জেএসসি পরীক্ষা শুরু ১ নভেম্বর

  যুগান্তর রিপোর্ট ১৬ অক্টোবর ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

জেএসসি পরীক্ষা

আগামী ১ নভেম্বর শুরু হবে জেএসসি ও জেডিসি পরীক্ষা। এতে শিক্ষার্থীদের পরীক্ষা শুরুর ৩০ মিনিট আগে সিটে বসতে হবে। পরীক্ষা কেন্দ্রে পাঠানো হবে একাধিক প্রশ্ন। পরীক্ষা শুরুর ২৫ মিনিট আগে কেন্দ্রীয়ভাবে লটারির মধ্যেমে প্রশ্ন নির্বাচন করা হবে। তবে পরীক্ষা শুরুর ৫ মিনিট আগে প্রশ্নপত্রের খাম খোলা যাবে।

সোমবার শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে জেএসসি-জেডিসি পরীক্ষা সুষ্ঠু, নকলমুক্তভাবে আয়োজন সংক্রান্ত জাতীয় মনিটরিং ও আইনশৃঙ্খলা কমিটির সভায় এসব সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। সভা শেষে শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ এ কথা জানিয়েছেন। তিনি বলেন, সুষ্ঠুভাবে পরীক্ষা আয়োজন করতে প্রশ্নে নিরাপত্তা নিশ্চিত করা হয়েছে। এবার গুজব ছড়িয়ে কেউ পার পাবে না। গুজবের দায়ে অভিভাবকদেরও শাস্তির মুখোমুখি হতে হবে।

সভায় মোট ১৩টি সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। এরমধ্যে আছে- পরীক্ষা চলাকালীন শুধু কেন্দ্র সচিব ক্যামেরা ছাড়া মোবাইল ব্যবহার করতে পারবেন। তবে সেই ফোনসহ পরীক্ষার কক্ষে প্রবেশ করা যাবে না। ট্রেজারি বা থানা থেকে প্রশ্নপত্র গ্রহণ ও পরিবহন কাজে নিয়োজিত কর্মকর্তা/শিক্ষক/কর্মচারীরা ফোন ব্যবহার করতে পারবেন না।

প্রশ্নপত্র বহনের কাজে কালো কাচযুক্ত গাড়ি ব্যবহার করা যাবে না। ট্রেজারিতে রক্ষিত প্রশ্নপত্র পরীক্ষা শুরুর তিনদিন আগে দিনভিত্তিক ও সেটভিত্তিক ভাগ করে সিকিউরিটি খামে সংরক্ষণ করতে হবে। জেলার ক্ষেত্রে ট্রেজারি এবং উপজেলার ক্ষেত্রে উপজেলার থানা লকারে প্রশ্নপত্রের ট্রাংক সংরক্ষণ করতে হবে। পরীক্ষার দিন সিকিউরিটি খামে সংরক্ষিত প্রশ্নপত্র প্যাকেটের সব সেট ট্রেজারি/থানা হতে ট্যাগ কর্মকর্তা ও নিরাপত্তা বাহিনীর হেফাজতে কেন্দ্রে পৌঁছাতে হবে।

পরীক্ষা শুরুর ২৫ মিনিট আগে সংশ্লিষ্ট বোর্ড থেকে সেট ব্যবহারের নির্দেশনা মোবাইল ফোনে ম্যাসেজ পাওয়ার পর নির্ধারিত সেটের সিকিউরিটি খাম খুলতে হবে। পরীক্ষা কেন্দ্রে প্রশ্নপত্র নেয়ার সময় আইনশৃঙ্খলা বাহিনী সতর্কতার সঙ্গে দায়িত্ব পালন করবে। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে প্রশ্নপত্র ফাঁস সংক্রান্ত গুজব কিংবা এ কাজে তৎপর চক্রগুলোর কার্যক্রমের বিষয়ে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী এবং সরকারের সংশ্লিষ্ট বিভাগগুলোর নজরদারি জোরদার করা হবে। প্রশ্নপত্র ফাঁস কিংবা পরীক্ষার্থীদের কাছে উত্তর সরবরাহে জড়িত ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী ও জেলা প্রশাসন কঠোর আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।

পরীক্ষা চলাকালীন পরীক্ষা কেন্দ্রে শিক্ষক, শিক্ষার্থী ও কর্মচারীরা ডিজিটাল কোনো ডিভাইস ব্যবহার করতে পারবে না। প্রতিষ্ঠান প্রধান/শিক্ষকরা কোনোভাবে এ পরীক্ষায় বেআইনি কোনো কাজ করলে তার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। প্রয়োজনে পরীক্ষা কেন্দ্র বাতিল করা হতে পারে।

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×