স্বপ্ন ছোঁয়ার সুযোগ

  মোহাম্মদ আতাউর রহমান ০৮ জুন ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

বাংলাদেশের তরুণ-তরুণীদের অনেকেরই আশা থাকে বিদেশের বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ডিগ্রি নেয়ার। অনেকের সেই আশা পূরণ হয়। কারও কারও হয় না। বিদেশের বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ার ইচ্ছা থাকলেই চলবে না। নিজেকেও প্রস্তুত করতে হবে সেভাবে। সেজন্য আগে থেকেই নিজেকে যোগ্য করে তৈরি করতে হবে। লক্ষ্য স্থির করে এগোতে হবে দৃঢ় পদে।

সুযোগ হচ্ছে অনেকেরই : আজকাল ইউরোপ-আমেরিকা ও এশিয়ার বহু নামকরা বিশ্ববিদ্যালয় বিদেশের শিক্ষার্থীদের জন্য বৃত্তির অফার করছে। ওইসব বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার মান যেমন ভালো সনদও ততটা দামি। এগুলো যে কারও সিভিকে ভারি করে থাকে। সেই সুযোগ গ্রহণ করতে হলে চোখ-কান খোলা রাখতে হবে। যেসব ওয়েবসাইটে এসব সার্কুলার হয়ে থাকে তাতে চোখ রাখতে হবে। সর্বোপরি নিজেকে ঝালিয়ে নিতে হবে।

শাণ দিন দক্ষতায় : সাধারণত বিদেশের বিশ্ববিদ্যালয়গুলোয় পড়তে হলে ইংরেজিতে দক্ষতা থাকতে হবে। তবে চীন, জাপান, জার্মানি, ফ্রান্স এসব দেশে যেতে চাইলে ওইসব দেশের ভাষা শিখে নেয়া ভালো। শিক্ষাগত যোগ্যতার সব সার্টিফিকেট ইংরেজি করে নিতে হবে। পাসপোর্টে যাতে কোনো সমস্যা না থাকে সেদিকে লক্ষ্য রাখতে হবে।

যেসব বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হতে চাচ্ছেন তার খরচ বহন করা আপনার পক্ষে সম্ভব কি-না, সেটাও মাথায় রাখুন। তারা যদি মনে করেন, ব্যয়ভার বহন করা আপনার পক্ষে সম্ভব নয়, তবে ভিসা পাবেন না আপনি। RE, SAT, MAT এবং IELTS ev TOFEL-এ ভালো স্কোর না থাকলে বিদেশে পড়াশোনার চেষ্টা না করাই ভালো। এসবে ভালো স্কোর না থাকলে বৃত্তি মিলবে না- এটি নিশ্চিত। অনলাইনে নিজেই সব কাজ সেরে নিতে পারেন। তবে কোনো অ্যাডুকেশন কনসালট্যান্সি ফার্মের মাধ্যমে কাজ করতে চাইলে তাদের সম্পর্কে খোঁজখবর নিন।

বাছাই পর্ব : ভেবেচিন্তে সিদ্ধান্ত নিতে হবে আপনাকে। কারণ একেক দেশে পড়াশোনার সুযোগ-সুবিধা একেক রকম। কোনো দেশে টিউশন ফি বেশি, কোনো দেশে কম, টিউশন ফি আদৌ লাগে না। আবার কোনো দেশের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে একই মানের কোর্সের মেয়াদ কম, কোনো দেশে বেশি। কোথাও পার্ট টাইম জব করা যায়, কোথাও জব হয়তো পাওয়া যায় না, আবার কোথাও কঠোরভাবে নিষিদ্ধ। কোনো দেশে সহজেই স্কলারশিপ পাওয়া যায়, কোনো কোনো দেশে স্কলারশিপ পাওয়া বেশ কঠিন। কোনো দেশের আবহাওয়া খুবই বিরূপ, কোনো দেশের আবহাওয়া নান্দনিক ও স্বাস্থ্যকর। আবার এমনও দেশ আছে, যেখানে পড়াশোনাকালেই নাগরিকত্ব পাওয়ার সম্ভাবনা থকে। সুতরাং সব বিচার-বিশ্লেষণ করে সময় নিয়ে দেশ নির্বাচন করুন।

বর্তমানে বৃত্তির সুযোগ আছে যেসব প্রতিষ্ঠানে

মোনাশ বিশ্ববিদ্যালয় : অস্ট্রেলিয়ার মোনাশ বিশ্ববিদ্যালয়ে বাংলাদেশের বহু শিক্ষার্থী উচ্চতর ডিগ্রি করেছে এবং করছে। এ বৃত্তির জন্য আবেদনের আগে আপনাকে কোনো শর্ত ছাড়া একটি পূর্ণ মোনাশ কোর্স করতে হবে। নির্দিষ্ট সময়সীমার মধ্যে এই বৃত্তির জন্য একটি পৃথক আবেদনপত্র জমা দিতে হবে। বিস্তারিত তথ্যের জন্য অফিসিয়াল monash.edu.au-এ ওয়েবসাইট ভিজিট করতে পারেন।

ন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি অব সিঙ্গাপুর : ন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি অব সিঙ্গাপুরে কমনওয়েলথভুক্ত দেশের শিক্ষার্থীদের অগ্রাধিকার দেয়া হয়। বিজ্ঞান, প্রকৌশল, কম্পিউটার, মেডিসিন সংশ্লিষ্ট বিষয়ে গবেষণায় আগ্রহী স্নাতক উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীরা আবেদন করতে পারবেন। আবেদনকারীকে অবশ্যই জিআরই এবং টোফেল উভয় পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হতে হবে। অনলাইনে http://bit.ly/NUS-kk-এই লিঙ্কের মাধ্যমে আবেদন করতে পারবেন। অনলাইনে আবেদন শেষে আবেদনের কপি ও অন্যান্য প্রয়োজনীয় কাগজপত্র পাঠাতে হবে এনইউএস গ্র্যাজুয়েট স্কুলে।

চেভেনিং স্কলারশিপ (যুক্তরাজ্য) : যুক্তরাজ্যের চেভেনিং স্কলারশিপ আরও একটি সম্মানজনক বৃত্তি কার্যক্রম। যুক্তরাজ্যের ফরেন অ্যান্ড কমনওয়েলথ অফিস (এফসিও) এবং অংশীদার সংগঠনগুলো এটি প্রতিষ্ঠা করে। যুক্তরাজ্য সরকারের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বৃত্তি প্রোগ্রাম এটি। ১৯৮৩ সালে এই বৃত্তি কার্যক্রম শুরু হয়। এর আওতায় চেভেনিং স্কলারশিপ ও চেভেনিং ফেলোশিপ দেয়া হয়। যুক্তরাজ্যের দূতাবাস ও হাইকমিশন বৃত্তি নির্ধারণ করে। চেভেনিং স্কলারশিপ প্রোগ্রামের আওতায় রাজওয়ান নাবিন ম্যানচেস্টার ইউনিভার্সিটিতে আন্তর্জাতিক বিপর্যয় ব্যবস্থাপনা (ইন্টারন্যাশনাল ডিজাস্টার ম্যানেজমেন্ট) বিভাগে পড়াশোনা করছেন।

চেভেনিংয়ের বিভিন্ন ধরনের স্কলারশিপে আবেদনের পদ্ধতি বিভিন্ন। কিছু স্কলারশিপ একাডেমিক রেজাল্টের ওপর ভিত্তি করে, আর কিছু স্কলারশিপ কার্যক্রমের ওপর ভিত্তি করে দেয়া হয়। আবার শিক্ষার্থীদের কাজের অভিজ্ঞতা ও নেতৃত্বের সক্ষমতা বিবেচনা করেও স্কলারশিপ দেয়া হয়। শিক্ষার্থীদের আবেদন প্রক্রিয়ার বিষয়ে ভালো করে জানা দরকার।

চেভেনিং স্কলারশিপে আবেদনের ক্ষেত্রে কেন তারা স্কলারশিপের জন্য আবেদন করছেন, এ বিষয়ে শিক্ষার্থীদের কিছু প্রশ্নের জবাব দিতে হয়। প্রশ্নের জবাবটা ভীষণ গুরুত্বপূর্ণ। স্কলারশিপে আবেদনের জন্য পর্যাপ্ত সময় নিয়ে আবেদন করতে হবে। দয়া করে তড়িঘড়ি ফরম পূরণ করবেন না। স্কলারশিপ প্রোগ্রামের জন্য আপনার আগ্রহ ও আবেগটাও তারা দেখতে চায়।

কমনওয়েলথ স্কলারশিপ : কমনওয়েলথ স্কলারশিপ এবং ফেলোশিপ কমনওয়েলথভুক্ত দেশের শিক্ষার্থীদের জন্য প্রযোজ্য। যুক্তরাজ্যে উচ্চতর শিক্ষা সম্পন্ন শেষে কমনওয়েলথভুক্ত দেশের শিক্ষার্থীরা নিজের দেশে ফিরে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখবেন, সেই লক্ষ্যে এই বৃত্তি দেয়া হয়। তারা এক বছরের মাস্টার্স বা সমমান কোর্স এবং তিন বা চার বছরমেয়াদি ডক্টরেট ডিগ্রি সম্পন্ন করার সুবিধা দেয়। এই প্যাকেজে আন্তর্জাতিক ভ্রমণ, টিউশন ফি, প্রয়োজনীয় রক্ষণাবেক্ষণ ও অন্যান্য ভাতা অন্তর্ভুক্ত। এই বৃত্তির অধীনে প্রকৌশল ও প্রযুক্তি, বিজ্ঞান (বিশুদ্ধ ও ফলিত) কৃষি, মানবিক ও সামাজিক বিজ্ঞান বিষয়ে পড়ার সুযোগ রয়েছে। এই স্কলারশিপের জন্য ব্রিটিশ কাউন্সিল ও বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের ওয়েবসাইটে আরও বিস্তারিত জানা যাবে।

ইউনিভার্সিটি অব স্ট্রেথক্লাইড : বিবিএ প্রোগ্রামে অর্থনীতি, ম্যানেজমেন্ট সায়েন্স, বিজনেস অ্যাকাউন্টিং অ্যান্ড ফিন্যান্স, হিউম্যান রিসোর্স ম্যানেজমেন্ট এবং মার্কেটিং বিষয়ে আন্ডারগ্র্যাজুয়েট পড়তে আগ্রহীরা বৃত্তি পাবেন এখানে। আবেদন ফরম পাওয়া যাবে http://bit.ly/s trathbb-এ লিঙ্কে। পূরণকৃত আবেদন ফরম পাঠানোর ঠিকানা- international-strath.ac.uk|

ওয়েস্ট মিনস্টার বিশ্ববিদ্যালয় : যুক্তরাজ্যের ওয়েস্ট মিনস্টার বিশ্ববিদ্যালয়ে বৃত্তির সুযোগ রয়েছে। স্নাতক পড়তে আগ্রহী শিক্ষার্থীদের জন্য এ বৃত্তির আওতায় শিক্ষাকালীন পূর্ণ বৃত্তি সুবিধাসহ আবাসন ও যাতায়াত খরচ বহন করবে বিশ্ববিদ্যালয়। বিস্তারিত জানতে পারেন goo.gl/ xrmWgx-এ ঠিকানায়।

নেদারল্যান্ডসে স্কলারশিপ : দেশটির ডেলফট ইউনিভার্সিটি অব টেকনোলজিতে বিশ্বের বিভিন্ন দেশের শিক্ষার্থীদের জন্য বেশ কয়েকটি স্কলারশিপ প্রোগ্রাম আছে। দ্য জাস্টাস অ্যান্ড লুইস ভ্যান ইফেন স্কলারশিপ এমনই একটি। বিস্তারিত তথ্যের জন্য অফিসিয়াল http:/ww/w.tudelft.nl/en/n -এই ওয়েবসাইট ভিজিট করতে পারেন।

রাশিয়ান বিশ্ববিদ্যালয়ের স্কলারশিপ : রাশিয়ার ইউরাল ফেডারেল বিশ্ববিদ্যালয় প্রতি বছর ৬৫ জন আন্তর্জাতিক শিক্ষার্থীকে মাস্টার্সে বৃত্তি দেয়। বিস্তারিত জানতে পারেন urfu.ru/en/ international-এ ওয়েবসাইটে।

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter