১৬ জেলায় বিএনপির ৭২ নেতাকর্মী গ্রেফতার

  যুগান্তর ডেস্ক ০৯ নভেম্বর ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

১৬ জেলায় বিএনপির ৭২ নেতাকর্মী গ্রেফতার

দেশের ১৬ জেলায় বিএনপির আরও ৭২ নেতাকর্মীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। বুধবার রাত থেকে বৃহস্পতিবার দুপুর পর্যন্ত বিশেষ অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেফতার করা হয়। বিশেষ ক্ষমতা আইন ও নাশকতার অভিযোগে তাদের গ্রেফতার করা হয়েছে বলে পুলিশের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে। এদের মধ্যে অনেককে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।

এদিকে বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী দাবি করেছেন, গত তিন দিনে সারা দেশে ২২০০ নেতাকর্মীকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের নেতাদের সঙ্গে সংলাপের সময় কথা দিয়েছিলেন নতুন মামলা

দেয়া হবে না, গ্রেফতার করা হবে না। প্রকৃত রাজবন্দিদের মুক্তির ব্যবস্থা করা হবে। কিন্তু প্রধানমন্ত্রীর আশ্বাসে কোনো বিশ্বাস মেলেনি। বৃহস্পতিবার রাজধানীর নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।

রিজভী বলেন, সংলাপে প্রধানমন্ত্রী ঐক্যফ্রন্টের বিশাল সমাবেশ অনুষ্ঠিত হওয়ার জন্য ঐক্যফ্রন্টের নেতাদের ধন্যবাদ জানিয়েছেন। আমিও প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানাতে চাই সমাবেশকে কেন্দ্র করে তিন দিন ধরে বিএনপির নেতাকর্মীদের চিরুনি অভিযান চালিয়ে ছেঁকে ধরা হয়েছে তার জন্য। এমনকি সমাবেশে আসা ও যাওয়ার পথে হাজারের বেশি নেতাকর্মী ও সাধারণ সমর্থককে গ্রেফতার করা হয়েছে। তিনি অভিযোগ করেন, গ্রেফতার করার পর প্রথমে টাকা নিয়ে ছেড়ে দেয়া হবে- এ কথা বলে দরকষাকষি করা হয়েছে। অনেক নেতাকর্মীর কাছ থেকে টাকা নিয়েও ছাড়া হয়নি। এমনকি ৩০০ থেকে ৩৫০ জনের বড় গ্রুপ করে রিমান্ডে নেয়া হয়েছে। পাশাপাশি তল্লাশি ও পুলিশি হানায় হাজার হাজার নেতাকর্মী ঘরবাড়ি ও এলাকাছাড়া হয়ে মানবেতর জীবনযাপন করছে। এ জন্য প্রধানমন্ত্রী ধন্যবাদ পাওয়ার যোগ্য।

রিজভী প্রশ্ন করেন, সংলাপ কি তাহলে চূড়ান্ত আক্রমণের আগে কিছুটা সময়ক্ষেপণ? তা না হলে বিরোধী দলের নেতাকর্মীদের গ্রেফতার না করার অঙ্গীকার করার পরও এত তাণ্ডব, এত পাইকারি গ্রেফতার? সরকার কি তাহলে প্রতারণার ফাঁদ তৈরি করেছে? প্রধানমন্ত্রী অতীতের মতো বলেন একটা, কিন্তু কাজ করেন অন্যটা।

এ সময় রুহুল কবির রিজভী ৫ নভেম্বর থেকে ৭ নভেম্বর পর্যন্ত সারা দেশে দলীয় নেতাকর্মীদের গ্রেফতারের একটি চিত্র তুলে ধরে বলেন, তিন দিনে ২২শ’র বেশি নেতাকর্মীকে গ্রেফতার করা হয়েছে। সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান শওকত মাহমুদ, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট আবদুস সালাম আজাদ, সহ-দফর সম্পাদক মুনির হোসেন প্রমুখ।

পুলিশি বাধায় বিএনপির সভা বাতিল : বিপ্লব ও সংহতি দিবস উপলক্ষে দলের পূর্বঘোষিত আলোচনা সভা পুলিশের বাধার কারণে বাতিল করা হয়েছে বলে জানিয়েছে বিএনপি। বৃহস্পতিবার দুপুর ২টা থেকে এ আলোচনা সভা রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইন্সটিটিউশনে অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল। বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী যুগান্তরকে বলেন, আমাদের পূর্বঘোষিত আলোচনা সভা হওয়ার কথা থাকলে পুলিশ মাইক নিয়ে যায়। ইঞ্জিনিয়ার্স ইন্সটিটিউট এলাকা সকাল থেকে ঘিরে রাখে, কাউকে সভাস্থলে প্রবেশ করতে দেয়নি। এ সময় আমাদের কেন্দ্রীয় নেতা জিএস বাবুলসহ অন্তত ৩০ জন নেতাকর্মীকে গ্রেফতার করা হয়। কোথাও সভা করতে পারছি না, যার কারণে আলোচনা সভাটি বাতিল করা হয়েছে বলে জানান তিনি।

যুগান্তর রিপোর্ট, ব্যুরো ও প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর-

বাঘা (রাজশাহী) : বুধবার রাতে নাশকতা মামলায় ৪ বিএনপি নেতাকর্মীকে আটক করেছে পুলিশ। আটককৃতরা হলেন- বাঘা পৌরসভার ৮ নম্বর ওয়ার্ড বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আনিসুর রহমান, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের সাংগঠনিক সম্পাদক জুয়েল আহম্মেদ এবং মকুল হোসেন ও আবদুস সালাম।

জীবননগর (চুয়াডাঙ্গা) : নাশকতা সৃষ্টির অভিযোগে বিএনপি-জামায়াতের ৬ নেতাকর্মীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গ্রেফতারকৃতরা হলেন- উপজেলা বিএনপির একাংশের নির্বাহী সদস্য তাজুল ইসলাম, আন্দুলবাড়িয়া ইউনিয়ন বিএনপির একাংশের সেক্রেটারি বদরউদ্দিন ও অপরাংশের সেক্রেটারি মোস্তাফিজুর রহমান সোনা, জেলা ছাত্রদলের যুগ্ম আহ্বায়ক তানভীর আহমেদ রাজিব, আন্দুলবাড়িয়া ইউনিয়ন ছাত্র শিবিরের সভাপতি সাইদুর হাসান বাপ্পি ও জামায়াতে ইসলামী কর্মী আবদুর রশিদ।

রাজশাহী : গোদাগাড়ী পৌরসভার ৫ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর মামনুর রশিদ মামুনকে বুধবার রাতে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গোদাগাড়ী মডেল থানার ওসি (তদন্ত) হাসমত আলী জানান, মামুন জামায়াতের সক্রিয় নেতা। তার বিরুদ্ধে নাশকতার মামলা রয়েছে।

নাটোর : জেলা জামায়াতের সহসভাপতি অধ্যক্ষ দেলোয়ার হোসেন খানসহ ৩ নেতাকর্মীকে বৃহস্পতিবার দুপুরে গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি) আটক করেছে। অন্যরা হলেন- জেলা জামায়াতের নেতা সহকারী অধ্যাপক মো. সাদিকুর রহমান ও জামায়াত সমর্থক প্রভাষক আবদুল খালেক।

টাঙ্গাইল : বাসাইল উপজেলা যুবদলের সাধারণ সম্পাদকসহ ৩ নেতাকে আটক করেছে পুলিশ। নাশকতার মামলায় বৃহস্পতিবার ভোরে তাদের আটক করা হয়। আটককৃতরা হলেন- উপজেলা যুবদলের সাধারণ সম্পাদক আরজু খান উজিল, কাশিল ইউনিয়ন যুবদলের সাধারণ সম্পাদক আবদুর রউফ ও বিএনপি নেতা আয়নাল হক।

গাইবান্ধা : বৃহস্পতিবার হত্যাসহ ১৩টি মামলার আসামি সুন্দরগঞ্জ উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান জামায়াত নেতা আবু সোলায়মান সরকার সাজাকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এর আগে বুধবার রাতে নাশকতা মামলায় নাকাই হাট ইউনিয়ন জামায়াতের সহসভাপতি প্রভাষক আনিসুর রহমানকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

চকরিয়া (কক্সবাজার) : নাশকতার পরিকল্পনার অভিযোগে বুধবার রাতে উপজেলা বিএনপির সভাপতি মিজানুর রহমান চৌধুরী ওরফে খোকন মিয়াসহ দলের ৭ নেতাকর্মীকে আটক করেছে পুলিশ। গ্রেফতার অন্যরা হলেন- খুটাখালী ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি জাফর আহমদ, ইউনিয়ন বিএনপির সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক ফরিদুল আলম, উপজেলা যুবদলের যুগ্ম আহ্বায়ক আবদুস ছালাম, ডুলাহাজারা যুবদলের সাবেক যুগ্ম আহ্বায়ক আনোয়ারুল আজিম, ডুলাহাজারা ইউনিয়ন ছাত্রদলের সিনিয়র যুগ্ম আহ্বায়ক হেলাল উদ্দিন ও সাবেক সদস্য সচিব মোহাম্মদ হেলাল।

আমতলী (বরগুনা) : আমতলী উপজেলা বিএনপির সভাপতি মো. জালাল উদ্দিন ফকির, সহসভাপতি মো. মকবুল আহম্মেদ খান নাশকতা ও উপজেলা ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক মেহেদী জামান রাকিবকে একটি মারামারি মামলায় গ্রেফতার করেছে পুলিশ। বুধবার গভীর রাতে তাদের গ্রেফতার করা হয়।

মঠবাড়িয়া (পিরোজপুর) : বুধবার রাতে বিএনপির ৪ নেতাকর্মীকে আটক করেছে পুলিশ। তারা হলেন- উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক তারেকুল ইসলাম, পৌরসভার ৪নং ওয়ার্ড বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক আউয়াল হাওলাদার, ছাত্রদল কর্মী অলিউল্লাহ ও রুবেল ওরফে তুহিন।

রাজাপুর ও কাঁঠালিয়া (ঝালকাঠি) : রাজাপুরে বুধবার গভীর রাতে ৬ নেতাকর্মীকে আটক করেছে পুলিশ। তারা হলেন- উপজেলা যুবদলের সহসভাপতি মো. জহিরুল ইসলাম মন্টু, উপজেলা ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ নাজমুল ইসলাম, সাংগঠনিক সম্পাদক মো. সজল, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মো. রফিকুল ইসলাম, রাজাপুর সরকারি কলেজ ছাত্রদল সাধারণ সম্পাদক মো. রাসেল হাওলাদার ও ছাত্রদল সমর্থক মো. নাইমুর রহমান খইয়াম। এ ছাড়া কাঁঠালিয়া উপজেলা বিএনপির সহসভাপতি মো. জালালুর রহমান আকন ও উপজেলা যুবদলের সাবেক সভাপতি মো. ইলিয়াস মিয়াকে বৃহস্পতিবার ভোররাতে গ্রেফতার করে পুলিশ।

নরসিংদী : বৃহস্পতিবার জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক তোফাজ্জল হোসেনসহ ১৭ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। পরে একটি নাশকতার মামলায় তাদের গ্রেফতার দেখিয়ে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠানো হয়।

ভেড়ামারা (কুষ্টিয়া) : বিএনপির ৭ নেতাকে আটক করেছে মিরপুর থানা পুলিশ। সোমবার থেকে বৃহস্পতিবার ভোর পর্যন্ত তাদের আটক করা হয়। তারা হলেন- বিএনপি নেতা রেজন আলী, মাসুদ রানা, আবদুল জলিল প্রামাণিক, আলম মোল্লা, হামিদুল ইসলাম, আশরাফুল ইসলাম ও লাভলু আলী।

বুড়িচং (কুমিল্লা) : বুধবার রাতে উপজেলা শ্রমিক দলের সেক্রেটারি মো. শহীদুল্লাহকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। বৃহস্পতিবার সকালে তাকে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।

সাটুরিয়া (মানিকগঞ্জ) : সাটুরিয়া উপজেলা বিএনপির সভাপতি ও জেলা বিএনপির সহসভাপতি আবদুল কুদ্দুস খান মজলিস মাখনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এ নিয়ে এক সপ্তাহে উপজেলা বিএনপি তিনজন সিনিয়র নেতা গ্রেফতার হলেন।

কালকিনি (মাদারীপুর) : ছাত্রদলের সহসভাপতিসহ ৪ জনকে গ্রেফতার করে বৃহস্পতিবার সকালে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে। তারা হলেন- উপজেলা ছাত্রদলের সহসভাপতি মারুফ সরদার, বিএনপি নেতা ও সাবেক ইউপি সদস্য মোশারফ হোসেন, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাবেক সম্পাদক লিয়াকত হোসেন লিটন ও উপজেলা তৃণমূল দলের সভাপতি মো. রুবেল হাওলাদার।

সিলেট : জৈন্তাপুর উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আবদুল হাফিজ ও জামায়াতের সাধারণ সম্পাদক মো. আনোয়ারুল আম্বিয়া উরফে আবুল খায়েরকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। বুধবার রাত ও বৃহস্পতিবার দুপুরে তাদের গ্রেফতার করা হয়।

বগুড়া : বগুড়ার সারিয়াকান্দি উপজেলা ও হাটশেরপুর ইউনিয়নের খোর্দ্দবলাইল সাংগঠনিক ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের কার্যালয়ে ককটেল হামলা হয়েছে। বুধবার রাতের ওই ঘটনায় বৃহস্পতিবার দুপুরে সারিয়াকান্দি থানায় বিএনপি ও অঙ্গসংগঠনের ৩৯ নেতাকর্মীর নাম উল্লেখ করে ৭৯ জনের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter