তফসিল একতরফা নির্বাচনের জন্য: ফখরুল

  যুগান্তর রিপোর্ট ০৯ নভেম্বর ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

তফসিল একতরফা নির্বাচনের  জন্য: ফখরুল

বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, একতরফা নির্বাচনের জন্য নির্বাচন কমিশন (ইসি) একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করেছে।

এতে সরকারের ইচ্ছারই প্রতিফলন ঘটেছে। এ ব্যাপারে আমাদের কথা খুব পরিষ্কার, জনগণের আশা-আকাক্সক্ষার পরিপন্থী কোনো নির্বাচন জনগণ মেনে নেবে না। এ বিষয়ে বিএনপির স্থায়ী কমিটি, ২০ দল ও জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের বৈঠকের পর আনুষ্ঠানিকভাবে বক্তব্য জানানো হবে। বৃহস্পতিবার রাতে রাজধানীর গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসনের কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে মির্জা ফখরুল এসব কথা বলেন। দলের স্থায়ী কমিটির বৈঠকের ফাঁকে তফসিল ঘোষণা নিয়ে সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ প্রতিক্রিয়া জানান। এরপর তিনি স্থায়ী কমিটির বৈঠকে যোগ দেন। এ বৈঠক রাত ৮টা থেকে আড়াই ঘণ্টা চলে।

খা?লেদা জিয়ার নি?র্দেশনা স্থায়ী ক?মি?টি?কে অব?হিতকরণ : আদালতে খালেদা জিয়ার সঙ্গে মির্জা ফখরুল ইসলাম দেড় মি?নিটের মতো একান্তে কথা বলেন। রাজনৈতিক পরিস্থিতি ও সংলাপের বিভিন্ন বিষয় তিনি দলীয় প্রধানকে অবহিত করেন। জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট ও ২০ দলের নেতাদের সঙ্গে আলোচনা করে নির্বাচনে যাওয়া না যাওয়ার ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নিতে ফখরুলকে খালেদা জিয়া নির্দেশনা দেন বলে জানা গেছে। আদালত থেকে মির্জা ফখরুল সরাসরি নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে যান। সেখানে কয়েকজন নেতার সঙ্গে বিষয়টি নিয়ে তিনি আলোচনা করেন। সূত্র জানায়, স্থায়ী কমিটির বৈঠকে দলীয় প্রধানের নির্দেশনার বিষয়ে নেতাদের অবহিত করেন মির্জা ফখরুল। বৈঠকে আন্দোলন ও একাদশ জাতীয় নির্বাচন নিয়ে স্থায়ী কমিটির সদস্যরা মতামত দেন। তারা বলেন, এ অবস্থায় নির্বাচনকে বৈধতা দেয়ার জন্য অংশগ্রহণ কোনোভাবেই ঠিক হবে না। তফসিল নিয়ে স্থায়ী কমিটির বৈঠকে চুলচেরা বিশ্লেষণ করা হয়। বৈঠকে মির্জা ফখরুল ছাড়াও দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ, ব্যারিস্টার জমিরউদ্দিন সরকার, লে. জে. (অব.) মাহবুবুর রহমান, মির্জা আব্বাস, গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, ড. আবদুল মঈন খান, নজরুল ইসলাম খান উপস্থিত ছিলেন। ২০ দলের বৈঠক মুলতবি, কাল ফের বসছে : গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক কার্যালয়ে সন্ধ্যা ৭টা থেকে রাত সোয়া ৮টা পর্যন্ত ২০ দলীয় জোটের শীর্ষ নেতাদের বৈঠক হয়। এতে সভাপতিত্ব করেন লিবারেল ডেমোক্রেটিক পার্টির (এলডিপি) সভাপতি কর্নেল (অব.) ড. অলি আহমদ। এছাড়া ২০ দলের সমন্বয়ক বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান, কল্যাণ পার্টির মেজর জেনারেল (অব.) সৈয়দ মুহাম্মদ ইবরাহিম, বিজেপির ব্যারিস্টার আন্দালিব রহমান পার্থ, এলডিপির ড. রেদওয়ান আহমেদ, জামায়াতের মাওলানা আবদুল হালিম, এনপিপির ড. ফরিদুজ্জামান ফরহাদ, জাতীয় পার্টির মোস্তফা জামাল হায়দার, জাগপার ব্যারিস্টার তাসমিয়া প্রধান, লেবার পার্টির ডা. মোস্তাফিজুর রহমান ইরান, ইসলামী ঐক্যজোটের অ্যাডভোকেট আবদুর রকিব, ন্যাপের চেয়ারম্যান শাওন সাদেকী প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

বিএসএমএমইউ থেকে খালেদা জিয়াকে চিকিৎসক বোর্ডের অনুমোদন ছাড়াই কারাগারে নিয়ে যাওয়ার ঘটনায় নিন্দা জানান অলি আহমদ। এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, চিকিৎসা শেষ না করেই খালেদা জিয়াকে একটি নির্জন ও পরিত্যক্ত কারাগারে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। এটা হত্যার ষড়যন্ত্র। আমরা অবিলম্বে তার মুক্তির দাবি জানাচ্ছি। সূত্র জানায়, বৈঠকের শুরুতে খালেদা জিয়াকে কারাগারে পাঠানোর ঘটনায় নিন্দা প্রস্তাব পাস হয়। নেতারা বলেন, খালেদা জিয়া খুবই অসুস্থ। রাজনৈতিক প্রতিহিংসার কারণে তাকে কারাগারে নেয়া হয়েছে।

জোটের এক শীর্ষ নেতা জানান, নির্বাচন নিয়ে ১১টি দল তাদের বক্তব্য দেয়। এর মধ্যে একটি দল বাদে ১০টি দলই নির্বাচনের পক্ষে মত দেয়। যুক্তি হিসেবে তারা বলেন, আন্দোলনের অংশ হিসেবেই নির্বাচনে যাওয়া উচিত। ক্ষমতাসীন দলকে খালি মাঠে গোল দিতে দেয়া ঠিক হবে না। অবশ্য অবিলম্বে খালেদা জিয়ার মুক্তি চেয়ে তারা বলেন, তাকে নিয়েই আমরা নির্বাচনে যেতে চাই। ওই নেতা আরও জানান, বিএনপি ও জামায়াতে ইসলামীসহ বাকি দলগুলোর মতামত নেয়ার আগেই জোটের বৈঠক মুলতবি করা হয়। মুলতবি বৈঠক আগামীকাল সন্ধ্যা ৭টায় অনুষ্ঠিত হবে।

২০ দলীয় জোটের পরিধি বেড়েছে : বিএনপি নেতৃত্বাধীন ২০ দলীয় জোটের পরিধি বেড়েছে। রাতে বাংলাদেশ জাতীয় দল, পিপলস পার্টি অব বাংলাদেশ ও মাইনোরিটি জনতা পার্টি জোটের সঙ্গে যুক্ত হয়েছে। মির্জা ফখরুল জানান, বৃহস্পতিবার সৈয়দ এহসানুল হুদার নেতৃত্বাধীন জাতীয় দল, জননেতা মশিউর রহমান যাদু মিয়ার মেয়ে রিটা রহমানের নেতৃত্বাধীন পিপলস পার্টি অব বাংলাদেশ এবং সুপ্রীতি কুমার মণ্ডলের নেতৃত্বাধীন মাইনোরিটি জনতা পার্টি আনুষ্ঠানিকভাবে ২০ দলের সঙ্গে যুক্ত হয়েছে।

ঘটনাপ্রবাহ : একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter