইন এরকম ‘যে জীবনের চৌহদ্দি আমাদের কারোরই জানা নেই সে জীবনকে খোঁজার জন্যই আমরা পথে নামি। আমরা বারবার হোঁচট খেয়ে পড়ে যাই। তারপর অসম্ভব দৃঢ়তা নিয়ে একদিন আবার উঠে দাঁড়াই।

এক্স ফ্যাক্টর

অমর একুশে গ্রন্থমেলা ২০১৮ উপলক্ষে প্রকাশিত হয়েছে নাজমুল হুদার মনোবৈজ্ঞানিক আত্মোন্নয়নমূলক বই ‘এক্স ফ্যাক্টর’। ক্লাসের পাশের বেঞ্চের বন্ধুটি কিভাবে ফার্স্ট হয় বা পেশাজীবনে পাশের ডেস্কের সহকর্মীটি কেন দ্রুত পদোন্নতি পায়? পেছনের সারির কেউ কেউ কখনও কখনও কেন এগিয়ে যায়? কোনো জাদুর বলে কেউ কেউ তুমুল জনপ্রিয় ব্যক্তি হয়ে ওঠে কি? এই অজানা অদৃশ্য শক্তিকেই কি অদৃষ্ট বলে? নাকি অন্য কোনো ফ্যাক্টর জড়িত? এই অজানা ফ্যাক্টরকে ‘এক্স’ ধরে মানুষের ভেতরের প্রচণ্ড অথচ প্রচ্ছন্ন ক্ষমতাকে বৈজ্ঞানিক বিশ্লেষণ, যুক্তি, উক্তি ও উদাহরণ মাধ্যমে তুলে ধরার চেষ্টা করেছেন লেখক নাজমুল হুদা। ক্যারিয়ার ক্যারিশমা বইয়ের পাঠকপ্রিয়তার পর এবারে বইমেলায় আলোঘর থেকে প্রকাশিত হয়েছে তার মনোবৈজ্ঞানিক আত্মোন্নয়নমূলক ‘এক্স ফ্যাক্টর’-নিজেকে জানার অজানা সূত্র। প্রচ্ছদ করেছেন ধ্রুব এষ। মূল্য ১৫০ টাকা। আলোঘর প্রকাশনার স্টল ৪২০ সহ রকমারি ডট কম থেকে সংগ্রহ করা যাবে এই বইটি।

সফল যারা কেমন তারা

অদম্য প্রকাশ এবারের বইমেলা ২০১৮তে প্রকাশ করেছে ‘সফল যারা কেমন তারা’ নামে একটি নতুন বই। বইটি লিখেছেন ক্যারিয়ার ডেভেলপমেন্ট স্পেশালিস্ট এবং কর্পোরেট আস্কের সিইও নিয়াজ আহমেদ। বইটিতে রয়েছে দেশের ২২টি বিভিন্ন সেক্টরে ২২জন সফল ব্যক্তির সাক্ষাতকার। রয়েছে তাদের ক্যারিয়ারের শুরুর দিকের গল্পগুলো, তাদের ঘুরে দাঁড়ানোর কথা এবং নতুন প্রজন্মের প্রতি তাদের গুরুত্বপূর্ণ দিক নির্দেশনা। বইটিতে যাদের সাক্ষাতকার রয়েছে তাদের মধ্যে টেন মিনিট স্কুলের প্রতিষ্ঠাতা আয়মান সাদিক, কমিউনিকেশন স্ট্রাটেজিস্ট সোলায়মান সুখন, সুপার স্টার গ্রুপের সিএফও মো. শফীকুল আলম, বিক্রয় বন্ধু রাজিব আহমেদ, এসটি সি বাংলাদেশের প্রধান পরামর্শক শামীমা বেগম, টিম গ্রুপের ডিরেক্টর তৌফিকুর রহমান, মাস্কো গ্রুপের ডিরেক্টর তৌফিক আনোয়ার, এইচ আর স্পেশালিস্ট তাহসিন জাকারিয়া, ক্রিয়েটিভ আইটির সিইও মনির হোসেন প্রমুখ ব্যক্তিবর্গ। এই বইটি যে কোনো পেশাজীবীদের জন্য কিংবা ছাত্রদের জন্য একটা প্যাকেজের মতো। ক্যারিয়ার নিয়ে ভিন্ন ভিন্ন সফল মানুষের দৃষ্টিভঙ্গি ও দিক নির্দেশনা এক সঙ্গে পাওয়া যাবে বইমেলা ৪৫৭ নম্বর স্টলে। বইটির গায়ের মূল্য ধরা হয়েছে ২৯২ টাকা। মেলা উপলক্ষে মিলছে ২৫ শতাংশ ছাড়ে। আর তাছাড়া ঘরে বসে বইটি পেতে আপনি রকমারি ডট কম থেকেও অর্ডার করতে পারেন।

হাতের মুঠোয় স্বপ্নের চাকরি

স্বপ্ন তো দেখে সবাই, সবার স্বপ্ন কি পূরণ হয়? স্বপ্নপূরণে চাই সঠিক দিকনির্দেশনা। এবারের অমর একুশে গ্রন্থমেলায় প্রকাশিত হয়েছে ক্যারিয়ারবিষয়ক বইয়ের জনপ্রিয় লেখক আরাফাত শাহরিয়ারের ‘হাতের মুঠোয় স্বপ্নের চাকরি’ বইটি। বইটি সাজানো হয়েছে চাকরিপ্রার্থীদের পছন্দের তালিকায় শীর্ষে থাকা সব চাকরির বিশদ প্রস্তুতি ও দরকারি পরামর্শ নিয়ে। দরকারি পরামর্শ দিয়েছেন বিভিন্ন চাকরি পরীক্ষায় ভালো করা মেধাবী ও সংশ্লিষ্ট বিষয়ের বিশেষজ্ঞরা। চাকরি হচ্ছে না কিংবা অপছন্দের চাকরিতে থেকে পছন্দসই চাকরি খুঁজছেন, এমন দিগ্ভ্রষ্টদের ঠিক বাতিঘরের মতোই পথ দেখাবে ‘হাতের মুঠোয় স্বপ্নের চাকরি’। জুতসই চাকরি খুঁজছেন, এমন তরুণ-তরুণীদের জন্য দারুণ সহায়ক হবে বইটি। এর দিকনির্দেশনা মেনে ঠিকঠাক প্রস্তুতি নিলে হতে পারে ইচ্ছাপূরণ, হাতের মুঠোয় ধরা দিতে পারে স্বপ্নের চাকরি। ‘হাতের মুঠোয় স্বপ্নের চাকরি’ বইটির প্রকাশক ‘ঐতিহ্য’। প্রচ্ছদ করেছেন ধ্রুব এষ।

নারী সংগ্রামের গল্প ‘কন্যাকাহন’

জীবনের রঙ্গমঞ্চে সমাজে, পরিবারে বিভিন্ন বয়সে নারীকে নানা আঙ্গিকে বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করতে হয়। কখনও কন্যা, কখনও প্রেমিকা, কখনও জায়া আবার কখনও বা মাতৃত্বের মূর্ত প্রতিচ্ছবি হিসেবে। লেখক সোনালী সেন তার ‘কন্যাকাহন’ গল্পগুচ্ছের প্রতি ছত্রে ছত্রে নারী জীবনের না বলা কথাগুলো তুলে ধরার চেষ্টা করেছেন। নারী মনের অন্দরমহল আর পেশাগত লড়াইয়ের গল্প নিয়েই অমর একুশে গ্রন্থমেলায় প্রকাশিত হয়েছে সোনালী সেনের গল্পগুচ্ছ ‘কন্যাকাহন’। লেখকের মতে, কন্যাকাহনের গল্পগুলোতে নারীর সংগ্রামের এগিয়ে যাওয়ার নানা কথা তুলে ধরা হয়েছে বইটিতে।

পাঞ্জেরি পাবলিকেশন্স থেকে প্রকাশিত ‘কন্যাকাহন’ লেখিকার প্রথম গল্পগুচ্ছ। বইমেলার ৩ নম্বর প্যাভিলিয়ন পাঞ্জেরি প্রকাশনীতে বইটি পাওয়া যাবে। লেখক সোনালী সেন বলেন, মানুষের কথা, নারীর কথা। সমাজের নানা প্রান্তে থাকা নারীর দুঃখ-সুখ আর জীবন-সংগ্রামের গল্প উঠে আসে লেখনীতে। শুরুতে শিক্ষাক্যাডারে কাজ করলেও পেশায় পুলিশ কর্মকর্তা সোনালী সেন কাজ করছেন খুলনা মেট্রোপলিটন পুলিশের অতিরিক্ত উপপুলিশ কমিশনার হিসেবে। পুলিশ হিসেবে সমাজ আর নারীর অবস্থান যে চোখে দেখেছেন, তাই তুলে এনেছেন ‘কন্যাকাহন’-এর পাতায় পাতায়।

জিয়াউর রহমান চৌধুরী

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×