রায়কে গুরুত্ব না দিয়ে জাতীয় ঐক্যের আন্দোলন চলবে : মওদুদ

শিগগিরই বৃহত্তর জাতীয় ঐক্যের রূপরেখা

  যুগান্তর রিপোর্ট ১৩ অক্টোবর ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ
বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ। ফাইল ছবি

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ বলেছেন, ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলার রায়ের কারণে আমাদের জাতীয় ঐক্যের আন্দোলন ব্যাহত হবে না। এ রায়কে সম্পূর্ণ উপেক্ষা করে এবং কোনো গুরুত্ব না দিয়ে জাতীয় ঐক্যের আন্দোলন চলবে। শিগগির আমরা জাতীয় ঐক্যের রূপরেখা দেব, আন্দোলনের কাঠামো ঘোষণা করব। জাতীয় ঐক্যের রূপরেখার ওপর ভিত্তি করে জাতীয় ঐক্যের মাধ্যমে সরকার পরিবর্তনের ব্যবস্থা নেব।

শুক্রবার এক আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন। রাজধানীর জাতীয় প্রেস ক্লাবে খালেদা জিয়ার মুক্তি, ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলায় তারেক রহমানের সাজা বাতিলসহ নির্দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচনের দাবিতে জিয়া পরিষদ এ আলোচনা সভার আয়োজন করে।

কবীর মুরাদের সভাপতিত্বে ও আবদুল্লাহ হিল মাসুদের পরিচালনায় আলোচনা সভায় আরও বক্তব্য দেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান শামসুজ্জামান দুদু, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা ডা. আবদুল কুদ্দুস, যুগ্ম মহাসচিব ব্যারিস্টার মাহবুবউদ্দিন খোকন, অধ্যাপক এসএম হাসান তালুকদার।

মওদুদ আহমদ আরও বলেন, অধ্যাপক একিউএম বদরুদ্দোজা চৌধুরীর বিকল্পধারা, আ স ম আবদুর রবের জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল (জেএসডি), মাহমুদুর রহমান মান্নার নাগরিক ঐক্য নিয়ে গঠিত যুক্তফ্রন্ট, ড. কামাল হোসেনের জাতীয় ঐক্য প্রক্রিয়ার সঙ্গে বিএনপি যুক্ত হয়ে জাতীয় ঐক্য তৈরি করেছে। সুষ্ঠু নির্বাচন করতে সংসদ ভেঙে দেয়া, সরকারের পদত্যাগ, নিরপেক্ষ সরকার গঠন, নির্বাচন কমিশন পুনর্গঠন, নির্বাচনকালে সেনা মোতায়েন, ইভিএমে ভোট না নেয়ার পাঁচ দফা দাবি নিয়ে এ ঐক্য হয়েছে।

তিনি বলেন, সংলাপে আসতে সরকার বাধ্য হবে। সরকার যত কথাই বলুক না কেন, যত ট্রেন জার্নি ও পদযাত্রা করুক না কেন, যতই নির্বাচনী প্রতিশ্র“তি দিক না কেন অবশ্যই তাদের সংলাপে আসতে হবে।

তিনি বলেন, প্রতিদিনই ক্ষমতাসীন দল নির্বাচনী প্রতিশ্র“তি দিচ্ছে। বিভিন্ন পেশার মানুষজনকে খুশি করার জন্য নানা রকমের সুযোগ-সুবিধা দেয়া হচ্ছে। এমনকি যারা অবসরপ্রাপ্ত ও শতভাগ পেনশনভোগী এবং অর্থ উঠিয়ে নিয়েছেন তাদেরও আবার নতুন করে পেনশন দিচ্ছে সরকার। যদি কিছু ভোট পাওয়া যায়, এ আশায়। ভোট পাওয়ার জন্য কওমি মাদ্রাসার স্বীকৃতি দেয়া হয়েছে। ভোট পাওয়ার জন্য সরকারি কর্মচারীদের বেতন বাড়ানো হচ্ছে। সরকারের উদ্দেশে তিনি বলেন, মনে করছেন এতেই সব হয়ে যাবে। তাদের ৮০ ভাগ ভোট কেন্দ্রে গেলে ভোটটা যে তারা নৌকায় দেবে না- এটা তো সরকার জানে না।

খালেদা জিয়ার মুক্তি আইনি প্রক্রিয়ায় আসবে না উল্লেখ করে মওদুদ আহমদ বলেন, আমরা অনেক চেষ্টা করেছি কিন্তু আইনি প্রক্রিয়ায় তাকে মুক্ত করা সম্ভব নয়।

তিনি বলেন, সাবেক প্রধান বিচারপতি এসকে সিনহার ‘এ ব্রোকেন ড্রিম’ বইটি আমি পড়ছি। সেখানে তিনি (এসকে সিনহা) বারবার বলেছেন তাকে বঙ্গভবনে ডেকে নিয়ে কীভাবে রায় দেয়া বা পরিবর্তন করার জন্য বলা হয়েছে।

ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন প্রসঙ্গে মওদুদ আহমদ বলেন, নির্বাচনের আগে গণমাধ্যমের কণ্ঠস্তব্ধ করতে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন করেছে সরকার। এতে এমন ৭-৮টা ধারা আছে যা সম্পূর্ণভাবে সংবিধান পরিপন্থী। বিশেষ করে ৩২ ও ৪৭ ধারা। আমরা বলেছি ক্ষমতায় গেলে সাত দিনের মধ্যে এ আইন বাতিল করব।

ঘটনাপ্রবাহ : ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা

আরও
আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×